খুলনা | সোমবার | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৮ আশ্বিন ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

অর্থনৈতিক চাপে পড়বে ভোক্তারা, নেতিবাচক প্রভাব পড়ার শঙ্কা

বাড়ছে নির্মাণ সামগ্রীর দাম

আশরাফুল ইসলাম নূর | প্রকাশিত ২৬ জুন, ২০১৯ ০১:১০:০০

বাজেটে উৎপাদন থেকে বিক্রয়ের বিভিন্ন পর্যায়ে মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট এবং অগ্রিম আয়কর বাড়ানোর প্রস্তাবে বাড়ছে নির্মাণ সামগ্রীর দাম। এতে অর্থনৈতিক চাপে পড়বে ভোক্তারা। ব্যয় বাড়বে অবকাঠামোর। নির্মাণের মূল উপাদান রড ও সিমেন্টসহ সকল প্রকার সামগ্রীর মূল্যবৃদ্ধির ফলে শ¬থ হবে সরকারি, বেসরকারি ও ব্যক্তিপর্যায়ে অবকাঠামোগত উন্নয়ন। রড, সিমেন্ট ব্যবসায়ী, ঠিকাদার ও সাধারণ ভোক্তাদের সাথে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে। নির্মাণ খাতের পণ্য ও সেবার ওপরও নেতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে অভিমত অর্থনীতিবিদদের। আগামী ১ জুলাই থেকে ভ্যাট আইন বাস্তবায়িত হবে; তখন প্রতি টন রডে প্রায় ১২ হাজার টাকা ও বস্তাপ্রতি সিমেন্টের দাম বাড়বে অন্তত ৫০ টাকা।
সূত্রমতে, আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে রডের কাঁচামাল স্ক্র্যাপ বিক্রয়ে পাঁচ শতাংশ ভ্যাট আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে। বর্তমানে টনপ্রতি স্ক্র্যাপে ভ্যাট ৩০০ টাকা। আর স্ত্র্যাপ আমদানি পর্যায়ে ৫ শতাংশ হারে অগ্রিম কর আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া বাজেটে বিলেট বিক্রয়ে প্রতি টনে ৪৫০ টাকার পরিবর্তে ২ হাজার টাকা, উৎপাদন পর্যায়ে প্রতি টনে রডে ৪৫০ টাকার পরিবর্তে ২ হাজার টাকা এবং খুচরা পর্যায়ে রড বিক্রিতে প্রতি টনে ২০০ টাকার পরিবর্তে ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট আদায়ের প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া বাজেটে রডের কাঁচামাল স্ক্র্যাপ, বিলেট ও রড বিক্রিতে টনপ্রতি সর্বনিম্ন ৩ শতাংশ অগ্রিম আয়কর আরোপের প্রস্তাবের কথা বলা হয়। অবশ্য গত সোমবার এক প্রজ্ঞাপনে বিলেট বিক্রয়ে অগ্রিম আয়কর হ্রাস করে দশমিক ৫ শতাংশ করা হয়েছে। 
গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ স্টিল ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএসএমএ), বাংলাদেশ রি-রোলিং মিলস এ্যাসোসিয়েশন এবং বাংলাদেশ স্টিল মিল ওনার্স এ্যাসোসিয়েশন যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বলছে টনপ্রতি রডের দাম ১২ হাজার টাকা বেড়ে যেতে পারে। আগামী অর্থবছরের বাজেটে রডের ওপর যে হারে ভ্যাট বৃদ্ধি ও অগ্রিম আয়কর আরোপ করা হয়েছে, সেটাকে অবাস্তব হিসেবে উল্লে¬খ করেছে ইস্পাত খাতের ব্যবসায়ীদের তিন সংগঠন।
ভৌত অবকাঠামো নির্মাণে বিকল্প নেই সিমেন্টেরও। সিমেন্টের কাঁচামাল আমদানি পর্যায়ে ৫ শতাংশ হারে আগাম কর ও তিন শতাংশ হারে উৎসে আয়কর ধার্য করা হলে সিমেন্টের উৎপাদন খরচ বস্তাপ্রতি বেড়ে যাবে ৪২ টাকা। এতে সিমেন্টের বিক্রয়মূল্য বাড়লে বিঘিœত হবে ভৌত অবকাঠামো নির্মাণে অগ্রগতি।
রড ও সিমেন্টের ডিলার মেসার্স নাজমুল এন্ড সন্স ষ্টীলের স্বত্তাধিকারী নাজমুল আহম্মেদ স্বপন সময়ের খবরকে বলেন, কোম্পানি থেকে জানানো হয়েছে খুব শিগগরিই প্রতি টন রডে ১১ থেকে ১২ হাজার টাকা দাম বাড়বে। বস্তা প্রতি সিমেন্টেরও দাম বাড়তে পারে ৫০ টাকা। তাতে ভোক্তাদের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে চলে যাবে। 
টুটপাড়ার বাসিন্দা মাহবুব মোর্শেদ মামুন বললেন, “ব্যাংক ঋণ নিয়ে দু’বছর আগে বাড়ীর কাজ শুরু করেছিলাম, তখন রডের মূল্য ছিল ৫১ হাজার টাকা টন; কাজ শেষ করতে পারিনি, সে মুহূর্তে এখন রডের মূল্য প্রায় ৭৫ হাজার টাকা টন। বিক্রেতারা জানিয়েছে জুলাই মাসে দাম হবে প্রায় ৮৫ হাজার টাকা টনপ্রতি। এখন কাজ শেষ করতেও পারছি না; বন্ধ করতেও পারছি না। মাথায় ব্যাংক ঋণের বোঝা; পড়েছি উভয় সংকটে।”
যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সিডাবি¬উ রিসার্চের ‘বাংলাদেশ সিমেন্ট মার্কেট রিপোর্ট ২০১৭’-এর তথ্যমতে, বাংলাদেশে সরকারি অবকাঠামো উন্নয়নে সিমেন্টের ব্যবহার হচ্ছে ৩৫ শতাংশ, ব্যক্তি উদ্যোগে ৪০ শতাংশ এবং আবাসন খাতে ব্যবহার ২৫ শতাংশ।
খুলনার প্রথম শ্রেণীর ঠিকাদার মাসুদুর রহমান বিশ্বাস সময়ের খবরকে বলেন, বিদ্যুৎ, স্থানীয় সরকার, পানি উন্নয়ন বোর্ড, গণপূর্ত অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন সংস্থার অধীনে অবকাঠামো উন্নয়নের কাজ চলছে। রড, সিমেন্টসহ নির্মাণ সামগ্রীর দাম বাড়লে সরকারের অবকাঠামো খাতের প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়নে বাড়বে ব্যয়, আবাসনখাতের এর প্রভাব পড়বে। ব্যয় বাড়লে কাজের মানও নিম্নমুখী হবে। অবকাঠামো উন্নয়নের উড়ন্ত গতি ব্যাহত হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সদস্য ও ফুলতলা মহিলা কলেজের প্রভাষক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গ্রামের মানুষ পাকা-আধাপাকা ঘরবাড়ি নির্মাণ করায় অবকাঠামোগত বিস্তর উন্নয়ন হচ্ছিল গ্রামাঞ্চল। যা সরকারের একটি সফলতাও বটে। কিন্তু নির্মাণ সামগ্রীর দাম বাড়লে সেটি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। নির্মাণ সামগ্রীর দাম বাড়লে সরকারের অবকাঠামো নির্মাণ খরচও বৃদ্ধি পাবে। তাতে সরকারের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) বাস্তবায়ন কঠিন হয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী রড-সিমেন্টসহ নির্মাণ সামগ্রীর দাম সাধারণ মানুষের নাগালে রাখতে সুনজর দেবেন বলে প্রত্যাশা করেন তিনি।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ











কয়রায় সাবেক ইউপি মেম্বরকে কুপিয়ে জখম

কয়রায় সাবেক ইউপি মেম্বরকে কুপিয়ে জখম

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৪৬



ব্রেকিং নিউজ











কয়রায় সাবেক ইউপি মেম্বরকে কুপিয়ে জখম

কয়রায় সাবেক ইউপি মেম্বরকে কুপিয়ে জখম

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:৪৬