খুলনা | সোমবার | ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২ পৌষ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

এবার ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছে খুলনার দুই প্রতিষ্ঠান

বিভাগের ৭৭ জন করদাতাকে সম্মাননা প্রদান ১৩ নভেম্বর  

মোহাম্মদ মিলন | প্রকাশিত ০৯ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:৫০:০০

বিভাগের ৭৭ জন করদাতাকে সম্মাননা প্রদান ১৩ নভেম্বর  

সেরা করদাতা হিসেবে এবার ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছে খুলনার দু’টি প্রতিষ্ঠান। একই সাথে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও চার ক্যাটাগরীতে সম্মাননা পাচ্ছে খুলনা বিভাগের ৭৭ জন করাদাতা। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের উদ্যোগে করদাতাদের এ সম্মাননা প্রদান করা হবে আগামী ১৩ নভেম্বর। খুলনা কর অঞ্চল এ সংক্রান্ত সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। 
খুলনা কর অঞ্চলের কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায় এ প্রতিবেদককে জানান, করদাতাদের সচেতনতা বৃদ্ধি, করদানে উৎসাহ প্রদান ও করভীতি দূরকরণের লক্ষে আয়কর মেলা, করদাতাদের সম্মাননা প্রদানসহ নানা সেবা প্রদান করা হচ্ছে। এবার খুলনা সিটি কর্পোরেশনসহ বিভাগের ১০ জেলায় ৭৭জন করদাতাকে সম্মাননা দেয়া হবে। এদিন সর্বোচ্চ ও দীর্ঘ মেয়াদী করদাতাদের পাশাপাশি তরুণ পুরুষ ও সর্বোচ্চ মহিলা করদাতাদের সম্মাননা ও ক্রেস্ট প্রদান করা হবে।    
খুলনা কর অঞ্চলের যুগ্ম-কমিশনার মঞ্জুর আলম জানান, আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে আয়কর মেলা শুরু হচ্ছে। তার আগে ১৩ নভেম্বর চার ক্যাটাগরীতে করদাতাদের সম্মাননা প্রদান করা হবে। করদাতাদের উৎসাহ এবং সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে এ সম্মাননা প্রদান করা হচ্ছে।  
খুলনা কর অঞ্চলের সূত্রে জানা যায়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের উদ্যোগে আগামী ১৩ নভেম্বর প্রদান করা হচ্ছে সেরা করদাতাদের সম্মাননা। এদিন সারাদেশের ন্যায় খুলনা কর অঞ্চলে আয়োজন করা হয়েছে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানের। এই কর অঞ্চলের আওতাধীন ২২টি সার্কেলের আওতায় করদাতা রয়েছেন ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৮২২ জন। এর মধ্যে ব্যক্তি করদাতার সংখ্যা ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৪২২ জন। আর কোম্পানি করদাতা রয়েছে ১ হাজার ৪০০ জন। এসব করদাতাদের মধ্যে খুলনা কর অঞ্চলের আয়োজনে স্থানীয় একটি অভিজাত হোটেলে দীর্ঘ মেয়াদী, সর্বোচ্চ, তরুণ ও মহিলা এই চারটি ক্যাটাগরীর ৭৭ জন করদাতাকে সম্মাননা ও ক্রেস্ট প্রদান করা হবে। খুলনা সিটি কর্পোরেশনসহ বিভাগের প্রত্যেক জেলার ৩ জন সর্বোচ্চ ও ২ জন দীর্ঘ মেয়াদী, একজন সর্বোচ্চ মহিলা ও একজন তরুণ করদাতা সম্মাননা পাচ্ছেন। একই দিনে খুলনার দু’টি প্রতিষ্ঠানকে ঢাকায় ট্যাক্স কার্ড প্রদান করা হবে। এর মধ্যে প্রকৌশল ক্যাটাগরীতে এবার ট্যাক্স কার্ড পাচ্ছে খুলনা শিপইয়ার্ড এবং পাট শিল্প ক্যাটাগরীতে খুলনার সুপার জুট মিল।  
খুলনা কর অঞ্চলে চার ক্যাটাগরীতে সম্মাননা পাচ্ছেন যারা : খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন খান সাইফুল ইসলাম, মোঃ আব্দুল হামিদ সরদার ও এস এম মনিরুজ্জামান শাহীন এবং দীর্ঘ মেয়াদী কর প্রদানকারী হলেন, মোঃ আবু বকর শেখ ও সৈয়দ আবু নাসের। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা সাবিত্রী আগরওয়ালা ও তরুণ করদাতা কাজী সানোয়ার হোসেন।  
খুলনা জেলার (সিটি কর্পোরেশন ব্যতীত) সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন জিয়াউল আহসান, মোঃ শামীম আহসান ও শেখ ইবাদত হোসেন এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, মোঃ আব্দুল মজিদ সানা ও মোঃ আনোয়ার ইকবাল। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা লায়লা আকতার ও তরুণ করদাতা  মোঃ নূর-এ-আলম সিদ্দিকী।  
সাতক্ষীরা জেলার সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন, মোঃ আবু হাসান, মোঃ আশিকুর রহমান (আশিক) ও দিপংকর কুমার ঘোষ এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, বিশ্বজিৎ সাধু ও মোঃ আক্কাজ আলী। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা নিলুফা ইয়াসমিন ও তরুণ করদাতা গোলাম আকবর।  
বাগেরহাট জেলার সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন লিপিকা রাণী দাস, মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ও মীর রহমত আলী এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, গৌর চন্দ্র সাহা ও রাম কৃষ্ণ বসু। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা পপি আক্তার ও তরুণ করদাতা মোঃ এখলাছুর রহমান।  
যশোর জেলায় সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন মোঃ আনছারী হোসেন, মোঃ নূর হোসেন ও আবু নাসের সরকার এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, মোঃ গোলাম মোরশেদ ও নিমাই চন্দ্র দত্ত। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা রাফফাত আরা ডলি ও তরুণ করদাতা মোঃ তৌফিকুর রহমান।  
কুষ্টিয়া জেলার সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন মোঃ মজিবর রহমান, মোঃ পারভেজ রহমান ও সেলিমা বেগম এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, মোঃ ইবাদত আলী ও মোঃ মফিদুল ইসলাম খান। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা পারভীন রহমান ও তরুণ করদাতা মোঃ জিয়াউল হক।   
মাগুরা জেলায় সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন মোঃ শাহীনুর রহমান পিকুল, মকবুল হাসান মাকুল ও মোঃ মেহেদী হাসান রাসেল এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, খোন্দকার আমির হোসেন ও মোঃ সামছুল হক। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা ডাঃ সূপর্না আহমেদ ও তরুণ করদাতা মোঃ ফয়সাল আহাম্মেদ।  
নড়াইল জেলার সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন এম এম রেজাউল আলম, মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান ও জাহিদুল ইসলাম এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, মোঃ হুমায়ুন কবীর ও মোঃ আজিজুর রহমান ভূঁইয়া। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা উম্মে রেজওয়ানা ও তরুণ করদাতা মোঃ ইমদাদুল ইসলাম।   
ঝিনাইদহ জেলার সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন, মোঃ মিজানুর রহমান লিটন, নিখিল কুমার পাল ও মোঃ শামিম হোসেন মোল¬া এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, সৈয়দ শাহজাহান আলী ও মোঃ ফজলুল করিম মিন্টু। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা ডাঃ মোছাঃ মারফিয়া খাতুন ও তরুণ করদাতা মোঃ রাশিদুর রহমান।  
চুয়াডাঙ্গা জেলায় সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন, দিলীপ কুমার আগরওয়ালা, সবিতা আগরওয়ালা ও সাইফুন্নাহার আক্তার শাম্মী এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, মোঃ শহিদুল হক মোল্ল¬া ও মোঃ খোরশেদ আলম। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা আক্তারী জোয়ার্দার ও তরুণ করদাতা আবু তাহের মোঃ হাসানুজ্জামান।     
মেহেরপুর জেলার সর্বোচ্চ করদাতারা হলেন অজয় সুরেকা, মোঃ আব্দুল হান্নান ও মোঃ আব্দুস সামাদ বিশ্বাস এবং দীর্ঘ মেয়াদী করদাতারা হলেন, মোঃ গিয়াস উদ্দিন ও মোঃ আবুল কাশেম। এছাড়া সর্বোচ্চ মহিলা করদাতা হামিদা খানম ও তরুণ করদাতা মোঃ আরিফ শেখ।      


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ


বেসরকারি সোনালী জুট মিল বন্ধ ঘোষণা

বেসরকারি সোনালী জুট মিল বন্ধ ঘোষণা

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:৩০









মহান বিজয় দিবস আজ

মহান বিজয় দিবস আজ

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৩৮



ব্রেকিং নিউজ


বেসরকারি সোনালী জুট মিল বন্ধ ঘোষণা

বেসরকারি সোনালী জুট মিল বন্ধ ঘোষণা

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:৩০







বিজয় দিবস ও আজকের মূল্যায়ন

বিজয় দিবস ও আজকের মূল্যায়ন

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:২১



বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন আমাদের গর্ব

বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন আমাদের গর্ব

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:১৬