খুলনা | বুধবার | ২১ অগাস্ট ২০১৯ | ৬ ভাদ্র ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

খুলনায় গণধর্ষণ ও হত্যা মামলায় পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক  | প্রকাশিত ১৬ জুলাই, ২০১৯ ১৭:১৩:০০

খুলনায় এক্সিম ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা পারভীন সুলতানাকে গণধর্ষণের পর তাকে ও তার বাবা ইলিয়াছ আলীকে হত্যা মামলায় অভিযুক্ত পাঁচ আসামিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে খুলনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ৩নং ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মহিদুজ্জামান এ রায় দেন।
দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো- খুলনার লবণচরা থানাধীন বুড়ো মৌলভীর দরগা রোডের বাসিন্দা শেখ আব্দুল জলিলের ছেলে সাইফুল ইসলাম পিটিল (৩০), তার ভাই শরিফুল (২৭), আবুল কালামের ছেলে লিটন (২৮), অহিদুল ইসলামের ছেলে আবু সাঈদ (২৫) ও মৃত সেকেন্দারের ছেলে আজিজুর রহমান পলাশ (২৬)। এদের মধ্যে শরিফুল পলাতক রয়েছে।
হত্যাকাণ্ডের মামলায় ২২ জন এবং গণধর্ষণের মামলায় ২৮ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করেছে আদালত। আসামিদের মধ্যে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় দুইজনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে লোমহর্ষক এ হত্যাকাণ্ডের র্বর্ণনা রয়েছে। চলতি বছরের ২৪ এপ্রিল খুলনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ৩নং ট্রাইব্যুনালে মামলাটির যুক্তিতর্ক শুরু হয়।  
মামলার তদন্ত চলাকালে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত পাঁচজনের মধ্যে চারজন গ্রেপ্তার হয়। এছাড়া গ্রেপ্তার করা হয় সাইফুল ইসলামের স্ত্রী আসমা খাতুন, নোয়াব আলি গাজী ও আসলাম মিস্ত্রি নামের এক সন্দেহভাজনকে। তাদের মধ্যে লিটন ও সাঈদের স্বীকারোক্তিতে উঠে আসে লোমহর্ষক হত্যাকাণ্ডের ঘটনা।
এ দুজন তাদের জবানবন্দিতে বলে, ব্যাংক কর্মকর্তা পারভীন অফিসে আসা-যাওয়ার পথে তাকে কুপ্রস্তাব দেয়াসহ নানাভাবে যৌন হয়রানি করা হতো। এর প্রতিবাদ করায় ঘটনার দিন রাতে বাড়ির দেয়াল টপকে ভেতরে ঢোকে পাঁচ আসামি। এরপর অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পারভীনের বাবাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে। পাশের কক্ষে থাকা পারভীনকে গণধর্ষণের পর হত্যা করে বাবা-মেয়ের লাশ সেফটি ট্যাংকির ভেতরে ফেলে দেয়। পরে ঘরের জিনিসপত্র লুট করে পালিয়ে যায়।
এ ঘটনায় লবণচরা থানায় পারভীনের ভাই রেজাউল আলম চৌধুরী বিপ্লব বাদী হয়ে ১৯ সেপ্টেম্বর একটি হত্যা মামলা করেন। আর পারভীনকে গণধর্ষণ ও হত্যায় মামলা হয় ২২ সেপ্টেম্বর। ২০১৬ সালের ৯ মে হত্যাকাণ্ডের ও একই বছরের ২৪ মার্চ গণধর্ষণের মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা এস আই কাজী বাবুল ওই পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে খুলনার মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ