খুলনা | মঙ্গলবার | ২৩ জুলাই ২০১৯ | ৮ শ্রাবণ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

অনলাইন জন্ম নিবন্ধনে আগ্রহ নেই নগরবাসীর

এন আই রকি | প্রকাশিত ০৩ জুলাই, ২০১৯ ০০:৪৯:০০

জন্মের ৪৫ দিনের মধ্যে বিনা ফিসে সরকারি উদ্যোগে জন্ম নিবন্ধনের সুযোগ রয়েছে। তারপরও জন্ম নিবন্ধনে আগ্রহ নেই নগরবাসীর। অভিভাবকদের অবহেলার কারণেই মূলতঃ জন্ম নিবন্ধন করা হচ্ছে না। পাশাপাশি জন্ম নিবন্ধনে উৎসাহী করার জন্য পর্যাপ্ত প্রচারণা ও সচেতনতার অভাবও রয়েছে। যদিও ৪৫ দিন পর থেকে পাঁচ বছরের আগে এবং পরেও নির্দিষ্ট ধাপে জরিমানা দিয়েও জন্ম নিবন্ধনের সুযোগ রয়েছে। তবুও সেই তুলনায় অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনে সাড়া কম। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সূত্রে বর্তমানে ৩১টি ওয়ার্ডে প্রায় ১৫ লাখ মানুষ বসবাস করছে। এর মধ্যে জন্ম নিবন্ধন করেছেন ৮ লাখ ১৬ হাজার ৫৫৮ জন।
জানা যায়, ২০১৪ সাল থেকে নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনের কাজ শুরু হয়েছে। প্রত্যেক ওয়ার্ডে এই কাজের জন্য নিয়োজিত রয়েছেন জন্ম নিবন্ধন সহকারী এবং জন্ম নিবন্ধকের কাজ করবেন সংশ্লি¬ষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। 
এদিকে নগরীর জনসংখ্যার বড় একটি অংশ এখানকার স্থায়ী বাসিন্দা নয়। কাজের সন্ধানে তারা নগরীতে ভাড়া থাকেন। যার কারণে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনে কম হচ্ছে বলে দাবি সংশ্লিষ্টদের। 
তবে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, নবজাতক শিশুদের পিুা-মাতারাই সব থেকে বেশি অনাগ্রহ দেখাচ্ছে জন্ম নিবন্ধনে। কারণ শিশুর ভর্তির স্কুলের সময় বয়সের সাথে সামঞ্জস্যের একটি বিষয় রয়েছে। যার ফলে তারা বিলম্বে শিশুর জন্ম নিবন্ধন করছেন। নাম না প্রকাশের শর্তে একাধিক অভিভাবক এ বিষয়টি প্রতিবেদকের কাছে জানিয়েছেন।  
সংশ্লি¬ষ্ট কর্তৃপক্ষরা জানিয়েছেন, জন্ম নিবন্ধনের প্রয়োজনীয়তা অনেক। এগুলোর মধ্যে উল্লে¬খযোগ্য হলো, বয়স, নামকরণ, স্থায়ী ঠিকানা, পাসপোর্ট ইস্যু, বিবাহ, রেজিস্ট্রেশন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি, ভোটার তালিকা প্রণয়ন, জমি রেজিস্ট্রেশন, ট্রেড লাইসেন্স, টিআইএন সার্টিফিকেট ও ট্যাক্স প্রদানে, ব্যাংক হিসেব খুলতে, গ্যাস, পানি-বিদ্যুৎ টেলিফোন সংযোগ ইত্যাদি ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন প্রদর্শন সরকার আইনের দ্বারা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। যার ফলে আগের তুলনায় অনলাইনে জন্ম নিবন্ধনের পরিমাণ বাড়ছে। গত ২৫ জুন পর্যন্ত নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে পুরুষরা জন্ম নিবন্ধন করেছেন ৪ লাখ ২০ হাজার ৪৭৫ এবং নারীরা করেছেন ৩ লাখ ৯৬ হাজার ৮৩জন। সর্ব মিলিয়ে মোট অনলাইনে জন্মনিবন্ধন হয়েছে ৮ লাখ ১৬ হাজার ৫৫৮ জন। 
এ বিষয়ে স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক ইশরাত জাহান এ প্রতিবেদককে বলেন, জন্ম নিবন্ধনে উৎসাহের জন্য সব সময় কাজ করছে সরকার। জেলার প্রত্যেকটি ইউনিয়নেও এ কাজ চলছে। ফুলতলায় বিদেশী সহায়তায়ও জন্ম নিবন্ধনের কাজ হচ্ছে। তবে কিছু সামাজিক প্রেক্ষাপটে কিছু সমস্যা রয়েছে। সেগুলো সমাধান করা হচ্ছে। তিনি বলেন, জন্ম নিবন্ধনের জন্য সরকার বিনা ফিসসহ নামমাত্র মূল্যেও ব্যবস্থা করেছেন। আগের তুলনায় অনেকেই এখন অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন করছেন।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ