খুলনা | রবিবার | ২৬ মে ২০১৯ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ |

শিরোনাম :
দলে অনুপ্রবেশকারী কোন জামায়াত-বিএনপিকে আ’লীগের টিকিট দেয়া যাবে না : মিজানজনগণের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রীসাতক্ষীরায় প্রাইমারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের একাধিক চক্র ধরাছোঁয়ার বাইরে জনতার বিক্ষোভের মুখে দুই কর্মকর্তাসহ ৮ পুলিশ প্রত্যাহার : তদন্ত কমিটিধান কেনায় আরো ১০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের দাবি বিএনপি’রখুলনা চেম্বারে ফের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি হতে যাচ্ছেন কাজী আমিনচার মাসে বন্দুকযুদ্ধে ১১৮ নাগরিক নিহত নারী ধর্ষণ ৩৫৪, শিশু ২৩৪ : গুম ৬ নির্বাচন কমিশনই এই নির্বাচনের ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ ‘ওপেন গেম’ খেলেছে ওরা : মমতার অভিযোগ 

খোশ আমদেদ মাহে রমজান

০৭ মে, ২০১৯ ০০:১০:০০

খোশ আমদেদ মাহে রমজান

আজ পহেলা রমজান। গতকাল সূর্যাস্ত যাবার পর পরই এক ফালি নতুন চাঁদ পশ্চিম আকাশে উদিত হলে শুরু হয় মাহে রমজান শুভ সূচনা। সিয়াম সাধনার মাস রমজান। সিয়াম শব্দের শব্দমূল সওম যার অর্থ বিরত থাকা। মুসলিম জাতী দৃঢ়সংকল্প করে যাবতীয় কামাচার, পানাহার ও পাপাচার থেকে সুবিহ্ সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত বিরত থাকাটাই হচ্ছে সিয়াম। এই সিয়ামকে ফারসী ভাষায় বলা হয় রোজা। আত্মশুদ্ধি, সহিষ্ণুতা, সহমর্মিতা ইত্যাদি গুণ অর্জনের প্রত্যক্ষ প্রশিক্ষণ লাভ হয় রমজানে সিয়াম পালনের মাধ্যমে। আমরা এই রমজানুল মুবারক মাসকে জানাই খোশ আমদেদ।
পবিত্র কুরআন শরীফসহ অধিকাংশ আসমানী কিতাব ও সহীফা নাযিল হয়েছিলো রমজান মাসে। প্রিয়নবী সাল্লাল্লাহু ‘আলায়হি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, রমাদানের প্রথম দশক রহমতের, দ্বিতীয় দশক মাগফিরাতের এবং শেষ দশক দোযখের আগুন থেকে নাজাতের। আল কুরআন হলো পবিত্র আত্মা জিব্রাঈল (আঃ) সালামের মাধ্যমে মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ওপর অবতীর্ণ আল্লাহর সর্বশেষ কিতাব। রমাদান মাসে সিয়াম পালন করলে আল্লাহ তায়ালা প্রতিদান ঘোষণা করেছে। তিনি নিজেই তার খাস বান্দাদেরকে পুরস্কার দিবেন।
ইসলামের পাঁচটি রুকনের একটি হলো সিয়াম। আর রমাদান মাসে সিয়াম পালন করা ফরজ। সে জন্য রমাদান মাসের প্রধান আমল হলো সুন্নাহ মোতাবেক সিয়াম পালন করা। সালাতুত তারাবি পড়া এ মাসের অন্যতম আমল। তারাবি পড়ার সময় তাঁর হক আদায় করতে হবে। সাহরি খাওয়ার মধ্যে বরকত রয়েছে এবং সিয়াম পালনে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এক ঢোক পানি পান করে হলেও সাহরি খেয়ে সিয়াম পালন করতে হবে। কেননা সাহরির খাবার গ্রহণকারীকে আল্লাহ তায়ালা ও তাঁর ফেরেশতারা স্মরণ করে থাকেন। ইফতার সময় হওয়ার সাথে সাথে ইফতার করা বিরাট ফজিলতপূর্ণ আমল। যে ব্যক্তি সিয়াম পালন করবে, সে যেন খেজুর দিয়ে ইফতার করে, খেজুর না পেলে পানি দিয়ে ইফতার করবে। প্রতিদিন কমপক্ষে একজনকে ইফতার করানোর চেষ্টা করা দরকার। যে ব্যক্তি কোনো সিয়াম পালনকারীকে ইফতার করাবে, সে তার সমপরিমাণ সাওয়াব লাভ করবে, তাদের উভয়ের সাওয়াব হতে বিন্দুমাত্র হ্রাস করা হবে না। মুমিনদের জন্য অধিকতর রহমত ও আমলের মাস হলো রমাদান। রমাদান মাস শুরু হলেই রহমতের দরজাগুলো খুলে দেয়া হয়। পাঁচ ওয়াক্ত সালাত, এক জুমা থেকে আরেক জুমা এবং এক রমাদান থেকে আরেক রমাদান মধ্যবর্তী সময়ের গুনাহসমূহকে মুছে দেয় যদি সে কবিরা গুনাহ থেকে বেঁচে থাকে।’ যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে ইখলাস নিয়ে অর্থাৎ একনিষ্ঠভাবে আল্লাহকে সন্তুষ্টি করার জন্য রমাদানে সিয়াম পালন করবে, তার অতীতের সব গুনাহ মাফ করে দেয়া হবে।
রমাদান লাইলাতুল কদরের মাস, এই রাতের কল্যাণ হতে বঞ্চিত হওয়া চরম দুর্ভাগ্যের বিষয়। কদরের রাত হাজার মাসের চেয়েও উত্তম। রমাদান মাসে ওমরাহ আদায় করা হজ করার সমতুল্য রমাদান মাসে একটি ওমরাহ করলে একটি হজ্ব আদায়ের সমান সাওয়াব হয়। রমাদান ফিতরা আদায়ের মাস, এ মাসে সিয়ামের ত্র“টি-বিচ্যুতি পূরণার্থে ফিতরা দেয়া আবশ্যক। রমাদান বদর যুদ্ধের মাস আল্লাহর মুমিন বান্দাদের কাছে রমাদান বিজয়ের মাস। রমাদান মক্কা বিজয়ের মাস।
প্রকৃতপক্ষে মাহে রমাদান মুসলমানদের জন্য একটি বার্ষিক প্রশিক্ষণ কোর্স, যার মাধ্যমে সিয়াম পালনকারীর জীবন প্রভাবিত হয়। মাহে রমাদানের অসীম কল্যাণ ও বরকত লাভের প্রত্যাশার জন্য আগে থেকে সবার দৈহিক ও মানসিকভাবে ইবাদতের প্রস্তুতি গ্রহণ করা বাঞ্ছনীয়।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ








সাবাস টিম টাইগার 

সাবাস টিম টাইগার 

১৯ মে, ২০১৯ ০০:১০






ব্রেকিং নিউজ