খুলনা | রবিবার | ১৯ জানুয়ারী ২০২০ | ৬ মাঘ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

১৫ বছরে গড়ে উঠেছে মাত্র ৪৩০ প্রতিষ্ঠান

খুলনা বিভাগে বিদেশি বিনিয়োগ কম থাকায় আশানুরূপ বাড়ছে না শিল্প কারখানা

নিজস্ব প্রতিবেদক   | প্রকাশিত ০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:১৫:০০

খুলনা বিভাগে বিদেশি বিনিয়োগ কম থাকায় আশানুরূপ বাড়ছে না শিল্প কারখানা

পদ্মা সেতু, খানজাহান আলী বিমান বন্দর, খুলনা-মোংলা রেল লাইন ও মোংলা বন্দরের উন্নয়ন কর্মকান্ড চললেও খুলনা বিভাগে আশানুরূপ শিল্প কারখানা গড়ে উঠছে না। গত ১৫ বছরে গড়ে উঠেছে মাত্র ৪৩০টি নিবন্ধিত শিল্প কারখানা। তবে বিনিয়োগ বোর্ড বলছে, সম্প্রতি দেশি বিনিয়োগ বাড়ছে। কিন্তু বিদেশি বিনিয়োগ না থাকায় শিল্প কারখানার সংখ্যা ধীর গতিতে এগোচ্ছে। বিদেশি উদ্যোক্তারা বিনিয়োগে উৎসাহিত হলে এ পরিস্থিতির উত্তরণ ঘটবে।
জানা গেছে, দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের অর্থনৈতিক উন্নয়নে নির্মাণ করা হচ্ছে পদ্মা সেতু, খানজাহান আলী বিমান বন্দর, খুলনা-মোংলা রেল লাইন ও মোংলা বন্দর। এসব উন্নয়ন কর্মকান্ডকে ঘিরে এ অঞ্চলের সংশ্লিষ্ট এলাকায় হু-হু বাড়ছে জমির দাম। বেশির ভাগ জমির মূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। কিন্তু আশানুরুপ বাড়ছে না শিল্প-কারখানা। খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, নড়াইল, যশোর, মাগুরা, ঝিনাইদহ বিভাগের এই ১০ জেলায় গত ১৫ বছরে মাত্র ৪৩০টি শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। যার মধ্যে ২০০৪ সালে ৩১টি শিল্প গড়ে ওঠে, ২০০৫ সালে ৩১টি, ২০০৬ সালে ১৩টি, ২০০৭ সালে ১৭টি, ২০০৮ সালে ১৬টি, ২০০৯ সালে ১৯টি, ২০১০ সালে ৩৮টি, ২০১১ সালে ২৫টি, ২০১২ সালে ১৯টি, ২০১৩ সালে ২৩টি, ২০১৪ সালে ৩১টি, ২০১৫ সালের ৩৮টি, ২০১৬ সালে ৪৪টি, ২০১৭সালে ৩৯টি, ২০১৮ সালে ৩০টি ও ২০১৯ সালে গড়ে উঠেছে ১৫টি শিল্প-কারখানা। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো চিংড়ি, মৎস্য হ্যাচারী চাষ ও প্রক্রিয়াজাত হিমায়িতকরণ, ফুড এন্ড এলাইড প্রেডাক্টস, ক্যাটল, পোল্ট্রি এন্ড ফিশ ফিড, প্রকৌশল শিল্প, রসায়ন শিল্প, ফার্মাসিটিক্যাল, ফার্টিলাইজার (সার শিল্প), কোল্ড স্টোরেজ (হিমাগার), জুট এন্ড টেক্সটাইল শিল্প, প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজিং, উড এন্ড পার্টিকেল বোর্ড প্রসেসিং, ডক ইয়ার্ড শিল্প, সার্ভিস (সেবা শিল্প), ডেইরী প্রোডাক্টকস এন্ড ডেইরী ফার্ম, অটোমেটিক ব্রিক ফিল্ড, প্লাস্টিক প্রোডাক্টকস, নির্মাণ শিল্প, ব্রিডার/পোল্ট্রি হ্যাচারী, পাওয়ার প্লান্ট ও সিরামিকসহ নানা শিল্প-কারখানা। 
খুলনা বিভাগীয় বিনিয়োগ বোর্ড-এর পরিচালক প্রণব কুমার রায় সময়ের খবরকে বলেন, মানুষের বার্ষিক মাথাপিছু আয় বাড়ার ফলে ব্যয়ের সক্ষমতা, চাহিদা ও ভোগ প্রবণতা বাড়ছে। তাই চাহিদার প্রেক্ষিতে ও উন্নয়নমূলক প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে শিল্প প্রতিষ্ঠান নির্মাণে দেশি উদ্যোক্তারা বিনিয়োগে আগ্রহী হচ্ছে। কিন্তু বিদেশি বিনিয়োগ একদম কম। তাই বিদেশি বিনিয়োগ কম থাকায় শিল্প কারখানার সংখ্যা ধীর গতিতে এগোচ্ছে। তবে বিদেশি উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগে উৎসাহিত করা হচ্ছে। তখন আর এ অবস্থা থাকবে না। 
অন্যদিকে জমির দাম বাড়ছে যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়াই। এক শ্রেণীর মানুষ পদ্মা সেতু, খানজাহান আলী বিমান বন্দর, খুলনা-মোংলা রেল লাইন ও মোংলা বন্দরের উন্নয়নকে পুঁজি করে এ দাম হাঁকানো হচ্ছে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ

শহিদ জিয়ার ৮৪তম জন্মবার্ষিকী আজ

শহিদ জিয়ার ৮৪তম জন্মবার্ষিকী আজ

১৯ জানুয়ারী, ২০২০ ০১:০২













ব্রেকিং নিউজ

শহিদ জিয়ার ৮৪তম জন্মবার্ষিকী আজ

শহিদ জিয়ার ৮৪তম জন্মবার্ষিকী আজ

১৯ জানুয়ারী, ২০২০ ০১:০২