খুলনা | শুক্রবার | ১৫ নভেম্বর ২০১৯ | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

বরাদ্দপ্রাপ্তরা নেই, থাকেন ভাড়াটিয়া

খুলনায় রেলের সাড়ে ৩শ’ স্টাফ কোয়ার্টার ঝুঁকিপূর্ণ

এন আই রকি | প্রকাশিত ১৯ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:৩৬:০০

খুলনায় রেলওয়ে স্টাফ কোয়ার্টারগুলোর মধ্যে ৯০ ভাগই ঝুঁকিপূর্ণ। দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় কোয়ার্টারগুলো বসবাসের অনুপযোগী হয়ে গেছে। পলেস্তারা নেই বললেই চলে। বৃটিশ আমলের ইটগুলোর আয়ু প্রায় শেষ। ফলে রেলের বেশিরভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারি কোয়ার্টার বরাদ্দ নিলেও জীবনের ঝুঁকিতে তারা অন্যত্র বসবাস করছে। কম ভাড়ায় বরাদ্দ নেয়া এসব ঝুঁকিপূর্ণ কোয়ার্টারে অনেকেই পরিবার-পরিজন নিয়ে থাকছেন। সরেজমিনে গিয়েও বিভিন্ন কোয়ার্টারে গিয়ে ভাড়াটের প্রমাণ মিলেছে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে কর্মকর্তাদের কোয়ার্টারগুলোতে এই ধরনের ঘটনা দৃশ্যমান। 
এদিকে খুলনা রেলওয়েতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চাহিদা মোতাবেক স্টাফ কোয়ার্টারের পরিমাণ খুব কম। সাড়ে ৪শ’ স্টাফ কোয়ার্টার থাকলেও খুলনার আধুনিক রেল স্টেশন করার সময় প্রায় শতাধিক কোয়ার্টার ভেঙে ফেলা হয়। যার ফলশ্র“তিতে কোয়ার্টারের চাহিদা আরও বেড়ে যায়। খুলনার পুরাতন রেল স্টেশন এলাকা, জংশন এবং দৌলতপুর রেল স্টেশন এলাকা মিলে বর্তমানে সাড়ে ৩শ’ স্টাফ কোয়ার্টার রয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ রেলওয়ে শ্রমিক লীগ অফিসের বিপরীত পাশের পিটি-ওয়ান সম্প্রতি সংস্কার করা হয়েছে। এই পিটিওয়ানে ৪টি কোয়ার্টার রয়েছে। বর্তমান সময়ে এই ৪টি কোয়ার্টার ছাড়া অন্য সকল কোয়ার্টারগুলো অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। গেল সেপ্টেম্বরে খুলনার ইন্সপেক্টর অফ ওয়ার্কস (আইওডাব্লিউ) চাঁদ আহমেদ রেলের সাড়ে ৩শ’ স্টাফ কোয়ার্টারের সংস্কারের জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে পাকশির বিভাগীয় প্রকৌশলীর নিকট লিখিতভাবে জানিয়েছেন। 
রেলওয়ে শ্রমিক সংগঠনের একাধিক নেতৃবৃন্দের সাথে আলাপকালে তারা জানান, অনেকেই বরাদ্দ নিয়ে ভাড়া দেয়ার ঘটনা সঠিক। তবে না দিয়ে উপায় কি। স্টাফ কোয়ার্টারের যা অবস্থা সেখানে পরিবার নিয়ে থাকা ঝুঁকিপূর্ণ। তাই বরাদ্দ পাওয়ার পর তারা অল্প মূল্যে ভাড়া দিয়ে অন্যত্র বসবাস করছে। 
নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, কোয়ার্টারের সংকট দীর্ঘদিনের। তারপর আবার কোয়ার্টার ভেঙেও ফেলা হয়েছে। বিচ্ছিন্ন ভাবে এখন অনেক জায়গায় কোয়ার্টার রয়েছে যা ঝুঁকিপূর্ণ। এগুলো সংস্কার না করে থাকার উপযোগী নয়। সংস্কার করতেও সরকারের ব্যয়ও হবে অনেক। সেক্ষেত্রে বিচ্ছিন্ন ভাবে দীর্ঘদিনের পুরাতন স্টাফ কোয়ার্টারগুলো সংস্কার না করে রেলওয়ের যে কোন জায়গায় বহুতল কোয়ার্টার করলে সেটা ভাল হবে। 
খুলনার ইন্সপেক্টর অফ ওয়ার্কস (আইওডাব্লিউ) চাঁদ আহমেদ জানান, খুলনায় স্টাফ কোয়ার্টার পর্যাপ্ত নেই। সাড়ে ৪শ’ কোয়ার্টারের মধ্যে ১শ’ কোয়ার্টার নতুন স্টেশনের সময় ভেঙে ফেলা হয়েছে। বাকি সাড়ে ৩শ’ কোয়ার্টার অনেক পুরাতন। যার প্রায় প্রত্যেকটিতে সংস্কার করা দরকার। বিষয়টি লিখিতভাবে গত সেপ্টেম্বরে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।  
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ