খুলনা | সোমবার | ১৯ অগাস্ট ২০১৯ | ৪ ভাদ্র ১৪২৬ |

শিরোনাম :
মোংলায় সাংগঠনিক তদন্তে এসে অভিযুক্তের সাথে ভ্রমণ ও ভুরিভোজ কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতারডেঙ্গু আক্রান্ত ৫৩ হাজার, চিকিৎসা শেষে ফিরেছে ৪৫ হাজারবেসরকারি বিশ্ববিদ্যায়ের শিক্ষার্থী শিঞ্জন একদিনের রিমান্ডে অবরুদ্ধ কাশ্মীরে বাড়ছে নিরাপত্তা বাহিনীর নির্যাতন, চলছে বাছবিচারহীন গ্রেফতারখুলনায় প্রাধিকারপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে গাড়ি ও ড্রাইভারের সুবিধা গ্রহণে অনিয়মের অভিযোগ!ফের নগরীর বেসরকারি বিশ্বদ্যিালয়ের বিবিএ’র ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগঈদযাত্রায় সড়কে গেছে ২২৪ প্রাণস্ত্রী পরিচয়ে কুয়াকাটাসহ নগরীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে ওই ছাত্রীকে রেখেছিলো ‘শিঞ্জন রায়’

Shomoyer Khobor

রিজার্ভ ডে না রাখতে পারার ব্যাখ্যা আইসিসি’র

আইপিএলের কারণেই বৃষ্টির মাসে বিশ্বকাপ!

ক্রীড়া প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১৩ জুন, ২০১৯ ০০:১৮:০০

এবারের বিশ্বকাপে দলগুলোর জন্য বড় বিপত্তি হয়ে দাঁড়িয়েছে বৃষ্টি। টুর্নামেন্টের মাঝপথেই ম্যাচ পরিত্যক্তের রেকর্ড গড়েছে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপের তিন ম্যাচ বৃষ্টির কারণে হয়েছে পরিত্যক্ত। এমন বৃষ্টির মৌসুমে বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে আইসিসির উপর তাই ক্ষোভ ঝাড়ছেন অনেকেই। ইংল্যান্ডে জুন মাসে বৃষ্টি থাকে সবসময়ই। তারপরও কেনো এই মাসেই বিশ্বকাপ আয়োজন করলো আইসিসি? ভারতীয় এক সংবাদ মাধ্যমের দাবি, আইপিএলের কারণেই বিশ্বকাপ পিছিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে জুন মাসে। এদিকে নানা প্রশ্নে মুখে আইসিসি ব্যাখ্যা দিয়েছে কেন রিজার্ভ ডে রাখা হয়নি বিশ্বকাপে। 
বিশ্ব ক্রিকেটেই এখন বড় প্রভাব ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ আইপিএলের। আইপিএল মৌসুমে অঘোষিতভাবে বন্ধ থাকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। কিন্তু তাই বলে বিশ্বকাপের মতো গুরুত্বপূর্ণ আসরও পেছানো হবে ঘরোয়া লীগের জন্য?
ভারতীয় ঐ সংবাদ মাধ্যম অবশ্য তাদের বিশ্লেষণে এ নিয়ে বেশ শক্ত যুক্তিই উপস্থাপন করেছে। ২০১১ সালে বাংলাদেশ, ভারত ও শ্রীলঙ্কায় অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপ ১৯ ফেব্র“য়ারি শুরু হয়ে শেষ হয় ২ এপ্রিল। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে ২০১৫ সালের বিশ্বকাপও হয়েছিলো ফেব্র“য়ারি-মার্চ মাসে।
কিন্তু এবারের বিশ্বকাপ হচ্ছে জুন ও জুলাই মাসে। অথচ চাইলেই বিশ্বকাপকে দুই-এক মাস এগিয়ে নিয়ে আসা যেত। ইংল্যান্ডের ঘরোয়া মৌসুম শুরু হয় মার্চের শেষ কিংবা এপ্রিলের শুরুতে। মার্চ মাস হলো ইংল্যান্ডের শুকনো মৌসুম গুলোর একটি। চাইলে মার্চ-এপ্রিলের দিকে বিশ্বকাপটা আয়োজন করতে পারতো আইসিসি। কেন এবারের বিশ্বকাপটা এই সময়টায় আয়োজন করা হলো? ঐ সংবাদ মাধ্যমের দাবি, আইপিএলের জন্যই ওই সময়টায় আয়োজন না করে জুন-জুলাই মাসকে বেছে নিয়েছে আইসিসি।
এদিকে রিজার্ভ ডে নিয়ে যখন চারদিকে তুমুল আলোচনা, আইসিসিকে নিয়ে সমালোচনা-তখনই আইসিসির পক্ষ থেকে এর ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে। জানানো হয়েছে, কেন গ্র“প পর্বের ম্যাচগুলোয় কোনো রিজার্ভ ডে রাখা হয়নি। আইসিসি প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন এ সম্পর্কে এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আইসিসি বিশ্বকাপে যদি প্রতি ম্যাচেই রিজার্ভ ডে রাখা হতো, তাহলে টুর্নামেন্টের দৈর্ঘ্য বেড়ে যেতো আরও অনেক বেশি। এবং বাস্তবিকভাবেই টুর্নামেন্ট শেষ করতে গিয়ে খুবই জটিল আকার ধারণ করতো।’
আরও কিছু কারণ তুলে ধরেন ডেভ রিচার্ডসন। তিনি বলেন, ‘রিজার্ভ ডে রাখা হলে, উইকেট তৈরিতে এর প্রভাব পড়তো, দলের রিকভারি কিংবা ট্রাভেলের দিনের ওপরও দারুণ প্রভাব পড়তো। একই সঙ্গে ভেন্যু প্রাপ্তি, টুর্নামেন্টের স্টাফ, ভলান্টিয়ার, ম্যাচ অফিসিয়াল বাড়াতে হতো অনেক বেশি, তাদের থাকার জন্য জায়গা সঙ্কুলান হয়ে পড়তো খুবই কঠিন। এছাড়া ম্যাচ সম্প্রচারকারীদের লজিস্টিক সাপোর্ট নিয়ে পড়তে হতো দারুণ সমস্যায়।’


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ












রূপসায় প্রীতি ফুটবল ম্যাচে 

রূপসায় প্রীতি ফুটবল ম্যাচে 

১৮ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:০০


ব্রেকিং নিউজ