খুলনা | রবিবার | ১৯ জানুয়ারী ২০২০ | ৬ মাঘ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

আর্চারিতে ৬টিসহ সোনায় মোড়ানো দিন বাংলাদেশের

রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে সালমাদের স্বর্ণ জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক  | প্রকাশিত ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০৫:০০

এসএ গেমসের ৩৫ বছরের ইতিহাসে বাংলাদেশের জন্য এমনটি দিনটি এর আগে আর আসেনি। একই দিনে বাংলাদেশ রেকর্ড ৭টি স্বর্ণপদক জিতেছে। এর মধ্যে ছয়টি এসেছে আর্চারি থেকে। সোনায় মোড়ানো একটি দিন তারা উপহার দিয়েছে বাংলাদেশকে। অপর সোনাটি এসেছে নারী ক্রিকেট থেকে। আর্চারির ছয়টি সোনার মধ্যে সকালে রিকার্ভ পুরুষ ও নারী দলগত ও মিশ্র দলগত থেকে আসে তিনটি সোনা। আর বিকেলে কম্পাউন্ড নারী ও পুরুষ দলগত ও মিশ্র দলগত থেকে আসে আরো তিনটি সোনা।
সকালে পোখরার আর্চারি রেঞ্জে রিকার্ভ পুরুষ দলগত ইভেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশের মোঃ রুমান সানা, মোহাম্মদ তামিমুল ইসলাম ও মোহাম্মদ হাকিম আহমেদ রুবেলকে নিয়ে গঠিত দল ৫-৩ সেট পয়েন্টের ব্যবধানে শ্রীলঙ্কাকে পরাজিত করে সোনা জিতে। এরপর রিকার্ভ মহিলা দলগত ইভেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশের মোসাম্মৎ ইতি খাতুন, মেহনাজ আক্তার মনিরা ও বিউটি রায়কে নিয়ে গঠিত দল ৬-০ সেট পয়েন্টের ব্যবধানে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দ্বিতীয় সোনা জিতে নেয়। মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়ার আগে রিকার্ভ মিশ্র দলগত ইভেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশের মোঃ রুমান সানা ও মোসাম্মৎ ইতি খাতুন ৬-২ সেট পয়েন্টের ব্যবধানে ভূটানকে পরাজিত করে তৃতীয় সোনা এনে দেয় বাংলাদেশকে।
মধ্যাহ্ন বিরতির পর শুরু হয় কম্পাউন্ড ইভেন্ট। এখানে কম্পাউন্ড পুরুষ দলগত ইভেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশের মোঃ সোহেল রানা, অসীম কুমার দাস ও মোহাম্মদ আশিকুজ্জামান ২২৫ স্কোর করে ২১৪ স্কোর করা ভূটানকে পরাজিত করে চতুর্থ সোনা ঝুলিতে পোড়ে। কম্পাউন্ড মহিলা দলগত ইভেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশের সুস্মিতা বনিক, সুমা বিশ্বাস ও শ্যামলী রায় ২২৬ স্কোর করে ২১৫ স্কোর করা শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে পঞ্চম সোনা উপহার দেয়। আর বিকেলে কম্পাউন্ড মিশ্র দলগত ইভেন্টে ফাইনালে বাংলাদেশের মোঃ সোহেল রানা ও সুস্মিতা বণিক ১৪৮ স্কোর করে ১৪০ স্কোর করা স্বাগতিক নেপালকে হারিয়ে ষষ্ঠ সোনা জয় করে।
এদিকে নারী ক্রিকেটের রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে মাত্র ২ রানের ব্যবধানে হারিয়ে সোনা জিতে নেন সালমা-জাহানারারা। তাতে একদিনে ৭টি সোনা জয়ের নতুন এক রেকর্ড হয় বাংলাদেশের। পাশাপাশি বাংলাদেশ পায় সোনায় মোড়ানো একটি দিন। পোখরায় গতকাল রবিবার আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ৮ উইকেটে ৯১ রান করেছিল বাংলাদেশ। জবাবে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ৮৯ রানে থামে শ্রীলঙ্কা। জয়ের জন্য শেষ ওভারে শ্রীলঙ্কার দরকার ছিল ৭ রান। দেশসেরা পেসার জাহানারা আলম খরচ করেন মাত্র ৪ রান।
টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে বাংলাদেশের ৬ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ছিল ১ উইকেটে ৩৬। এরপরই ধস নামে ইনিংসে। সপ্তম ওভারে বাংলাদেশ হারায় চার-চারটি উইকেট! কোনো রান না দিয়েই এই ওভারে আয়েশা রহমান, সানজিদা ইসলাম, ফারজানা হক ও রিতু মনির উইকেট তুলে নেন শ্রীলঙ্কার অফ স্পিনার উমেশা থিমাশিনি। একটু পর অধিনায়ক সালমা খাতুনও ফিরলে বাংলাদেশের স্কোর হয়ে যায় ৭ উইকেটে ৪২! সেখান থেকে বাংলাদেশ একশ’র কাছাকাছি পুঁজি পায় মূলতঃ নিগার সুলতানার কল্যাণে। শেষ পর্যন্ত ২৮ বলে ২ চার ও এক ছক্কায় ২৯ রানে অপরাজিত ছিলেন নিগার। ফাহিমা খাতুন করেন ১৫ রান। সানজিদার ব্যাট থেকেও আসে ১৫ রান। শ্রীলঙ্কার উমেশা থিমাশিনি নেন ৪ উইকেট।
আজ সোমবার আর্চারিতে চারটি ইভেন্টের ফাইনাল রয়েছে বাংলাদেশের। সেখান থেকে আরো চারটি সোনা আসতে পারে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ




নড়াইলের সাথে ড্র দিয়ে শুরু খুলনার

নড়াইলের সাথে ড্র দিয়ে শুরু খুলনার

১৯ জানুয়ারী, ২০২০ ০০:০০










ব্রেকিং নিউজ

শহিদ জিয়ার ৮৪তম জন্মবার্ষিকী আজ

শহিদ জিয়ার ৮৪তম জন্মবার্ষিকী আজ

১৯ জানুয়ারী, ২০২০ ০১:০২