খুলনা | বৃহস্পতিবার | ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৪ আশ্বিন ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

গাড়ি চাপায় দুই বাংলাদেশি নিহত

ব্যবসায়ী পুত্রের ১২ দিনের রিমান্ড কলকাতা থেকে লাশ হস্তান্তর

খবর ডেস্ক     | প্রকাশিত ১৯ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:২৪:০০

বাংলাদেশের দুই জন নাগরিক গাড়ির ধাক্কায় নিহত হওয়ার ঘটনায় ধৃত কলকাতার নামি রেস্তোরাঁর মালিকের ছেলে আরসালান পারভেজকে ১২ দিনের পুলিশ রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল রবিবার দুপুরে কঠোর নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে কলকাতার একটি কোর্টের তোলা হয় আরসালানকে। তার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্যধারায় মামলা করে কলকাতা পুলিশ।
পুলিশ সূত্রের খবর, আরসালান পারভেজ ওইদিন রাতে শেক্সপিয়ার সরণি দুর্ঘটনার আগে আরো দুই জায়গায় সিগনাল ভেঙেছিলেন। শুধু তাই নয়, তার গাড়ির গতি বেগও কলকাতার চলা সর্বোচ্চ গতিবেগের আইন ভেঙেছিল। তার গাড়ির গতি ছিল ঘণ্টায় নব্বই কিলোমিটার। যেখানে ওই রাস্তায় সর্বোচ্চ ৬০ কিলোমিটার গতি বেগ বেধে দেওয়া রয়েছে।
গত শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত ১টা ৫০ মিনিট নাগাদ শেক্সপিয়ার সরণির একটি ক্রসিংয়ের দ্রুতগামী জাগুয়ার গাড়িটি বা দিক থেকে আসা একটি মার্সিডিজ বেঞ্জ গাড়িকে ধাক্কা মারে। মার্সিডিজ গাড়িটিতে এত জোরে ধাক্কা মারা হয় সেটি ছিটকে গিয়ে রাস্তার ওপর ট্রাফিক গার্ড কিয়স্ককে আঘাত করে এবং সেটি ভেঙে পড়ে। কিয়স্কের পেছনে বৃষ্টির কারণে দাঁড়িয়ে ছিলেন কাজি মাইনুল আলাম এবং ফারহানা ইসলাম তানিয়াসহ আরো একজন বাংলাদেশি নাগরিক। মাইনুল ও তানিয়া ঘটনাস্থলেই মারা যান। আহত হন বাকি একজন। এদিকে রবিবার সকালে নিহত মাইনুল ও তানিয়ার মরদেহ বাংলাদেশে তার স্বজনদের কাছে তুলে দেওয়া হয়।
আমাদের যশোর ও বেনাপোল প্রতিনিধি জানান ভারতের কলকাতায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই বাংলাদেশির লাশ বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে বিএসএফ সদস্যরা। গতকাল রবিবার সকাল সাড়ে ৮টায় দুই দেশের কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে লাশ দু’টি হস্তান্তর করা হয়।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ






ভারতে সুপার ইমার্জেন্সি  চলছে : মমতা

ভারতে সুপার ইমার্জেন্সি  চলছে : মমতা

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:২২








ব্রেকিং নিউজ