খুলনা | বুধবার | ২১ অগাস্ট ২০১৯ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

নকলে বাধায় দেওয়ায় পাবনায় শিক্ষককে মারধর

ছাত্রলীগের কলেজ শাখা কমিটি স্থগিত : দুই যুবক গ্রেফতার

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৭ মে, ২০১৯ ০০:২০:০০

পাবনায় পরীক্ষা চলাকালে খাতা দেখে লিখতে না দেওয়ায় কলেজ শিক্ষক মাসুদুর রহমানকে মারধরের ঘটনায় করা মামলায় বৃহস্পতিবার দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে পুলিশ বলছে, গ্রেফতার এই দুই যুবক কলেজের কেউ নন, তাঁরা বহিরাগত বখাটে।
পাবনা সরকারি শহিদ বুলবুল কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক মাসুদুর রহমানের ওপর হামলা, মারধর ও লাঞ্ছনার ঘটনায় বুধবার রাতে মামলা করা হয়। কলেজের অধ্যক্ষ এস এম আবদুল কুদ্দুস হয়ে বাদী মামলাটি করেন। মামলায় দু’জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরও তিন-চার জনকে আসামি করা হয়েছে।
এ দিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা শহরের আবদুল হামিদ সড়কে মানববন্ধন করেছে বিসিএস শিক্ষক সমিতি পাবনা জেলা শাখা। মানববন্ধন থেকে শিক্ষকদের নিরাপত্তা ও ঘটনার মূল হোতাদের গ্রেফতার দাবি করা হয়েছে। এই ঘটনায় ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠায় জেলা ছাত্রলীগ সরকারি শহিদ বুলবুল কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি স্থগিত করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।
এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শিবলী সাদিক বলেন, ‘ছাত্রলীগ সব সমালোচনার ঊর্ধ্বে থাকতে চায়। যেহেতু ঘটনায় ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, সেহেতু আমরা কমিটি স্থগিত করে তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
এ বিষয়ে পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। আমরা ইতিমধ্যে দু’জনকে গ্রেফতার করেছি। অন্য যারা জড়িত আছে, তাদের সবাইকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।’


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ