খুলনা | শনিবার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

আশুরার তাৎপর্য ও শিক্ষা

মুহাম্মদ মাহফুজুর রহমান আশরাফী | প্রকাশিত ০৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০১:০৫:০০

মুহররম হিজরী সনের প্রথম মাস। বছরের বার মাসের মধ্যে চারটি মাসকে আশহুরে হুরুম বা হারাম মাস তথা সম্মানিত মাস বলা হয়েছে। উক্ত চার মাস হচ্ছে মুহররম, রজব, যিলকদ ও যিলহজ্জ। তার ভিতর মুহররম একটি পবিত্র ও তাৎপর্য মন্ডিত মাস। ধর্মীয়, সামাজিক, রাজনৈতিক এবং তাহযীব ও তামদ্দুনিক ঐতিহ্যগত কারণে মুহররম মাসটি অতীব গুরুত্বপূর্ণ। মুহররম মাসের সম্মানে আরবের লোকেরা অন্যায়, যুদ্ধ-বিদ্রহ ও রক্তপাত থেকে বিরত থাকত বিধায় এ মাসের নামকরণ করা হয়েছে মুহররম।
এ মাসের দশম বিদস কে আশুরা বলা হয়। কারবালার স্মৃতি ও হৃদয় বিদারক ঘটনা এ মাসকে আরও গুরুত্ববহ ও স্মরণীয় করে তুলেছে।
আশুরার রোযার হুকুম :--
রাসুল্লাহ (সা) প্রথমে ১০ মুহররমে সিয়াম পালন করেছেন। কিন্তু ইয়াহুদী ও খৃস্টানরা ১০ মুহররম কে সম্মান করতো এবং এ দিন তারা সিয়াম পালন করতো। তা জেনে রাসুল্লাহ (সাঃ) তাদের নিয়মের খিলাফ করার জন্য ১০ই মুহররমের সাথে তার পূর্বের অথবা পরের দিন যোগ করে সিয়াম পালনের নির্দেশ দিয়েছেন। অতএব, সুন্নাত হলো, ৯ ও ১০ইং মুহররম অথবা ১০ ও ১১ই মুহররম সিয়াম বা রোযা পালন করা। এ সম্পর্কে হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা) হতে বর্ণিত হয়েছে, তিনি বলেন, রাসূল্লাহ (সাঃ) যখন আশুরার সিয়াম পালন করলেন এবং সকলকে সিয়াম পালনের নির্দেশ দিলেন, তখন সাহাবায়ে কিরাম (রাঃ) রাসূল্লাহ (সাঃ) কে বললেন ইয়া রাসূল্লাহ! ইয়াহুদী ও খৃস্টানরা এই দিনটিকে (১০ই মুহররম) পালন করে। তখন রাসূল্লাহ (সাঃ) বললেন, আগামী বছর বেঁচে থাকলে ইনশা-আল্লাহ্ আমরা ৯ইং মুহররমসহ সিয়াম রাখবো।” রাবী বলেন, কিন্তু পরের বছর মুহররম আসার আগেই তাঁর ওফাত হয়ে যায় (সহীহ্ মুসলিম। হাদিস নং ১১৩৪)।
আশুরার রোযা রাখার উদ্দেশ্যঃ--
১০ই মুহররম তারিখে অত্যাচারী পাপিষ্ট ফিরাউনও তার কাওম আল্লাহর প্রিয় নবী হযরত মুসা (আঃ) কে হত্যা করার ঘৃর্ণিত ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হলে, আল্লাহ তাআলা ফির’আউন কে তার দলবলসহ সাগরে ডুবিয়ে দেন এবং মুসা (আঃ) কে ও তাঁর কাওম বনী ইসরাইলকে অত্যাচারী ফিরাউনের হাত থেকে মুক্তি দান করেন। এ নিয়ামতের শুকরিয়া হিসেবে মুসা (আঃ) এদিন নফল রোযা রাখেন। তখন তার অনুসারীগণও এদিন রোযা রাখেন। সে জন্য হযরত মুসা (আঃ) এর তাওহীদী আর্দশের একনিষ্ট অনুসারী হিসেবে স্বয়ং রাসুল্লাহ (সাঃ) এ দিন নফল রোযা পালন করেছেন। এবং তাঁর উম্মাতকে পালন করতে বলেছেন। যুগে যুগে পবিত্র আশুরা দিবসে এতদ্ব্যতীত বহুবিধ গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা সংঘটিত হয়েছে মর্মে হাদীস শরীফে বর্ণিত আছে যে, যা নিম্নে উল্লেখ করা হলো :
(১) এ দিনে মহান আল্লাহ্ আসমান যমীন ও লাওহে কলম সৃষ্টি করেছেন।
(২) হযরত আদম (আঃ) কে এই দিনে সৃষ্টি করা হয়েছে। এবং এ দিনে তার তাওবা আল্লাহ কবুর করেন।
(৩) এ দিনেই হযরত নুহ (আঃ) এর কিশতি ঝড়-তুফান থেকে রক্ষা পায় এবং কিশতি জুদী পাহাড়ে পৌছায়।
(৪) এদিনে হযরত আইয়ুব (আঃ) কঠিন রোগ থেকে আরোগ্য লাভ করেন।
(৫) হযরত ইউনুস (আঃ) এ দিনে মাছের পেটে ৪০ দিন থাকার পর মুক্তি পান।
(৬) হযরত ইব্রাহিম (আঃ) আল্লাহদ্রোহী জালেম বাদশা নমরুদের অগ্নিকুন্ড থেকে মুক্তি পান। 
(৭) এ দিনে হযরত ইয়াকুব (আঃ) হারানো দৃষ্টি শক্তি ফিরে পান।
(৮) এ দিনে হযরত ঈসা (আঃ) কে আল্লাহর ইচ্ছায় ঊর্ধ্বকাশে উত্তোলন করেন।
(৯) এ দিনে হযরত সুলাইমান (আঃ) মুহররম মাসের ১০ তারিখে তার রাজত্ব ফিরে পান।
(১০) এ দিনে হযরত দাউদ (আঃ)-এর তাওবা কবুল হয়।
(১১) এ দিনেই কিয়ামত সংঘটিত হবে, প্রভূতি বিভিন্ন ঘটনার কথা উল্লেখ আছে। কিন্তু নির্ভরযোগ্য সূত্রে এসব ঘটনা এদিনে সংঘটিত হওয়ার ব্যপারে মতানৈক্য আছে।
তবে হযরত মুসা (আঃ) ও তার কাওম এদিনে ফিরাউনের কবল থেকে মুক্তি পেয়ে ছিলেন এবং ফিরাউন ও তার লোক লস্কর এদিনে দরিয়ায় ডুবে মরেছিলো এ বিষয়টি পূর্বে উল্লিখিত সহীহ হাদীস দ্বারা প্রমাণিত হয়েছে। এটি সঠিক। আর এ জন্যই তো শুকরিয়া আদায়ে এদিন রোযা রাখার বিষয়টি এসেছে।
উল্লেখ থাকে যে, মাহে মুহররমে আশুরার দিনে বিশ্ব ইতিহাসে এক কালো অধ্যায়ের সূচনা হয়েছিল, হযরত হুসাইন (রাঃ) স্বীয় লোকজনসহ জালিম ইয়াজীদ ও তার লোকদের দ্বারা অবরুদ্ধ হয়ে লড়াই করে। ফোরাত নদী তীরে কারবালার ময়দানে ৭২ জনসহ শাহাদাৎ বরণ করেন। সে জন্য মাহে মুহররমে হযরত হুসাইন (রাঃ) এর এ ত্যাগের কথা স্মরণ করে দীনের হিফাজতের জন্য জান মাল কুরবানী করার প্রত্যয় গ্রহণ করা মুসলিম উম্মাহর কর্তব্য। কিন্তু আমাদের সমাজে দেখা যায়, কিছু লোক এ ব্যাপারে বাড়া-বাড়ি করে অতিরঞ্জিত ও গহিত কার্যকলাপ দ্বারা বিদাত ও নাজায়িয বিষয়ের অবতারনা করে থাকেন।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ

গীবত বা পরনিন্দা ঘৃণ্যতম অপরাধ

গীবত বা পরনিন্দা ঘৃণ্যতম অপরাধ

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৩৮


মশা প্রসংগে মহাগ্রন্থ আল কুরআন

মশা প্রসংগে মহাগ্রন্থ আল কুরআন

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০

পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর

পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর

০১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৩১

আল্ কুরআন ও আধুনিক বিজ্ঞান

আল্ কুরআন ও আধুনিক বিজ্ঞান

৩০ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:০০




পবিত্র হজ্ব আজ

পবিত্র হজ্ব আজ

১০ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:৫১


মিনায় হজযাত্রীরা

মিনায় হজযাত্রীরা

০৯ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:৫৪



ব্রেকিং নিউজ











‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের আরো অবনতি’

‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের আরো অবনতি’

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৪৩