খুলনা | রবিবার | ২৬ মে ২০১৯ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ |

শিরোনাম :
দলে অনুপ্রবেশকারী কোন জামায়াত-বিএনপিকে আ’লীগের টিকিট দেয়া যাবে না : মিজানজনগণের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রীসাতক্ষীরায় প্রাইমারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের একাধিক চক্র ধরাছোঁয়ার বাইরে জনতার বিক্ষোভের মুখে দুই কর্মকর্তাসহ ৮ পুলিশ প্রত্যাহার : তদন্ত কমিটিধান কেনায় আরো ১০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের দাবি বিএনপি’রখুলনা চেম্বারে ফের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি হতে যাচ্ছেন কাজী আমিনচার মাসে বন্দুকযুদ্ধে ১১৮ নাগরিক নিহত নারী ধর্ষণ ৩৫৪, শিশু ২৩৪ : গুম ৬ নির্বাচন কমিশনই এই নির্বাচনের ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ ‘ওপেন গেম’ খেলেছে ওরা : মমতার অভিযোগ 

Shomoyer Khobor

নির্বাচনী প্রচারে বিজেপি সভাপতির হুমকি

পশ্চিমবঙ্গ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের খুঁজে খুঁজে তাড়ানো হবে

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ০৮ মে, ২০১৯ ০০:৩২:০০

পশ্চিমবঙ্গ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের খুঁজে খুঁজে তাড়ানো হবে বলে হুমকি দিয়েছেন বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ। মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গের তিনটি জনসভা থেকে অমিত শাহ  বলেছেন, অন্য দেশ থেকে যাঁরা শরনার্থী হয়ে ভারতে এসেছেন, তাঁদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। আর শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার পর অনুপ্রবেশকারীদের খুঁজে খুঁজে তাড়ানো হবে। এর পরেই তিনি জনতার কাছে প্রশ্ন রেখেছেন, পশ্চিমবঙ্গ থেকে অনুপ্রবেশকারীদের তাড়ানো উচিত কি উচিত নয়? রাজ্যে ষষ্ঠ দফার ভোট প্রচারে ফের রাজ্যে এসে অমিত শাহ তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন। রাজীব গান্ধী ইস্যুতে নিশানা করেছেন কংগ্রেসকেও। মঙ্গলবার পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালে একটি জনসভায় ‘জয় শ্রীরাম’ শ্লোগানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন এত রেগে যাচ্ছেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অমিত শাহ। তিনি বলেছেন, এই রাজ্যে জয় শ্রীরাম বললে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গাড়ি থামিয়ে জেলে পোরার হুমকি দেন। পাশাপাশি, তৃণমূলের বিরুদ্ধে সিন্ডিকেট, তোলাবাজির অভিযোগেও সরব হন তিনি।
মোদীর জয় নিয়ে এতটাই আশাবাদী যে অমিত শাহ বলেছেন, সারা দেশে একটাই শব্দ উঠেছে, পূর্ব-পশ্চিম-উত্তর-দক্ষিণে একটাই শব্দ মোদী-মোদী।  ২৩ তারিখের পর মোদীজিই দেশের প্রধানমন্ত্রী হবেন। অমিত শাহর দাবি, সারা দেশে উন্নয়নের ইস্যুতে ভোটের লড়াই হচ্ছে। তবে বিজেপি সভাপতির মতে, সারা দেশে এই উন্নয়নের ইস্যুতে ভোট হয়, কিন্তু পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র রক্ষার লড়তে হচ্ছে। তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে বিজেপির অভিযোগ, এখানে বোমা-গুলি নিয়ে দুষ্কৃতিরা ঘুরে বেড়ায়। কিন্তু মমতা দিদি কোনও ব্যবস্থা নেন না । অমিত শাহ বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকার কয়েক লক্ষ কোটি রুপি দিয়েছে রাজ্যকে। কিন্তু সিন্ডিকেটের লোকেরা সব অর্থ খেয়ে নিয়েছে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ








পদত্যাগ করছেন থেরেসা মে

পদত্যাগ করছেন থেরেসা মে

২৫ মে, ২০১৯ ০০:২৪






ব্রেকিং নিউজ