খুলনা | মঙ্গলবার | ২২ অক্টোবর ২০১৯ | ৭ কার্তিক ১৪২৬ |

এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের মান বাড়ান, ঝুঁকি কমান

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০:০০

এলপি গ্যাস সিলিন্ডারের মান বাড়ান, ঝুঁকি কমান

গৃহস্থালি কাজে এলপিজির (লিকুইড পেট্রোলিয়াম গ্যাস) ব্যবহার প্রতিনিয়ত বাড়ছে। অথচ এই সিলিন্ডার গ্যাসের ব্যবহার দিন দিন আতঙ্কের কারণ হয়ে দাড়াচ্ছে। গত পাঁচ বছরে গ্যাস সিলিন্ডার-সংক্রান্ত পাঁচ শতাধিক ঘটনায় দুই শতাধিক মানুষ হতাহত হয়েছেন। বিষয়টি উদ্বেগজনক।
ক্রমেই যেন অরক্ষিত হয়ে উঠছে মানুষের সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয়স্থল নিজ বাসগৃহটিও। সাধারণত একটি সিলিন্ডারের আয়ুস্কাল ১৫ বছর। কিন্তু অভিযোগ আছে, ২৫-৩০ বছরের পুরনো সিলিন্ডারেও বিপণন হচ্ছে এলপিজি। মূলত মেয়াদোত্তীর্ণ এসব সিলিন্ডারে গ্যাস বিপণনের কারণে বাড়ছে দুর্ঘটনা, ঘটছে হতাহতের মর্মন্তুদ ঘটনা। শুধু তাই নয়, অগ্নি-দুর্ঘটনাও ঘটছে মানহীন, ঝুঁকিপূর্ণ এলপিজি সিলিন্ডার বিস্ফোরণের কারণে। এলপিজি সিলিন্ডারের ব্যবহার কেবল বাসাবাড়িতেই বাড়ছে না, যানবাহন, হোটেল-রেস্তোরাঁয়ও এই অনিরাপদ গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহারের কারণে দুর্ঘটনা ঘটছে। নিম্নমানের সিলিন্ডার, কিটস ব্যবহার ও নিয়ম অনুযায়ী পাঁচ বছর পরপর পুনঃপরীক্ষা না করাসহ বিবিধ কারণে গ্যাস সিলিন্ডার কার্যত বিপজ্জনক বোমায় পরিণত হয়েছে।
বর্তমানে এলপি গ্যাস বাজারের সিংহভাগের নিয়ন্ত্রণ ব্যক্তি খাতের হাতে। এ খাতের বেশকিছু প্রতিষ্ঠান এলপি গ্যাস আমদানি করে সিলিন্ডারে ভর্তি করে বিপণন করছে। কিন্তু গ্যাসভর্তি এসব সিলিন্ডার বাজারে সরবরাহ এবং সেগুলো রক্ষণাবেক্ষণের ক্ষেত্রে রয়েছে গুরুতর অনিয়ম। এতে বাড়ছে ঝুঁকি। যানবাহনে এসব বিপজ্জনক গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহারে বিপদ আরও বহুমুখী হচ্ছে। ক্রমাগত গ্যাস সংকট আর সিএনজি ফিলিং স্টেশনের লম্বা লাইন এড়াতে ঝুঁকিপূর্ণ পথই বেছে নিচ্ছেন যানবাহন চালকরা। এক্ষেত্রে দ্রুত নজরদারি বাড়ানো দরকার। অনেক ক্ষেত্রে অক্সিজেনের সিলিন্ডারও নিম্নমানের ব্যবহৃত হচ্ছে এ অভিযোগও আছে। এ রকম সিলিন্ডার ব্যবহার আর সার্বক্ষণিক দুর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে চলা একই কথা। যে কোনো সিলিন্ডার পাঁচ বছর পর পর পুনঃনিরীক্ষা করানো বাধ্যতামূলক করা জরুরি। পাশাপাশি নিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে সিলিন্ডারের উপযুক্ত মান নিশ্চিত করা জরুরি বলে আমরা মনে করি। এক্ষেত্রে মানসম্মত, ঝুঁকিমুক্ত গ্যাস সিলিন্ডার আমদানির প্রতি অবশ্যই গুরুত্ব আরোপ করতে হবে। সংশ্লিষ্ট সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকলে এই বিপদ এড়ানো দুরূহ নয়।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ







আবরার হত্যার বিচার হবে তো?

আবরার হত্যার বিচার হবে তো?

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০







ব্রেকিং নিউজ