খুলনা | শুক্রবার | ২২ নভেম্বর ২০১৯ | ৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

ঘূর্ণিঝড়ে আমন-শীতকালীন ফসল  ও মৎস্য ঘেরে ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:৫৮:০০

ঘূর্ণিঝড়ে আমন-শীতকালীন ফসল  ও মৎস্য ঘেরে ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কা

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র প্রভাবে খুলনা অঞ্চলের আমন, শীতকালীন শাক-সবজিসহ মৌসুমী ফসল ও মৎস্য ঘেরের ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির আশঙ্কা প্রকাশ করছে কৃষি ও মৎস্য বিভাগ। ঝড়ের প্রকোপে ভেড়ীবাঁধ ভাঙন ও অতি বৃষ্টিপাতের কারণে বিপর্যস্ত হতে পারে এ অঞ্চলের মৎস্য ঘেরও। ফলে উপকূলীয় অঞ্চলের কৃষক ও মৎস্য খামারিরা পড়েছেন দুশ্চিন্তায়।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খুলনার উপ-পরিচালক পঙ্কজ কান্তি মজুমদার সময়ের খবরকে জানান, খুলনায় ৯১ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে আমনের চাষাবাদ হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ে ধান গাছ জমে থাকা বৃষ্টির পানিতে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবার শঙ্কা রয়েছে। এর মধ্যে সর্বাধিক ঝুঁকিপূর্ণ কয়রা, দাকোপ ও পাইকগাছা এলাকার আমনক্ষেত। তিন হাজার হেক্টর জমিতে শীতকালীন শাক-সবজি আর ৪৫৫ হেক্টর জমিতে সরিষা চাষ হচ্ছে। অতিবৃষ্টির কারণে এসব ফসলেও ক্ষয়-ক্ষতি হতে পারে। এছাড়া ৭৫০ হেক্টর জমিতে পানের চাষাবাদ রয়েছে; যা নষ্ট হতে পারে প্রবল ঝড়ের কারণে।
তিনি আরও জানান, কৃষকদের মধ্যে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে কৃষি বুলেটিন প্রচার করা হয়েছে। বিশেষ করে পানি জমতে দেয়া যাবে না ফসলের ক্ষেতে। পড়ে যাওয়া ধান যতো দ্রুত সম্ভব সোজা করে রাখার জন্য ভারা বেঁধে দিতে হবে। এখনো যারা শীতকালীন শাক-সবজির চারা, সরিষা রোপন করেনি; তাদের কিছুদিন অপেক্ষায় থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।
মৎস্য অধিদপ্তর খুলনার উপ-পরিচালক রণজিৎ কুমার পাল এ প্রতিবেদককে বলেন, উপকূলীয় জেলা খুলনায় এক লাখ ১৪ হাজার গলদার এবং এক লাখ ৪৭ হাজার বাগদার ঘের রয়েছে। আর মৎস্য ঘের এলাকা সর্বাধিক ঝূঁকিপূর্ণ হওয়ায় অতিবৃষ্টি ও ঘূর্ণিঝড়ে ভেড়ীবাঁধ ভেঙে/প্লাবিত হলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে। তবে এখনি সম্ভাব্য পরিসংখ্যান প্রকাশ করা যাচ্ছে না; ঝড়ের প্রকোপ যতো বেশি, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও ততো বেশি হবার শঙ্কা রয়েছে। খুলনার কয়রা, দাকোপ ও পাইকগাছা এলাকার মৎস্য খামারিরা সর্বাধিক ঝুঁকির মধ্যে রয়েছেন।
প্রসঙ্গত, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র প্রভাবে খুলনাসহ উপকূলীয় অঞ্চলে ১০নং বিপদ সংকেত দেখিয়ে যাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের পাশাপাশি সাত ফুট পর্যন্ত জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা করা হচ্ছে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ