খুলনা | রবিবার | ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ | ১ পৌষ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

সম্মিলিত দুর্নীতি বিরোধী জোটের মানববন্ধনে বক্তারা

মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছেন সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:৫৮:০০

মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছেন সরকার

দেশকে দুর্নীতিমুক্ত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়ে সম্মিলিত দুর্নীতি বিরোধী জোট, খুলনার উদ্যোগে পিকচার প্যালেস মোড়, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত, ব্যাংক-বীমা প্রতিষ্ঠানসহ তিন শতাধিক স্থানে একযোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ১মিনিট থেকে এসব স্থানে কর্মসূচি পালন করা হয়।   
‘ঘুষ নেবনা, ঘুষ দেব না’, ‘অন্যায়কে প্রশ্রয় দেব না’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজের দল থেকে দুর্নীতি বিরোধী শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। মাদক ও দুর্নীতি দেশের উন্নয়নের বড় অন্তরায়। সরকার মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছেন।  দুর্নীতির বিরুদ্ধে সকলকে রুখে দাঁড়াতে হবে। প্রথমে নিজেকে দুর্নীতিমুক্ত রাখতে হবে। দুর্নীতি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে অফিস-আদালত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গণসচেতনতা কর্মসূচি জোরদার করতে  হবে। 
সম্মিলিত দুর্নীতি বিরোধী জোট : জোটের আহ্বায়ক শেখ মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে প্রধান অতিথি ছিলেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা, সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান, খুলনার অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার হাবিবুল ইসলাম, খুলনা ওয়াসা’র ব্যাবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আব্দুল্লাহ পিইঞ্জ, সাংবাদিক মকবুল হোসেন মিন্টু, মোঃ আশরাফুজ্জামান, কৃষক নেতা শ্যামল সিংহ রায় প্রমুখ। বক্তৃতা করেন সংগঠনের যুগ্ম-আহ্বায়ক শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন, শাহীন জামাল পন, পারভীন ইলিয়াস, মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন, নূর ইসলাম বন্দ, শেখ শাহীন আজাদ, অশোক কুমার দেবনাথ, কে এম আলম, মাকসুদুল আলম খাজা, আবুল কালাম আজাদ, আব্দুল মান্নান শিকদার, কে এম জালাল উদ্দিন, শাহাদাত হোসেন, আবুল খায়ের, কে এম কবীর, কাজী শামসুল হক, ইয়াদুল ইসলাম, এম এম বদরুল ইসলাম, সরদার আব্দুল গফুর, স ম রেজাউল করীম, শেখ ইলিয়াস, রফিব উদ্দিন বাবলু, জহুরুল হক, একেএম জিয়াউল ইসলাম, মোল্লা মনিরুজ্জামান, তারেক সৈয়দ আলী আহসান, নূর আলম ময়না, ডাঃ সৈয়দ মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, রুমানাই ইয়াসমিন, আলহাজ্ব মোশাররফ হোসেন, শেখ আশরাফুজ্জামান মন্টু, স ম রেজাউল করীম, এমএ কাশেম, শাহ্ জিয়াউর রহমান স্বাধীন, ইদ্রিস আলী খান, অধ্যক্ষ ডাঃ এম এন আলম, মোশাররফ হোসেন হাওলাদার, মোঃ হায়দার আলী হাওলাদার, ড. জাকারিয়া জাকির, শেখ মফিদুল ইসলাম, মোঃ আরিফুজ্জামান মন্টু, তপন কুমার রায়, মিজানুর রহমান বাবু, ইশরাত আরা হীরা, অধ্যাপিকা উল্লাসীনি সরকার, মহিলা কাউন্সিলর মাহমুদা বেগম, মনিরা আক্তার, সালেহ উদ্দিন সবুজ, জেসমিন জামান, নূরুন্নাহার হীরা, সরকারি অধ্যাপক অজিৎ কুমার বিশ্বাস, মেহেদী হাসান রাসেল, কমলেশ বাছাড়, বিশ্বাস জাফর আহমেদ, এজি রানা, উৎপল কর্ম্মকার, তাপস বিশ্বাস, শেখ আইনুল হক, হাফেজ মোহাম্মাদ মামুন, মেজর (অবঃ) জি এম ইসলাম, অধ্যক্ষ সাজেদা ইসলাম, রেনু রহমান, সুমাইয়া খান লাভলী, মিলন বিশ্বাস, জিয়াউল হাসান টিটু, স ম হাফিজুল ইসলাম, এড. মোস্তাইন বিল্লাহ, মোঃ আঃ রাজ্জাক, আলহাজ্ব হায়দার আলী, শেখ আতাউর রহমান ববি, জি এম কামরুল ইসলাম, আশরাফুল আলম, এম এম দেলোয়ার হোসেন, মেজবাহ উদ্দিন তমাল, মোঃ সুমন সেলিম, নাজনিন জাহান সৌমি, রাজু আহম্মেদ, নূর নবী জুয়েল, মোঃ আসাদ শেখ, শাহানুল ইসলাম প্রমুখ।
মানববন্ধনের মূল কেন্দ্র পিকচার প্যালেস মোড়ে ব্যানারসহ উপস্থিত ছিলেন জেলা শিল্পকলা একাডেমী, কথাকলি একাডেমী, ত্রিকাল সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী, গ্রাফিক্স সঙ্গীত একাডেমী, আব্বাস উদ্দিন একাডেমী, আক্তার চেম্বার বণিক সমিতি, বঙ্গবন্ধু সাহিত্য একাডেমী, জলির চেম্বার ব্যবসায়ী সমিতি, বাংলার বাউল, রাইটার্স ক্লাব, লেখিকা সংঘ, গাংচিল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ, খুলনা সাহিত্য একাডেমী, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, আওয়ামী বঙ্গবন্ধু পরিষদ, রবীন্দ্র-নজরুল সঙ্গীত একাডেমী, বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার পরিষদ, একতারা সাংস্কৃতিক গোষ্ঠী, খুলনা নাট্য নিকেতন, খুলনা আবৃত্তি স্কুল, বৃত্ততর নোয়াখালী সমিতি, বাগেরহাট জেলা কল্যাণ সমিতি ও সাতক্ষীরা জনকল্যাণ সমিতি।
অন্যদিকে খুলনা মেডিকেল কলেজের সামনে, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের প্রায় সকল দপ্তরের সামনে স্ব-স্ব ব্যানারে দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে চিকিৎসক, নার্স, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। এছাড়া সোনাডাঙ্গা, খালিশপুর, দৌলতপুর, খানজাহান আলী থানার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ছাত্রসহ সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ও খুলনার সচেতন নাগরিকবৃন্দ স্ব-স্ব অঞ্চলে স্বতঃস্ফূর্তভাবে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।
বিপিএমপিএ ও বিপিএইচসিডিওএ :  নগরীর শিববাড়ী মোড়ে বেলা ১১টা হতে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল প্র্যাক্টিশনার্স এসোসিয়েশন) এবং বাংলাদেশ প্রাইভেট হাসপাতাল ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোসিয়েশন খুলনা জেলা শাখার উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও খুলনা জেলা কমিটির সভাপতি ডাঃ গাজী মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে  সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মোঃ সওকাত আলী লস্কর, ডাঃ বঙ্গ কমল বসু, ডাঃ এম এ হান্নান, ডাঃ মোল্লা হারুন-অর-রশীদ, ডাঃ এম বি জামান, ডাঃ গৌতম রায়, ডাঃ বিশ^জিৎ সরকার, মোঃ রুহুল আমিন, ডাঃ জগ বন্ধু দাশ, অসীত বরণ বিশ^াস, শামীমা আরা নীলা, পাপিয়া সারোয়ার, সোহেল মোঃ আহসানুল হক, মোঃ আব্দুর রহমান, শুভেন্দ্র কুমার সরদার, দেবদুত প্রকাশ মন্ডল প্রমুখ।
খুলনা ইঞ্জিনিয়ারিং ইউনিভার্সিটি স্কুল : বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত স্কুলের প্রধান ফটকের সামনে মানববন্ধন করেন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বক্তৃতা করেন প্রধান শিক্ষক মোঃ জাহিদুল ইসলাম, শিক্ষক রনজিৎ কুমার মন্ডল, আবুল হাসান, আব্দুল মতিন, মোঃ মহিবুল্লাহ, হাবিবা আক্তার, রহিমা আক্তার, ফারহানা ইয়াসমিন, কাজী আজহারুল ইসলাম, দেবপ্রসাদ মন্ডল, এসএম সামছুদ্দোহা, অর্মিত মল্লিক, মোঃ তালেবুর রহমান প্রমুখ।
মীরেরডাঙ্গা ইসলামিয়া আলিয়া মাদ্রাসা : ফুলবাড়ীগটস্থ খুলনা যশোর মহাসড়কের মাদ্রাসার সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বক্তৃতা করেন প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন মুহাঃ হুমায়ুন, প্রভাষক মোঃ আতাউর রহমান, আঃ সালাম গাজী, শেখ শাহিনুল ইসলাম, মোঃ আলাউদ্দিন, নিগার সুলতানা, ওয়াহিদা খাতুন, মো. হুমাউন কবির, মোঃ আলিনুর রহমান, তপন কুমার বিশ্বাস, জিএম লিয়াকত। 
ফুলবাড়ী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয় : খুলনা-যশোর মহাসড়কের ফুলবাড়ীগেটস্থ শহিদ মিনারের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক চৈতন্য কুমার কুন্ড। প্রধান অতিথি ছিলেন ম্যানেজিং কমিটি সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্জ মোল্যা মুজিবুর রহমান। বক্তৃতা করেন আ’লীগ নেতা মোঃ শাকিল আহম্মেদ, মিজানুর রহমান রুপম, অলিয়ার রহমান রাজু, নান্নু মীর, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা ইসমাইল হোসেন ইমন, বিদ্যালয় শিক্ষক তন্ময় মৃধা, বি এম মনিরুজ্জামান, রঘুনাথ সরকার, আরাফাত সিদ্দিকী।
আর আর এফ সেকেন্ডারী স্কুল : মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তৃতা করেন বেগ খালিদ হোসেন বাবু, জায়জুল হক, মতিয়ার রহমান, শিউলি আক্তার, মাকসুদা কাজী, বিল্লাল হোসেন, সুর্বণা আক্তার, অজিদ কুমার বাগচী, ফেরদৌস আরা, হাসিনা আক্তার, দিলরুবা আমিন, ফতিমা খাতুন, নুরতাজ সুলতান, আশরাফুল ইসলাম, কাজী মামুনুল ইসলাম, শিউলি আক্তার প্রমুখ। 
খানাবাড়ী গার্লস হাই স্কুল :  মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তৃতা করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আছাদুজ্জামান, সহকারী প্রধান শিক্ষক ভারপ্রাপ্ত কুমোদ চৌধুরী, সিনিয়র সহকারী শিক্ষক মেহেরুন নেছা গাজী, ডালিয়া আক্তার, সহকারী শিক্ষক (বাংলা) মোঃ জিয়াউর রহমান, জিয়াউল হাসান তুহিন প্রমুখ। 
কেডিএ খানজাহান আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয় : মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তৃতা করেন কেডিএ খানজাহান আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত সন্দীপ কুমার ঢালী, জি এম মোশারেফ হোসেন, জাহিদ হোসেন বিশ্বাস, অপূর্ব কুমার, কনিকা রানী দাস, শেখ ফরিদ উদ্দিন, রবীন্দনাথ বেগ, খন্দকার রিয়াজুজ্জামান, লক্ষ্মী রাণী বিশ্বাস, জি এম শাহিনুল ইসলাম প্রমুখ।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ






বিজয়ের মাস ডিসেম্বর 

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর 

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৫১








ব্রেকিং নিউজ






বিজয়ের মাস ডিসেম্বর 

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর 

১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৫১