খুলনা | বুধবার | ২৩ অক্টোবর ২০১৯ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

জননিরাপত্তা আইনে ফারুক আব্দুল্লাকে আটক

জম্মু-কাশ্মীরে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফেরাতে আদালতের নির্দেশ

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০১:০৪:০০

ভারতনিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীরে দ্রুত স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনতে কেন্দ্রীয় সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। আদালত দেশটির সরকারের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘জম্মু ও কাশ্মীরে যত দ্রুত সম্ভব স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনার যথাসাধ্য চেষ্টা করুন। জাতীয় স্বার্থের কথা মাথায় রেখে সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপ নেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেন আদালত।
সোমবার প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গোগোইয়ের নেতৃত্বে তিন বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত সুপ্রিম কোর্টের একটি বেঞ্চ এ কথা বলেন। বিচারকেরা বলেন, ‘আমরা জম্মু ও কাশ্মীরে স্বাভাবিক জীবনব্যবস্থা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছি। জাতীয় স্বার্থের কথা বিবেচনা করে নির্বাচনী ভিত্তিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের কথা বলেছি।’
বিচারপতি এস এ ববদে এবং বিচারপতি এস এ নাজিরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ বলেন, অবরোধ কাশ্মীর উপত্যকায় হওয়ায় জম্মু ও কাশ্মীরের হাইকোর্ট বিষয়টি মীমাংসা করতে পারেন।
সরকার আদালতকে বলেছে, ‘বিধিনিষেধ থাকাকালীন কাশ্মীরে কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।’ ভারত সরকার কাশ্মীর অঞ্চলের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে জম্মু ও কাশ্মীরকে দুই ভাগ করে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ঘোষণা দেওয়ার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে কাশ্মীরে নানা বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়।
কেন্দ্রের আইনজীবী সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেছেন, ‘কাশ্মীরে একটি গুলিও চালানো হয়নি, সেখানে কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।’ ৯৩ থানা থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে তুষার মেহতা বলেন, লাদাখে বর্তমানে কোনো বিধিনিষেধ নেই। রাজ্যজুড়ে হাসপাতালের বহির্বিভাগ (ওপিডি), মেডিকেল শপ ও পাবলিক ডিস্ট্রিবিউশন শপগুলোর কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। আদালত রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন, জনগণ যেন স্বাস্থ্যসেবা পেতে পারে সে জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হবে।
কেন্দ্রের পক্ষ থেকে বিচারকদের বলা হয়েছে, কাশ্মীরভিত্তিক সব সংবাদপত্র চলছে এবং সরকার সেখানে সব ধরনের সহায়তা দিচ্ছে।
ফারুক আব্দুল¬াকে আটক : ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্ল¬াকে জন নিরাপত্তা আইনে আটক করা হয়েছে। ফারুক আব্দুল্ল¬াকে “বেআইনিভাবে আটক” করার বিরুদ্ধে মামলার আবেদন করেছেন সুপ্রিম কোর্ট। ঠিক তার একদিন পরেই সোমবার জন নিরাপত্তা আইনে আটক করা হলো তাকে। এই আইন অনুযায়ী, কোনো বিচার ছাড়াই কাউকে দুই বছর পর্যন্ত আটক করে রাখা যায়। এই প্রবীণ নেতার বিরুদ্ধে ‘সরকারি নির্দেশ বিঘিœত' করার অভিযোগ আনা হয়েছে। এই অভিযোগে, তাকে তিনমাস আটক রাখা হবে। খবর এনডিটিভির।
গত ৫ আগস্ট ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলকে কেন্দ্র করে এখন পর্যন্ত শ্রীনগরে বেসরকারিভাবে গৃহবন্দীই ছিলেন ফারুক আব্দুল্ল¬া। এছাড়া জম্মু-কাশ্মীরের আরেক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আব্দুল্ল¬া ও মেহবুবা মুফতিকেও গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ









‘ভারতের অর্থনীতি সংকটে’

‘ভারতের অর্থনীতি সংকটে’

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০





ব্রেকিং নিউজ

প্রখ্যাত সুফিসাধক খানজাহান (রহঃ)

প্রখ্যাত সুফিসাধক খানজাহান (রহঃ)

২৩ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:৪১