খুলনা | সোমবার | ১৯ অগাস্ট ২০১৯ | ৪ ভাদ্র ১৪২৬ |

শিরোনাম :
মোংলায় সাংগঠনিক তদন্তে এসে অভিযুক্তের সাথে ভ্রমণ ও ভুরিভোজ কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতারডেঙ্গু আক্রান্ত ৫৩ হাজার, চিকিৎসা শেষে ফিরেছে ৪৫ হাজারবেসরকারি বিশ্ববিদ্যায়ের শিক্ষার্থী শিঞ্জন একদিনের রিমান্ডে অবরুদ্ধ কাশ্মীরে বাড়ছে নিরাপত্তা বাহিনীর নির্যাতন, চলছে বাছবিচারহীন গ্রেফতারখুলনায় প্রাধিকারপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে গাড়ি ও ড্রাইভারের সুবিধা গ্রহণে অনিয়মের অভিযোগ!ফের নগরীর বেসরকারি বিশ্বদ্যিালয়ের বিবিএ’র ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগঈদযাত্রায় সড়কে গেছে ২২৪ প্রাণস্ত্রী পরিচয়ে কুয়াকাটাসহ নগরীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে ওই ছাত্রীকে রেখেছিলো ‘শিঞ্জন রায়’

Shomoyer Khobor

সিয়াচেনে তাপমাত্রা মাইনাস ৬০  হাতুড়িতেও ভাঙে না ডিম

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১০ জুন, ২০১৯ ০০:০০:০০


সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় ২০ হাজার ফুট ওপরে হিমালয় পর্বতমালার পূর্বাঞ্চলের সিয়াচেন হিমবাহে এখন বিরাজ করছে তীব্রতর শীত। বরফে আচ্ছাদিত ওই এলাকায় তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে হিমাঙ্কের নিচে ৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই তাপমাত্রার কারণে পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে, সেখানে নিয়ে যাওয়া হিমায়িত জুস ও সবজি বরফখণ্ডের মতো শক্ত হয়ে গেছে। এমনকি হাতুড়ি দিয়েও ডিম ভাঙা যাচ্ছে না।
সিয়াচেনে অবস্থিত ভারতের সামরিক বাহিনীর একটি ক্যাম্পে থাকা সেনাসদস্যরা রেকর্ড ভিডিওতে দেখিয়েছেন শীতের এই তীব্রতা। ওই ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। 
হিমালয়ের পূর্বাঞ্চলের কারাকোরাম রেঞ্জে অবস্থিত সিয়াচেনে ভারত-পাকিস্তান সীমান্তের নিয়ন্ত্রণরেখা (লাইন অব কন্ট্রোল) শেষ হয়েছে। এই হিমবাহের তিন পাশে ভারত, পাকিস্তান ও চীন। চীনে একটি অংশ থাকলেও বিবাদটা বেশি লেগে থাকে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যেই। সেজন্য এমন দুর্গম ও বরফাচ্ছাদিত হওয়া সত্ত্বেও ভারত, পাকিস্তান ও চীনের সৈন্য-সামন্ত রয়েছে স্ব স্ব ভূ-খণ্ডের ক্যাম্পে। ভারতের অংশে দায়িত্বরত সেনাসদস্যদের ওই ভিডিওতে দেখা যায়, হিমায়িত খাবারগুলো আহার-উপযোগী করতে রীতিমত লড়াই করছিলেন কর্মকর্তারা। ভিডিওর শুরুতে দেখা যায়, একজন সৈন্য একটি হিমায়িত জুসের প্যাকেট খুলছেন, কিন্তু খুলতেই মনে হলো, ভেতর থেকে যেন ইট বের এলো। পরে দেখা যায়, আরেক সৈন্য সেই বরফখণ্ড হয়ে যাওয়া জুসকে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করছেন, কিন্তু তাতেও ভাঙছে না।  আরও মজার ঘটনা ঘটে এরপর। ওই সৈন্য কিছু ডিম বের করে ভাঙার চেষ্টা করেন, কিন্তু সেগুলো সাদা পাথরের মতো এতোই জমে যায়, হাতুড়ি দিয়ে কয়েকবার আঘাত করেও ভাঙা যায়নি। এরপর একজন সৈন্য কয়েকটি ডিম জোরে পাথরের ফলকে ছুড়ে মারলেও ভাঙেনি একটিও। তখন একজন সৈন্যকে হেসে হেসে বলতে শোনা যায়, ‘হিমবাহে ডিমের অবস্থা এমনই।’ পরে একই কায়দায় পেঁয়াজ, আলু, আদা ও টমেটো ভাঙার চেষ্টাও করেন সেই সৈন্যরা।
ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়তেই হিমবাহে দায়িত্বরত সৈন্যদের প্রতি শ্রদ্ধা-ভালোবাসা জানান ভারতীয়রা। অনেকে মন্তব্য করেন, এতো কষ্ট শিকার করেও দেশের প্রতি দায়িত্ববোধ থেকেই এমন শীতে সেখানে আছেন সৈন্যরা।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ










অবরুদ্ধ কাশ্মীরে বিষন্ন ঈদ 

অবরুদ্ধ কাশ্মীরে বিষন্ন ঈদ 

১৫ অগাস্ট, ২০১৯ ০০:০৭




ব্রেকিং নিউজ