খুলনা | শনিবার | ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

তিস্তার পানি বণ্টনে অবস্থানের পরিবর্তন হবে না ভারতের : জয়শঙ্কর

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ২১ অগাস্ট, ২০১৯ ০১:১৮:০০


বাংলাদেশ সফররত ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর বলেছেন, তিস্তা নদীর পানি বণ্টন চুক্তি নিয়ে ভারত আগের অবস্থানেই আছে। ভারত সেই অবস্থানে এখনো প্রতিশ্র“তিবদ্ধ। এ অবস্থানের কোনো পরিবর্তন হয়নি। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।
রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে জয়শঙ্কর বলেন, রোহিঙ্গাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারের রাখাইনে নিরাপদে, দ্রুত এবং টেকসই প্রত্যাবাসনের ব্যাপারে আমরা উভয় দেশ একমত। ভারত এ বিষয়ে বাংলাদেশকে সার্বিক সহায়তা দেবে। আসামের নাগরিকপঞ্জি নিয়ে বাংলাদেশে উদ্বেগের মধ্যেই বিষয়টিকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে বর্ণনা করেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।তবে জম্মু ও কাশ্মীরের সাংবিধানিক অধিকার খর্ব করার পর থেকে চলমান উত্তেজনা নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে চাননি ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।
তিন মাস আগে নরেন্দ্র মোদীর নতুন সরকারে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পাওয়ার পর প্রথমবার বাংলাদেশ সফরে আসা জয়শঙ্কর মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠক করেন। পরে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তারা। মোমেন বলেন, তাদের মধ্যে খুবই ভালো আলোচনা হয়েছে। বেশ কিছু বিষয়ে তারা কম- বেশি ঐকমত্যে পৌঁছেছেন। তবে কোন কোন বিষয়ে এই ঐকমত্য হয়েছে-তা তিনি বলেননি। বাংলাদেশ ও ভারতের কর্মকর্তাদের ভাষায়, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দুই দেশের সম্পর্ক রয়েছে ইতিহাসের সবচেয়ে ভালো অবস্থায়। এই বন্ধুত্বকে আরও এগিয়ে নেওয়ার কথা নিয়মিতই বলা হচ্ছে দুই সরকারের তরফ থেকে।
গত এক দশকে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে শতাধিক চুক্তি হয়েছে, যার মধ্যে ৮৬টি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে কেবল গত তিন বছরের মধ্যে। সমুদ্রসীমা ও ছিটমহল নিয়ে বহুদিনের ঝুলে থাকা সমস্যাও এই সময়ে মিটিয়ে ফেলেছে বাংলাদেশ ও ভারত সরকার। কিন্তু তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা নিশ্চিত করতে প্রতিশ্র“ত চুক্তিটি এখনও আটকে আছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের বিরোধিতার কারণে। দুই দেশের বিভিন্ন বৈঠকে নিয়মিতভাবে এ বিষয়টি আসছে, কিন্তু তিস্তার জট খুলছে না। তাছাড়া সীমান্ত লাগোয়া ভারতীয় রাজ্য আসামের নাগরিকপঞ্জি (ন্যাশনাল রেজিস্টার অব সিটিজেন্স-এনআরসি) নিয়েও বাংলাদেশে উদ্বেগ রয়েছে।
যেভাবে ওই তালিকা করা হচ্ছে তাতে আসামের ৪০ লাখের বেশি বাসিন্দা নাগরিকত্ব থেকে বঞ্চিত হতে পারে এবং তাদের অবৈধ বাংলাদেশি হিসেবে চিহ্নিত করে ভারত থেকে বের করে দেওয়া হতে পারে বলে আলোচনা রয়েছে দেশটির গণমাধ্যমেই। কিন্তু সাংবাদিকদের ব্রিফ করতে এসে এ বিষয়ে বিস্তারিত কোনো আলোচনায় যাননি জয়শঙ্কর।
তিনি সরাসরিই বলেন, এটা একান্তই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তিস্তার পানিবণ্টন নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের জন্য পনি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।অভিন্ন ৫৪টি নদীর পানিবণ্টনের বিষয়ে একটি ফর্মুলা আমরা বের করতে চাচ্ছি যাতে দুই দেশই লাভবান হতে পারে। জয়শঙ্কর বলেন, এ বিষয়ে আমাদের মনোভাব আপনারা জানেন। এ বিষয়ে আমাদের একটা প্রতিশ্র“তি আছে, আর সেটা এখনও বদলায়নি। এ সময় বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ককে দক্ষিণ এশিয়ার রোল মডেল হিসেবে আখ্যায়িত করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। আসামের ন্যাশনাল রেজিস্ট্রার অব সিটিজেন (এনআরসি)-এর বিষয়ে জানতে চাইলে জয়শঙ্কর বলেন, এটি সম্পূর্ণই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এর আগে বেলা ১১টা ১০ মিনিটে দুই দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক শুরু হয়। বৈঠক শুরুর আগে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে যান এবং সেখানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। বিকেল ৫টার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে সাক্ষাৎ করবেন এস জয়শঙ্কর। সন্ধ্যায় তাঁর সম্মানে নৈশভোজের আয়োজন করবেন ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলী দাশ।সোমবার রাতে বাংলাদেশ সফরে আসা জয়শঙ্কর সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের মধ্যে ভালো ও দৃঢ় সম্পর্ক রয়েছে। আমাদের সম্পর্ককে আরো উচ্চ পর্যায়ে নেওয়ার জন্য বাংলাদেশ ও ভারতের অনেক বিষয়ই আলোচনা করার মতো রয়েছে। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার ক্রমবর্ধমান সম্পর্ককে এগিয়ে নিতে বিভিন্ন দ্বিপক্ষীয় বিষয়ে আলোচনার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী অক্টোবরে ভারত সফর করবেন। তিনি ৩ ও ৪ অক্টোবর নয়াদিল্লিতে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের ইন্ডিয়া ইকোনমিক সামিটে যোগ দেবেন বলে এক কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ



‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের আরো অবনতি’

‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের আরো অবনতি’

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৪৩


জি কে শামীমের অর্থের উৎস অবৈধ

জি কে শামীমের অর্থের উৎস অবৈধ

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৪৩



সেই জি কে শামীমকে  ১৩টি সম্মাননা-পদক

সেই জি কে শামীমকে  ১৩টি সম্মাননা-পদক

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৪০






ব্রেকিং নিউজ











‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের আরো অবনতি’

‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের আরো অবনতি’

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৪৩