খুলনা | সোমবার | ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

রূপসার আলোচিত সংগ্রাম হত্যা মামলার চার্জশীট দাখিল 

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:৫৩:০০

মাত্র এক মাস ২৫ দিনের মাথায় রূপসার আলোচিত সারজিল ইসলাম সংগ্রাম হত্যা মামলার চার্জশীট দাখিল হয়েছে। ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে গতকাল বৃহস্পতিবার খুলনার চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশীট দাখিল হয় বলে তদন্ত কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মুক্ত রায় চৌধুরী পিপিএম জানান।  চার্জশীটে অভিযুক্তরা হলেন, নগরীর টুটপাড়া মহিরবাড়ি খালপাড়ের আবুল শিকদারের ছেলে রাহাত শিকদার (২৫) ও আলমগীর হাওলাদারের ছেলে সোহেল হাওলাদার ওরফে গেদন সোহেল (২৫), রূপসার গোয়ালবাধানের মোঃ সেলিম শেখের ছেলে অমিত শেখ (২০), দক্ষিণ টুটপাড়ার মোঃ সোবহান হাওলাদারের ছেলে সাজু হাওলাদার (২৬), রূপসার বাগমারার মৃত: ইউনুস শেখের ছেলে ইব্রাহীম শেখ (২৫), দক্ষিণ টুটপাড়া মতিয়াখালী খ্রিস্টানপাড়ার অমৃত জয়ধরের ছেলে রন জয়ধর (২৬), পিরোজপুরের ইন্দুরকানি থানার মোল্যাবাড়ির মৃত তাছেম মোল্যার ছেলে আলমগীর মোল্যা (৩৭), গোপালগঞ্জের সুলতানশাহী এলাকার মৃত জাহাঙ্গীর মোল্যার ছেলে সুমন মোল্যা (৩০), সোনাডাঙ্গার গোবরচাকা মেইন রোডের শেখ ওমর আলীর ছেলে শেখ রায়হান বাপ্পি (২১), পূর্ব রূপসা বাগমারার মৃত আনোয়ার আলী শেখের ছেলে আদম আলী শেখ, পূর্ব রূপসার বাগমারার পাওয়ার হাউজ মোড়ের মোঃ মুসা সরদারের ছেলে বায়েজিদ সরদার (১৯), একই এলাকার মৃত মিনহাজ উদ্দিন শেখের ছেলে মোস্তফা কামাল ওরফে মিনা কামাল (৫০), রূপসা কলেজের মাথার মোজাম্মেল গাজীর ছেলে মোঃ হাবিবুর রহমান গাজী (৪০), মডার্ন সী ফুডের পাশের মোঃ আলিফ হোসেন ব্যাপারীর ছেলে মোঃ সোহেল ব্যাপারী (২৩) এবং বাগেরহাটের চিতলমারী থানার নাগাছির মোঃ আঃ রশিদ শিকদারের ছেলে রুবেল শিকদার (২৬)।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আরও বলেন, মামলায় ছয় জনের নাম উল্লেখ্যসহ আরও অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনকে আসামী করা হলেও তদন্তে বেরিয়ে আসে আরও অনেকের সম্পৃক্ততার কাহিনী। যার আলোকে গোপালগঞ্জ, যশোর, ঢাকা, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে এ মামলার সাথে জড়িত সর্বমোট ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তবে আরও পাঁচজন আত্মগোপনে রয়েছে। গ্রেফতারকৃত ১০ জনের মধ্যে ৮ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। আসামী গ্রেফতার ছাড়াও সংগ্রাম হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত আলামতও উদ্ধার করা হয়।
উল্লেখ্য, গত ২৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে পূর্ব রূপসার মডার্ন সী ফুডের আইটি অফিসার সারজিল ইসলাম সংগ্রামকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ওইদিনই নিহতের মা মোছাঃ সাবিনা ইয়াসমিন মিলি বাদী হয়ে রূপসা থানায় মামলা দায়ের করেন। যার নম্বর-২১, তারিখ-২৬/৯/১৯। এ হত্যাকান্ডের পর খুলনার পুলিশ সুপার এসএম শফিউল্লাহ, বিপিএম তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে এটিকে আলোচিত ও চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলা হিসেবে উল্লেখ করে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তদন্তভার জেলা গোয়েন্দা শাখায় ন্যস্ত করেন। এরপর থেকেই গোয়েন্দা পুলিশ তাদের কার্যক্রম শুরু করে প্রথমে এজাহারনামীয় প্রধান আসামী মোঃ রাহাত শিকদারকে গ্রেফতার করে। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের পর অনেকটাই দ্রুততম সময়ের মধ্যে আদালতে চার্জশীট দাখিল করা হয়। তবে চার্জশীটভুক্ত আসামীদের মধ্যে একজন রাঘব বোয়াল থাকায় এখনও নিহতের মা ও মামলার বাদিসহ পরিবারের সকলেই আতংকে রয়েছেন। যা নিয়ে নিহতের মা সম্প্রতি সংবাদ সম্মেলন করেও প্রশাসনিক হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ





কপিলমুনি মুক্ত দিবস আজ

কপিলমুনি মুক্ত দিবস আজ

০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৫০

পবিত্র ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম আজ

পবিত্র ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম আজ

০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৪৮








ব্রেকিং নিউজ





কপিলমুনি মুক্ত দিবস আজ

কপিলমুনি মুক্ত দিবস আজ

০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৫০

পবিত্র ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম আজ

পবিত্র ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম আজ

০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৪৮