খুলনা | শনিবার | ১৮ জানুয়ারী ২০২০ | ৪ মাঘ ১৪২৬ |

শীতার্তদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ান

০৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০

শীতার্তদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ান

আমাদের মাঝে শীত আসি আসি করছে। শহরাঞ্চলে একটু শীতের ছোঁয়া কম। কিন্তু গ্রামাঞ্চলে শীত চলেই এসেছে। প্রতিবছর শীত এলে দেখা যায় অনেক মানুষ শীতে কষ্ট করে মারা যায়। তারা খাবারই জোগাড় করতে পারে না আবার শীতের পোশাক কিনবে কিভাবে? এসব মানুষদের নুন আনতে পান্না ফুরায়। এই শীতে কত কষ্ট করে গরিব মানুষগুলো ঘুমিয়ে থাকে, যা নিজে না দেখলে বুঝার উপায় নেই। যারা ভাতই জোগাড় করতে পারে না, তাদের আবার শীতের বস্ত্র। অনেক মানুষের শীতবস্ত্র না থাকার কারণে আরামের ঘুমকে হারাম করতে হয়। অথচ মানুষের ঘুম হলো সবচেয়ে বড় নিয়ামত। 
আল্লাহ তায়ালা সবাইকে ধন সম্পদ দেন না। যাকেই পছন্দ করেন তাকেই ধন সম্পদ দিয়ে থাকেন।“তোমরা পৃথিবীতে এমন কোনো কাজ করে যাও, যা মৃত্যুর পরেও মানুষ তোমাকে মনে রাখে”। মানুষকে ভালো কাজের জন্য তিনি পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন। মানবতার কল্যাণ হলো ইসলামের মহান শিক্ষা। হজরত আবু হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসূল (সাঃ) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি দুনিয়ায় কোনো মানুষের অভাব দূর করবে আল্লাহ দুনিয়া ও আখেরাতে তার অভাব দূর করবেন। বান্দা যতক্ষণ তার ভাইয়ের কল্যাণে নিয়োজিত থাকে, আল্লাহ ততক্ষণ তাকে সাহায্য করেন (মুসলিম, তিরমিজি)’। হজরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর (রাঃ) থেকে বর্ণিত, ‘রাসূল (সাঃ) বলেছেন, ‘মানুষের সেবা ও উপকারের জন্য আল্লাহ কিছু নিবেদিত প্রাণ সৃষ্টি করেছেন’।
গরিব মানুষের জন্য শীত সুখের খবর নিয়ে আসে না। কষ্ট ও শীতের যন্ত্রণার খবর নিয়ে আসে। আর যারা দিন আনে দিন খায়, এমন মানুষের জন্য শীত যেন দুঃখের ভয়ানক নাম। দুমুঠো ভাত জুটিয়ে একটি শীতের কাপড় সংগ্রহ করা তাদের বড়ই কঠিন কাজ। খেটে খাওয়া মানুষগুলো সারাদিন কঠোর পরিশ্রম করে রাতে শান্তির ঘুম ঘুমাতে পারে না। মশার কামড় আর শীতের যন্ত্রণায় ছটফট করে রাত কাটাতে হয়। 
আমরা জানি, এসব গরিব মানুষের কষ্টের কথা চিন্তা করে প্রতি বছর সমাজের বিত্তশালীরা অনেকেই তাদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে আসেন। শিতের শুরুতেই এভাবে সকলকেই এগিয়ে আসা উচিত বলে আমরা মনে করি। কারন মানুষ তো মানুষের জন্যই। দরিদ্র ও হতদরিদ্র মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করুন। আপনার একটি শীতের পোশাক বা কম্বল হাসি ফুটাবে গরিব-দুঃখী মানুষের মুখে। আপনার একটি কম্বল নিয়ে গরিব মেহনতি মানুষগুলো শীতে আরামে ঘুমাতে পারবে। আসুন আমরা সবাই এসব মানুষের পাশে গিয়ে দাঁড়াই। তাদের শীতের কষ্ট থেকে বেঁচে থাকার জন্য সবাই সাহায্য সহযোগিতার হাতকে বাড়িয়ে দেই।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ