খুলনা | মঙ্গলবার | ২২ অক্টোবর ২০১৯ | ৬ কার্তিক ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

তেরখাদায় উপজেলা প্রকৌশলীকে হুমকি : জামাই-শ্বশুর হাজতে

নিজস্ব প্রতিবেদক  | প্রকাশিত ১১ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:৫৩:০০

তেরখাদায় উপজেলা প্রকৌশলীকে হুমকি : জামাই-শ্বশুর হাজতে

নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে রাস্তার কাজ করার অভিযোগ ঠিকানাদারের কার্যক্রম স্থগিত করেছিলেন উপজেলা প্রকৌশলী। স্থানীয় প্রভাব খাটিয়ে কাজটি সচলে দপ্তরে গিয়ে উপজেলা প্রকৌশলীকে হুমকি দিলেন শ্বশুর। জামাতার পক্ষ নিয়ে এমন কাজ করতে গিয়ে শেষ পর্যন্ত জেলহাজতে যেতে হলো শ্বশুর মোল্লা আজিজুর রহমান গাউস ও ঠিকাদার জামাতা এফ এম হাবিবুর রহমানকে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে তেরখাদা উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ শহিদুল ইসলামের দপ্তরে এ ঘটনা ঘটে।
একাধিক সূত্র জানায়, সম্প্রতি ঠিকাদার এফ এম হাবিবুর রহমান উপজেলার পানতিতা এলাকায় একটি রাস্তা মেরামতের কাজ পান। সেই কাজে তিনি ব্যাপক অনিয়ম করেন। উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ শহিদুল ইসলাম সেই কাজে বাধা দেয়ার পাশাপাশি নতুন করে কাজ শুরু করতে বলেন ঠিকাদারকে। এ নিয়ে প্রকৌশলীর সাথে ঠিকাদারের কয়েক দফা তর্ক-বিতর্ক হয়। গতকাল ঠিকাদার তার প্রভাবশালী শ্বশুর মোল্লা আজিজুর রহমান গাউসকে প্রকৌশলীর দপ্তরে পাঠিয়ে কাজ আগের মতোই করার হুমকি দেন। এক পর্যায়ে গাউস উপজেলা প্রকৌশলীকে ধাক্কা মারেন। প্রকৌশলী তখন তাৎক্ষণিকভাবে রুম থেকে বের হয়েই গাউসসহ তার জামাতা ঠিকাদার হাবিবুর রহমানকে তালা মেরে সরে পড়েন। প্রায় দুই ঘন্টা পর খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিষ্ণুপদ পাল ও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ সালেকুজ্জামান ঘটনাস্থলে যান। একপর্যায়ে শ্বশুর গাউস ও তার জামাতাকে আটক করেন।
তেরখাদা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ সালেকুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, গাউস উপজেলা প্রকৌশলীকে লাঞ্ছিত করায় তাকেসহ ঠিকাদারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত গত রাত পৌনে ৯টার দিকে এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে জানিয়েছেন ওসি।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ