খুলনা | বুধবার | ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

ঈদের পর নতুন ডেঙ্গু রোগী  বেড়েছে : চার দিনে মৃত্যু ৮

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৫ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:৩৯:০০

দেশের হাসপাতালগুলোতে ভর্তি হওয়া নতুন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ঈদের দিন কমলেও তার পরদিনই আবার বেড়েছে। ২৪ ঘন্টায় দেশের হাসপাতালগুলোতে ১৮৮০ জন ডেঙ্গু নিয়ে ভর্তি হয়েছেন। অপরদিকে ঈদের তিনদিনের ছুটিসহ চারদিনে ডেঙ্গুতে প্রাণ গেল আরও আটজনের। সরকারি হিসেবে সারাদেশে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কমলেও থেমে নেই মৃত্যুর মিছিল। ঈদের পরদিনও এই তালিকায় নাম উঠেছে প্রকৌশলীসহ চারজনের। সরকার চলতি বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ৪০ জনের মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করা হলেও ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতাল ও জেলার চিকিৎসকদের কাছ থেকে অন্তত ১২২ জনের তথ্য পেয়েছে ।
রাজধানী ও বাইরের হাসপাতালগুলোতে প্রতিনিয়ত ভর্তি হচ্ছেন নতুন আক্রান্তরা। তবে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমার দাবি করে সচেতনতার ওপর জোর দিলেন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী।
ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মঙ্গলবার রাজধানীতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। বিএসএমএমইউ-তে বাপেক্সের প্রকৌশলী মাহবুব উল্লাহ হক, ঢাকা মেডিকেলে বিল্লাল হোসেন এবং সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে মারা গেছে সামিয়া নামে এক শিশু। এদিকে সোমবার ঈদের দিন খুলনা মেডিকেলে রাসেল নামে একজনের মৃত্যু হয়। সবশেষ ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গত মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তানজিদ মোল্লা (৯) নামের এক শিশু মারা গেছে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমারজেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত দেশের হাসপাতালগুলোতে ১৮৮০ জন ডেঙ্গু নিয়ে ভর্তি হয়েছেন, যা আগের ২৪ ঘণ্টায় ছিল ১২০০। এর ভিত্তিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছিলেন, সাধারণ মানুষ ডেঙ্গু নিয়ে ‘সচেতন হয়ে ওঠায়’ নতুন রোগীর সংখ্যা দ্রুত কমছে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকার হাসপাতালগুলোতে ৭৫৫ জন এবং ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলার হাসপাতালে ১১২৫ জন নতুন রোগী ডেঙ্গু নিয়ে ভর্তি হয়েছেন। আগের দিন এই সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ৫৯৯ ও ৬০১ জন। সব মিলিয়ে এ বছর ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৬ হাজার ৩৫১ জন; যাদের মধ্যে ৭ হাজার ৮৬৯ জন এখনও দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রতিবেদনে বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা বিভাগে ১৬৫ জন, ঢাকায় ৭৫৫ জন, ঢাকা বিভাগের অন্যান্য জেলায় ২৭৩ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১৯৪ জন, রংপুরে ১১৪ জন, রাজশাহীতে ১৩২ জন, বরিশাল বিভাগে ১৫৬ জন, সিলেট বিভাগে ২১, ময়মনসিংহ বিভাগে ৭০ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন হাসপাতালে। এই সময়ে সারাদেশে ১ হাজার ৫৫৮ জন ডেঙ্গু রোগী সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন। আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৬৫৯ জন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আয়শা আক্তার বলেন, “সেপ্টেম্বর মাসও বৃষ্টির মৌসুম। আগামী সাত থেকে দশ দিন আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রাখব। ঈদের ছুটিতে অনেকে হাসপাতালে ভর্তি না হলেও পরে আবার তা বাড়তে পারে। তবে আপাতত আমরা বলছি, ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা কমছে।”
পাবনায় এক শিক্ষার্থী, সাভারের হেমায়েতপুরে শিশু ও মাদারীপুরে বৃদ্ধের প্রাণ গেল। 
গতকাল বুধবার ভোররাত দেড়টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় পাবনার মাহফুজ । আর মাত্র দুই মাস বয়সের সাভারের হেমায়েতপুরের শিশু শিহাব হোসেন সাফির ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন চিকিৎসক। বুধবার সকালে মাদরীপুরের শিবচর উপজেলার উত্তর বহেরাতলা ইউনিয়নের সোতারপাড় এলাকার নিজ বাড়িতে আবদুল মজিদ (৮২) নামের বৃদ্ধা মারা যান।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ







উৎসব মুখর পরিবেশে আ’লীগের সম্মেলন

উৎসব মুখর পরিবেশে আ’লীগের সম্মেলন

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:২৮




কুষ্টিয়া মুক্ত দিবস আজ

কুষ্টিয়া মুক্ত দিবস আজ

১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:২২