খুলনা | মঙ্গলবার | ২২ অক্টোবর ২০১৯ | ৬ কার্তিক ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় কারসাজি চেষ্টার অভিযোগ

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ডাঃ তারিমকে জেল-জরিমানা : থ্রী ডক্টরস সিলগালা

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১১ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:৩৬:০০

মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের মুঠোফোনে ম্যাসেজ দিয়ে প্রশ্নপত্র শিথিল ও বেআইনী সুযোগ সুবিধা দেয়ার চেষ্টার অভিযোগে নগরীতে থ্রী ডক্টরস’র পরিচালক ডাঃ তারিম ওরফে ইউনুস খান তারিমকে ২৪ ঘন্টার হাজতবাস, ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া তার ওই প্রতিষ্ঠানে সিলগালা করা হয়েছে। তিনি খুলনা বিএমএর সদস্য, স্বাচিপ নেতা ও খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত। এছাড়া তিনি একটি ক্লিনিকের মালিক। 
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাকে এ দণ্ডাদেশ দেয়া হয়। একই সাথে ডাঃ তারিমের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লি¬ষ্ট মন্ত্রণালয়ে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সুপারিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়। এদিকে আজ শুক্রবার মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার তদারকি করতে ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্বে থাকবেন বলে জেলা প্রশাসন সূত্র নিশ্চিত করেছেন। 
এর আগে দুপুর ১টার দিকে নগরীর ফুল মার্কেট এলাকায় বেনী বাবু রোডস্থ থ্রী ডক্টরস কোচিংয়ে অভিযান পরিচালনা করে জেলা প্রশাসন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মিজানুর রহমান ও মোঃ ইমরান খান এ অভিযান পরিচালনা করেন। একমাস কোচিং বন্ধ রাখার নির্দেশনা থাকলেও তিনি তা না মেনে কোচিং চালাচ্ছিলেন। এসময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে ডাঃ তারিমকে আটক করে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে নেয়া হয়। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন গতকাল বিকেলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের আয়োজন করেন। 
প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধসহ সকল প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিরোধে জেলা প্রশাসন এ অভিযান পরিচালনা করেছে। পরীক্ষার স্থানে জেলা প্রশাসনের ১০জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন। 
থ্রী ডক্টরস কোচিং সম্পর্কে তিনি বলেন, এই প্রতিষ্ঠানের পরিচালক ডাঃ তারিমকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও অধিকতর তদন্তের জন্য ২৪ ঘন্টার আটকাদেশ দেওয়া হয়েছে। এই সময়ে ডাঃ তারিম খুলনা সদর থানায় আটক থাকবেন। জেলা প্রশাসক আরও জানান, ডাঃ তারিম তার স্টুডেন্টদের যে মেসেজ দিয়েছেন, সে ক্ষেত্রে প্রশ্ন সহজ হবে, পরীক্ষার সময় তাদের আশেপাশে গার্ড শিথিলতা থাকবে এ ধরনের প্রমাণ পেয়েছে জেলা প্রশাসন। এছাড়া তিনি সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার পদ থেকে যাতে অব্যাহতি পান সে বিষয়ে সংশ্লি¬ষ্ট মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ পাঠানো হবে বলে নিশ্চিত করেন তিনি। 
 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ