খুলনা | শুক্রবার | ১৫ নভেম্বর ২০১৯ | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

খোকাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারে মানুষের ঢল

খবর প্রতিবেদন  | প্রকাশিত ০৭ নভেম্বর, ২০১৯ ১২:৫৫:০০

ঢাকা সিটির সাবেক মেয়র ও বিএনপি নেতা সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেয়া হয়েছে। সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে তার মরদেহ শহীদ মিনারে নেয়া হয়।
ভক্ত, আর সহকর্মীরা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শেষবারের মতো এই গেরিলা মুক্তিযোদ্ধার প্রতি তাদের শ্রদ্ধা আর ভালোবাসা জানাচ্ছেন।
অবিভক্ত ঢাকা সিটির সাবেক এই মেয়রকে শহীদ মিনারে নেওয়া হবে এমন খবরে আগে থেকেই সেখানে ঢল নামে জনতার। বিএনপির এই নেতাকে দেখতে শহীদ মিনারে ভিড় জমায় হাজারো মানুষ। রাজনীতিবিদ, সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে অনেক নারীও আসেন তাকে শ্রদ্ধা জানাতে। ঢাকা ছাড়াও ঢাকার বাইরে থেকে অনেকেই এসেছেন তাদের খোকাকে একনজর দেখার জন্য। সবাই হাতে ফুল দিয়ে শেষবারের মতো শ্রদ্ধা জানান এই গেরিলা মুক্তিযোদ্ধাকে।
এর আগে সকাল ৮টা ২৫মিনিটে বিমানবন্দরে পৌঁছায় খোকার লাশ। পরে আনুষ্ঠানিকতা শেষে নয়টার দিকে বিমানবন্দরের কার্গো গেটের বাইরে নিয়ে আসা হয়। এরপর ১১টার কিছু আগে জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় খোকার মরদেহবাহী গাড়িটি পৌঁছায়। পরে দক্ষিণ প্লাজায় অস্থায়ীভাবে স্থাপিত মঞ্চে মরদেহের কফিনটি রাখা হয়। সেখানে তার দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মরদেহ নেওয়া হয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে।
এখানে একটা পর্যন্ত শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বাদ জোহর নয়াপল্টনে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে তার তৃতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল ৩টায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে মরহুমের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। সেখান থেকে গোপীবাগে মরহুমের নিজস্ব বাসভবনে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে। বাদ আছর মরহুমের বাসভবন থেকে মরদেহ ধুপখোলা মাঠে নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানে শেষ নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে জুরাইন কবরস্থানে মায়ের কবরে তাকে দাফন করা হবে এই মুক্তিযোদ্ধাকে।
ক্যান্সারে আক্রান্ত খোকা নিউইয়র্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ নভেম্বর দুপুরে মারা যান। ২০১৪ সাল থেকে চিকিৎসার জন্য তিনি নিউইয়র্কে ছিলেন।
খোকা তিনবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ছিলেন। এছাড়া ছিলেন দুইবারের মন্ত্রী। এবং ২০০২ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। সূত্র : ঢাকা টাইমস 
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ