খুলনা | শুক্রবার | ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২২ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

‘কারও চৌদ্দপুরুষকে দিয়ে পকেট কমিটি চলবে না’ 

সুসময়ের বসন্তের কোকিলের ভিড়ে যেন দুঃসময়ের কর্মীরা হারিয়ে না যান : কাদের

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ০৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৩১:০০

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কারও চৌদ্দপুরুষকে দিয়ে কমিটি ও পকেট কমিটি চলবে না। বরং দুঃসময়ের ত্যাগী কর্মীর মূল্যায়ন করতে হবে। তিনি বলেন, সুসময়ের বসন্তের কোকিলের ভিড়ে যেন দুঃসময়ের কর্মীরা হারিয়ে না যান। সোমবার দুপুর আড়াইটার দিকে পটুয়াখালীর শহিদ আলাউদ্দিন শিশু পার্কে জেলা আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সুন্দর পোস্টার, ব্যানার দিয়ে ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল আ’লীগের নেতা হওয়া যায় না। আ’লীগের নেতা হতে হলে অনেক ত্যাগ শিকার করতে হয়।
ওবায়দুল কাদের বলেন, বিগত ৪৪ বছরে দেশের সবচেয়ে সৎ, দক্ষ ও জনপ্রিয় রাজনীতিক হলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আ’লীগকে বাঁচাতে হবে, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে আ’লীগকে বাঁচাতে হবে। আর আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হলে দলের জন্য ত্যাগী ও নিবেদিত প্রাণ কর্মীদের বাঁচাতে হবে। 
তিনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নকে বাঁচাতে হলে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে বার বার ক্ষমতায় ফিরিয়ে আনতে হবে। দেশের উন্নয়ন ও অর্জনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই।
আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, আ’লীগে ‘পকেট কিট’ (নেতাদের পছন্দের লোক দিয়ে কমিটি করা) চলবে না। দুঃসময়ের ত্যাগী কর্মীদের মূল্যায়ন করতে হবে। যারা আন্দোলন সংগ্রাম করেছেন কিন্তু কমিটিতে জায়গা পাননি, তাদের জায়গা দিতে হবে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, কর্মীদের কোণঠাসা করে আ’লীগ বাঁচবে না। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে, মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে, গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হলে আ’লীগকে বাঁচাতে হবে। আর আ’লীগকে বাঁচাতে হলে দলের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের বাঁচাতে হবে।
অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও পটুয়াখালী-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আ’লীগের সভাপতি শাহজাহান মিয়া। সম্মেলনে বক্তৃতা করেন কেন্দ্রীয় আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আফজাল হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক এমপি বাহাউদ্দিন নাছিম, আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ।
সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে মোট ১৪ জনের নাম জমা পড়ে। ২০ মিনিট আলোচনা শেষে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এর নাম ঘোষণা করেন। তাদের মধ্যে সভাপতি হন বর্তমান কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী আলমগীর ও সাধারণ সম্পাদক হন বর্তমান কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান। এই কমিটি তিন বছরের জন্য ঘোষণা করা হয়েছে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ











ব্যারিস্টার কায়সার কামাল কারাগারে

ব্যারিস্টার কায়সার কামাল কারাগারে

০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:২৫



ব্রেকিং নিউজ


বিজয়ের মাস ডিসেম্বর 

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর 

০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৫২

নিরালায় কেডিএ’র উচ্ছেদ অভিযান

নিরালায় কেডিএ’র উচ্ছেদ অভিযান

০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:১৫