খুলনা | সোমবার | ১৯ অগাস্ট ২০১৯ | ৩ ভাদ্র ১৪২৬ |

শিরোনাম :
মোংলায় সাংগঠনিক তদন্তে এসে অভিযুক্তের সাথে ভ্রমণ ও ভুরিভোজ কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতারডেঙ্গু আক্রান্ত ৫৩ হাজার, চিকিৎসা শেষে ফিরেছে ৪৫ হাজারবেসরকারি বিশ্ববিদ্যায়ের শিক্ষার্থী শিঞ্জন একদিনের রিমান্ডে অবরুদ্ধ কাশ্মীরে বাড়ছে নিরাপত্তা বাহিনীর নির্যাতন, চলছে বাছবিচারহীন গ্রেফতারখুলনায় প্রাধিকারপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে গাড়ি ও ড্রাইভারের সুবিধা গ্রহণে অনিয়মের অভিযোগ!ফের নগরীর বেসরকারি বিশ্বদ্যিালয়ের বিবিএ’র ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগঈদযাত্রায় সড়কে গেছে ২২৪ প্রাণস্ত্রী পরিচয়ে কুয়াকাটাসহ নগরীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে ওই ছাত্রীকে রেখেছিলো ‘শিঞ্জন রায়’

Shomoyer Khobor

জেলা প্রাণিসম্পাদক অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীদের হুমকির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১৩ জুন, ২০১৯ ০০:৩৪:০০

জেলা প্রাণিসম্পাদক অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীদের হুমকির অভিযোগ

খুলনা জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে গতকাল বুধবার জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার মোঃ আব্দুল হান্নান সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। 
জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার জিডিতে উল্লেখ করেন জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের সীমানা প্রাচীর, দপ্তরের প্রধান ফটক, গার্ডরুম এবং গাড়ির গ্যারেজসহ অবকাঠামোগত উন্নয়ন কাজ চলছে। ইতোপূর্বে তার অফিসের প্রবেশ মুখের বাম পার্শ্বে নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের সদস্য পরিচয়দানকারী ‘খাজা’ নামের জনৈক ব্যক্তি অবৈধভাবে টিনসেডের আধাপাকা এক কক্ষ বিশিষ্ট একটি দোকান ঘর নির্মাণ করে ভাড়া প্রদান করেছেন। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭টা ১৫ মিনিটে মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের সদস্য পরিচয়দানকারী ‘খাজা’ নামের এক ব্যক্তি তার অফিস কাম্পাসের সম্মুখে উপস্থিত হয়ে নৈশপ্রহরী মোঃ মতিউর রহমান সাদ্দামসহ নির্মাণ কাজে নিয়োজিত রাজমিস্ত্রি-রাজমিস্ত্রির সহকারী ও দপ্তরের কর্মচারীদের অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং মারতে উদ্যত হয়। সে অফিসে তালা লাগিয়ে দেয়া হবে বলে হুমকি দেন। খাজা নামের ওই ব্যক্তি নিজেকে মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের লোক বলে দাবি করে কিভাবে অফিসের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করা হবে তা দেখে নেয়া হবে বলে হুমকি দেয়। একই সাথে নির্মাণ কাজ বন্ধ না হলে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে। এ কারণে দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা শঙ্কার মধ্যে রয়েছে। এ বিষয়ে গতকাল বুধবার জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার মোঃ আব্দুল হান্নান সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি নং-৫৫০) করা হয়েছে। 


 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ