খুলনা | শনিবার | ২৩ নভেম্বর ২০১৯ | ৮ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

ইমরান খানবিরোধী আজাদি মার্চ দীর্ঘ অবস্থান কর্মসূচিতে রূপ নিতে পারে

খবর প্রতিবেদন  | প্রকাশিত ২৩ অক্টোবর, ২০১৯ ১১:৩১:০০

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে অপসারণে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন জমিয়ত উলামা-ই ফজলের নেতা ফজলুর রহমান। আগামী ২৭ মার্চ সরকারবিরোধী আজাদি পদযাত্রায় ইসলামাবাদে দীর্ঘ অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে পারেন তারা। দলটির ইস্যু করা সাম্প্রতিক নির্দেশনা থেকে এমন তথ্যই জানা গেছে।-খবর ডন অনলাইনের
নির্দেশনায় বলা হয়েছে, নেতাকর্মী, সমর্থক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে করে পাঠ্যবই ও পবিত্র কোরআন নিয়ে আসতে হবে। বিক্ষোভে যোগ দিয়ে তাদের যাতে লেখাপড়ায় ব্যাঘাত না ঘটে, সে জন্যই এ নির্দেশনা বলে জানানো হয়েছে।
ইমরান খান সরকারকে অদক্ষ ও অবৈধ ঘোষণা দিয়ে মঙ্গলবার তিনি এ বিক্ষোভ ডেকেছেন। ফজলুর রহমান বলেন, গত বছর কারচুপির নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সেনাবাহিনী ইমরান খানকে ক্ষমতায় বসিয়েছে।
ইসলামাবাদে এক সংবাদ সম্মেলনে এ জমিয়ত নেতা বলেন, আমরা ইসলামাবাদ অভিমুখে পদযাত্রা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যাদের শাসন করার কোনো অধিকার নেই, অবিলম্বে তাদের পদত্যাগই আমাদের মূল দাবি।
এর আগে গত জুনেই অক্টোবর থেকে ইসলামাবাদ অভিমুখে দীর্ঘ পদযাত্রা (লংমার্চ) করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছিলেন এই ধর্মীয় নেতা। এ মাসের শুরুর দিকে তিনি প্রথম জানান যে, আজাদি মার্চ হবে ২৭ অক্টোবরে।
তিনি জানিয়েছেন, ২৭ অক্টোবর গোটা দেশ থেকে আজাদি মার্চ শুরু হয়ে তা রাজধানী ইসলামাবাদে যাবে ৩১ অক্টোবরে। তার বিক্ষোভের ঘোষণায় পাকিস্তানের অর্থনীতি সামাল দিতে সরকারের হিমশিম খাওয়ার এ সময়ে দেশটিতে রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠার আশঙ্কা বাড়ল।
জমিয়ত উলামা-ই ফজলের এই বিক্ষোভে নিজেদের গা বাঁচিয়ে সায় দিয়েছে পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলোও।
বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে আলোচনার কথা জানিয়ে সরকার বলছে, তবে রাজধানীর জনজীবন কাউকেই অচল করতে দেয়া হবে না।
যারা আজাদি পদযাত্রায় অংশ নিতে চান তাদের খাবার-দাবার ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী সঙ্গে নিতে আহ্বান জানিয়েছে জমিয়ত। যাতে তারা অন্তত পাঁচ দিন চলতে পারেন।
পাকিস্তানজুড়ে জমিয়ত উলামা-ই ফজলের কয়েক হাজার মাদ্রাসা রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, শিক্ষার্থীরাও আজাদি মার্চে অংশ নেবেন।
গণমাধ্যমের খবরে দেখা গেছে, দলটি তাদের নেতাকর্মীদের ৩২ দফার নির্দেশনা দিয়েছে। জেইউআই-এফের সিন্ধুপ্রদেশের প্রাদেশিক আমির মাওলানা রশিদ সুমরো এ নির্দেশনা ইস্যু করেন।
গাড়ি ভাড়া করে লোকজনকে একমুখী পথ দিয়ে ইসলামাবাদে নিয়ে আসতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে জমিয়তের স্থানীয় সংগঠনকে।
সম্ভাব্য এই পদযাত্রায় অংশগ্রহণকারীদের অন্তত দুই সেট পোশাক, বিছানার চাদর, কম্বল, শুকনা খাবার, ছাতা, মোবাইল ফোন চার্জার, পানির বোতল নিয়ে যেতে বলা হয়েছে।
ইসলামাবাদে অন্তত সপ্তাহব্যাপী অবস্থানের প্রস্তুতি নিয়ে আসতে বলা হয়েছে জমিয়তের নেতাকর্মীদের।
তবে কোনো লাইসেন্সধারী কিংবা অবৈধ অস্ত্র, ছোরা, লাঠি ও রড বহন করতে না বলা হয়েছে। সবাইকে শান্তিপূর্ণভাবে পদযাত্রার বাস্তবায়নের আহ্বান জানানো হয়েছে।
বিক্ষোভের সময় যাতে সরকারি-বেসরকারি কোনো স্থাপনা কিংবা সম্পদ ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে নির্দেশনায় বলা হয়েছে। সূত্র : যুগান্তর অনলাইন 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ

শর্তজুড়ে দিয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহার

শর্তজুড়ে দিয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহার

২১ নভেম্বর, ২০১৯ ০১:১৬













ব্রেকিং নিউজ