খুলনা | বৃহস্পতিবার | ২২ অগাস্ট ২০১৯ | ৭ ভাদ্র ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

কারাগার ৩শ’ রাজনীতিক আটক, ভারতের ওপর চাপ বাড়ছে : হতাহত ৭

কাশ্মীরিরা নিজ বাড়িতে বন্দী পুরো উপত্যকা

খবর ডেস্ক | প্রকাশিত ০৯ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:৩৮:০০

মোদি সরকার ৩৭০ ধারা বাতিলের পর ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে হাজার হাজার মানুষ এখন বন্দী তাদের নিজ বাড়িতে। তাদের চলাচল নিয়ন্ত্রিত ও কারফিউ পরিস্থিতি বিরাজ করছে সেখানে। রশিদ আলী নামের শ্রীনগরের এক ওষুধের দোকানদার বলেন, পুরো উপত্যকা এখন একটি কারাগারের মতো। বাধা নিষেধ উঠে গেলেই মানুষ রাস্তায় নামবে। গোটা জম্মু-কাশ্মীরে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ রাখা হয়েছে৷ মোবাইল পরিষেবা, ইন্টারনেট নেই৷
অন্যদিকে থমথমে কাশ্মীরে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে এক বিক্ষোভকারীর মৃত্যু হয়েছে৷ জম্মু-কাশ্মীর জুড়ে রাজনৈতিক নেতা-সহ ৩শ’ জনের বেশি মানুষকে গ্রেফতারও করা হয়েছে৷ তবে অল ইন্ডিয়া রেডিও জানিয়েছে, সহিংসতার অভিযোগে সেখানে এ পর্যন্ত অন্তত পাঁচশ’ জনকে আটক করা হয়েছে। সংঘর্ষে একজনের মৃত্যুর খবর পুলিশ নিশ্চিত করেছে৷ সংবাদ সংস্থা এএফপি’র জানিয়েছে, কাশ্মীরে কমপক্ষে ৬ জন হাসপাতালে ভর্তি৷ তাঁদের শরীরে গুলির ক্ষত পাওয়া গিয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শ্রীনগরের এক পুলিশ অফিসারের দাবি, ‘একজন বিক্ষোভকারী যুবক মারা গিয়েছে৷ সে ঝিলম নদীতে ঝাঁপ দেয় এবং মারা যায়৷’
বিবিসি বাংলার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কাশ্মীরে এখন হাজার হাজার অতিরিক্ত সেনা অবস্থান করছে। মার্কেট ও স্কুল কলেজ বন্ধ এবং চারজনের বেশি লোকের কোথাও সমবেত হওয়া নিষিদ্ধ, এমনকি স্থানীয় নেতাদেরও আটক করা হয়েছে।
মূলত স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নেয়ার প্রতিবাদে বড় ধরনের প্রতিবাদ হতে পারে আশঙ্কা থেকেই এমন সব ব্যবস্থা নিয়েছে ভারত সরকার। পুরো অঞ্চল থেকেই প্রথম যে কণ্ঠ আসছে এবং বাকিরাও তাতে একমত, আর তা হলো: বিশ্বাসঘাতকতা ও অবিশ্বাস।
অসিম আব্বাস নামে স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, আমাদের স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নেয়ার পরিণতি হবে বিপজ্জনক। এটা আমাদের পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি দখলদারিত্বকেই মনে করিয়ে দেয়।
কাশ্মীরের অনেকেই বিশ্বাস করেন হিন্দু জাতীয়তাবাদী বিজেপি কাশ্মীরের বাইরের মানুষদের সেখানে জমি কেনার অধিকার দিয়ে সেখানকার মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ জনসংখ্যার বৈশিষ্ট্যকেই পাল্টে দিতে চায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরেকজন বলেন, কাশ্মীর তার স্বাধীনতা হারিয়েছে ও ভারতের দাসত্বে চলে গেছ বলেই মনে হচ্ছে। বারামুলার অধিবাসী আব্দুল খালিক নজর বলেন, এটা তারা ১৫ আগস্টের পরই করতে পারতো। সামনে আমাদের ঈদ। কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে রাস্তাঘাট এখনো আটকে রাখা হয়েছে। চেকপয়েন্টগুলোতে পুলিশ ও সশস্ত্র আধা সামরিক বাহিনীর সদস্যরা। চলাচল খুবই সীমিত।
পুলিশের একজন কর্মকর্তা অবশ্য কয়েকদিনের মধ্যে বিধিনিষেধ কমিয়ে আনার ইঙ্গিত দিয়ে বলেছেন, টেলিফোন ও ইন্টারনেট সেবাও চালু হবে। যোগাযোগ বিচ্ছিন্নতার মধ্যে পুলিশ সদস্যদের স্যাটেলাইট ফোন দেয়া হয়েছে। কাশ্মীরের বাইরে থাকা কাশ্মীরিরা তাদের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করতে পারছে না।
চেন্নাইতে থাকা একজন শিক্ষার্থী বলেন, গত ২৫ বছরে তিনি কখনো ল্যান্ডফোন বন্ধ করতে দেখেননি। আমি জানি না আমার পরিবার কেমন আছে। পর্যটক ও কাজ করতে আসা শ্রমিকরা সেখান থেকে বের হওয়ার জন্য রীতিমত সংগ্রাম করছেন। টিকেট বুকিংয়ের জন্য ইন্টারনেট নেই। কেউ কেউ বিমানবন্দর ও বাস স্টেশনে পৌঁছতে পারলেও লোকজন পাননি। কেউই জানেনা কখন ও কিভাবে এ পরিস্থিতির অবসান হবে। কেউ কেউ উল্লাস করছে জম্মু ও কাশ্মীরকে এক করায়। আবার কেউ প্রশ্ন করছে, এতোই যদি আনন্দের ঘটনা হয় তাহলে সব বিচ্ছিন্ন কেন এবং মৌলিক অধিকারই বা ক্ষতুœ করা হচ্ছে কেনো?
আটক : কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর ওই এলাকায় বিক্ষোভ ঠেকাতে গত কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় অভিযানে কর্তৃপক্ষ অন্তত ৩শ’ রাজনীতিক ও বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাকে আটক করেছে। পুলিশের কর্মকর্তা, বিভিন্ন দলের নেতা ও স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো এ তথ্য নিশ্চিত করেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
কাশ্মীর নিয়ে ভারতের পদক্ষেপে প্রতিবেশী পাকিস্তান কড়া প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে। তারা এরই মধ্যে ইসলামাবাদের ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার ও নয়াদিল্লির সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্ক বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে।
সোমবার ভারতের পার্লামেন্টে ৩৭০ অনুচ্ছেদে কাশ্মীরকে দেওয়া বিশেষ মর্যাদার সিদ্ধান্ত বাতিলের পর থেকে শ্রীনগরের বিভিন্ন সড়কে আধাসামরিক পুলিশের হাজার হাজার সৈন্য মোতায়েন আছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স। স্কুলসহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। বিভিন্ন এলাকার সড়কে আছে ব্যারিকেড। এর মধ্যেও বিচ্ছিন্ন কিছু প্রতিবাদ বিক্ষোভের খবর মিলছে বলে জানিয়েছেন দুই পুলিশ কর্মকর্তা। পরিস্থিতির সংবেদনশীলতা বিবেচনায় নাম-পরিচয় প্রকাশ করতে চাননি তারা।
কর্মকর্তাদের একজন বলেছেন, শ্রীনগরের অন্তত ৩০টি স্থানে সৈন্যদের ওপর পাথর ছোড়ার ঘটনা ঘটেছে। বিক্ষোভ দমাতে পুলিশের প্রতিক্রিয়ায় আহত অন্তত ১৩ জনকে শহরটির প্রধান সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। “মানুষের মধ্যে ভয়াবহ ক্ষোভ বিরাজ করছে,” বলেছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা।
কাশ্মীরের প্রভাবশালী দল ন্যাশনাল কনফারেন্সের দুই নেতা সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও আইন প্রণেতাসহ অন্তত ১শ’ নেতাকে আটক করা হয়েছে জানালেও তবে সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া মেইলের হিসাবে আটক ও গৃহবন্দি রাজনীতিকের সংখ্যা ৪শ’ ছাড়িয়ে গেছে। 
অহিংস বিচ্ছিন্নতাবাদী দলগুলোর সম্মিলিত জোট হুররিয়াত কনফারেন্সের চেয়ারম্যান মিরওয়াইজ ওমর ফারুককে মঙ্গলবার গ্রেফতার করা হলেও কয়েক ঘণ্টা পর নিজ বাড়িতে ফিরিয়ে এনে গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে বলে তার কার্যালয় জানিয়েছে।
কাশ্মীর নিয়ে নয়াদিল্লির এসব পদক্ষেপের পর ভারতের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ বাড়ছে বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার।
পাল্টা পদক্ষেপ নেওয়ার পাশাপাশি পাকিস্তান কাশ্মীরের সাংবিধানিক সুবিধা প্রত্যাহার করায় ভারতের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে সরব হওয়ার কথাও জানিয়েছে।
কাশ্মীরের পরিস্থিতিতে উদ্বেগ জানিয়েছে জাতিসংঘ। ইসলামিক দেশগুলোর জোট ওআইসিও ভারতের পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে।
কাশ্মীরকে দেওয়া বিশেষ সুবিধা বাতিলের বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্রকে অবগত করা হয়েছে বলে নয়া দিল্লি দাবি করলেও বুধবার মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর বলেছে, তাদেরকে এ সম্বন্ধে জানানো হয়নি।
লাদখকে আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে চীনও। বেইজিং দীর্ঘদিন ধরেই ভারতশাসিত কাশ্মীরের লাদাখ অংশের মালিকানা দাবি করে আসছে।
চীন তাদের বিবৃতিতে পাক-ভারত বিবাদে পক্ষ না নেওয়ার কথা জানালেও ‘চীনের স্বার্থে ঘা লাগলে তা সহ্য করা হবে না’ বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে, জানিয়েছে আনন্দবাজার।
ভারত অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মন্তব্য করে না। আমরা আশা করবো, অন্য দেশও আমাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মন্তব্য করবে না, পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় বলেছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।
রেল যোগাযোগও বন্ধ : কূটনীতি-বাণিজ্যের পর এবার ভারতের সঙ্গে রেল যোগাযোগও বন্ধ করলো পাকিস্তান। বৃহস্পতিবার থেকে দুই দেশের মধ্যে চলাচলকারী সমঝোতা এক্সপ্রেসের সব শিডিউল বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের রেলমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমাদ।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ










সংসদ বসছে  ৮ সেপ্টেম্বর

সংসদ বসছে  ৮ সেপ্টেম্বর

২২ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:৫৮