খুলনা | সোমবার | ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২ পৌষ ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

মাদক বিক্রেতাদের সু-পথে আসতে বাধা কোথায়?

মাদক সংশ্লিষ্টতা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে সর্বাত্মক সহায়তার আশ্বাস খুলনার প্রশাসনের

সোহাগ দেওয়ান | প্রকাশিত ২১ এপ্রিল, ২০১৯ ০১:৩০:০০

মাদক সংশ্লিষ্টতা ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে সর্বাত্মক সহায়তার আশ্বাস খুলনার প্রশাসনের

খুলনা মহানগরী ও জেলায় চিহ্নিত মাদক কারবারিদের অনেকেই ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও সু-পথে আসতে পারছেন না। অনেকে পুলিশের কাছে লিখিতভাবে আবেদন করেও নিস্তার পাচ্ছেন না। এক শ্রেণীর অসাধু পুলিশ সদস্য ও বিশেষ পেশার কিছু ব্যক্তি সুস্থ ও ভালো জীবনের আশায় থাকা মানুষগুলোকে আলোতে আসতে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করছেন। তাছাড়া ব্যক্তিগত সুবিধা নিয়ে ও রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ঘায়েলেও মাদকের ব্যবহার হচ্ছে। আর এ সকল কারনে খুলনায় দিন দিন মাদকের মামলা বেড়ে পাহাড় সমান হচ্ছে। বার বার কারণে অকারণে মাদকের মামলায় জড়িয়ে অনেকে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। একটি পরিসংখ্যানে দেখা গেছে খুলনা জেলা কারাগারে থাকা বন্দীদের মধ্যে প্রায় ৫০ শতাংশ মাদক মামলার আসামি। তবে মাদক ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চাওয়া অন্ধাকারের মানুষগুলোকে সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন খুলনার প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিরা।  
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে মাদকের ডিলার, বিক্রেতা, সেবনকারীসহ সংশ্লিষ্টদের মাদক ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসলে তাদেরকে যোগ্যতা অনুযায়ী কর্মসংস্থানের আশ্বাস দিয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় চলতি বছরের ১৬ ফেব্র“য়ারি কক্সবাজার জেলার ১০২ জন মাদক ব্যবসায়ী অন্ধকার জীবন ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন। আনুষ্ঠানিকভাবে সেদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে তারা আত্মসমর্পণ করেন। 
অনুসন্ধানে জানা গেছে, গত ২ বছর ধরে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাছে লিখিতভাবে আবেদন জানিয়েছে অনেক মাদক বিক্রেতা। তারা সামাজিক অবস্থান ও পরিবারের সম্মানের কথা বিবেচনা করে মাদক ছেড়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন বলে কেএমপিকে অবগত করেছেন। পাশাপাশি তারা তাদের লিখিত আবেদনের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য নিজেদের ওপর গোয়েন্দা নজরদারি রাখারও অনুরোধ করেন। কিন্তু আলোর পথে আসতে চাওয়া এ সকল মানুষের ওপরে বিভিন্ন সময় মানষিক নির্যাতন ও আর্থিক সুবিধা নিতে তাদের মাদক ব্যবসায় স্থির থাকতে বাধ্য করছেন এক শ্রেণীর অসাধু পুলিশ সদস্য ও বিশেষ পেশার কিছু ব্যক্তি। এদের মধ্যে অনেকে আবার নিয়মিত মাদকও সেবনসহ নানা ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িত থাকেন বলে জনশ্র“তি রয়েছে। 
সূত্র জানায়, খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাবেক কমিশনার নিবাস চন্দ্র মাঝি দায়িত্বে থাকাকালীন সময়ে খুলনা মহানগরীতে মাদকের সাথে সম্পৃক্তদের স্বাভাবিক জীবনে ফেরানোর একটি প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা ছিলো। তিনি এ বিষয়ে সংবাদ মাধ্যমে কেএমপি’র আগ্রহের কথাও বলেছিলেন। কিন্তু তিনি বদলি হওয়ার পর মহতি এ উদ্যোগ আর আলোর মুখ দেখেনি।  
জেলা ও মহানগর পুলিশ, জেলা ও মহানগর ডিবি, মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, র‌্যাব, এপিবিএন ও বিজিব’র হাতে প্রতিনিয়ত মাদক উদ্ধারসহ বিক্রেতা ও বহনকারীরা ধরা পড়ছেন। তবে মাদকের ডিলার বা আশ্রয় প্রশ্রয়দাতারা থেকে গেছে অন্ধকারে। জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভার তথ্যমতে খুলনায় প্রতিমাসে গড়ে ৩৬৬টি মাদক মামলা দায়ের হচ্ছে। তাছাড়া জেলা কারাগারে আটক বন্দীদের মধ্যে ৫০ শতাংশই মাদক মামলার আসামি। হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী দায়েরকৃত সকল মাদক মামলার গত মাসে চার্জশীট দিয়েছে পুলিশ। এতে করে বিচারিক আদালতে হু হু করে বেড়ে যাচ্ছে মাদক মামলার বিচার কাজ।
জেলা পুলিশের সুপার এস এম শফিউল্লাহ বলেন, জেলা পুলিশ নিয়মিত মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছে। অপরাধমূলক কাজ ছেড়ে সকলকে সুস্থ জীবনে ফিরতে জেলা পুলিশের সহযোগিতা থাকবে বলেও জানান তিনি। 
জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ হেলাল হোসেন বলেন, টাস্কফোর্সের নিয়মিত অভিযানে প্রকৃত মাদক বিক্রেতারা গ্রেফতার হচ্ছে। তাছাড়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে মাদকের সাথে সংশ্লিষ্টরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চাইলে জেলা প্রশাসন সর্বাত্মক সয়হায়তা করবে। 
খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার খন্দকার লুৎফুল কবির পিপিএম বলেন, মাদকের সাথে কোন পুলিশ সদস্যের সম্পৃক্ততার প্রমাণ পেলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নের পাশাপাশি মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে রয়েছেন। মাদক সম্পৃক্ত ব্যক্তিরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চাইলে তাদেরকে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের সহযোগিতা থাকবে বলেও জানান তিনি। 
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ


বেসরকারি সোনালী জুট মিল বন্ধ ঘোষণা

বেসরকারি সোনালী জুট মিল বন্ধ ঘোষণা

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:৩০









মহান বিজয় দিবস আজ

মহান বিজয় দিবস আজ

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০০:৩৮



ব্রেকিং নিউজ


বেসরকারি সোনালী জুট মিল বন্ধ ঘোষণা

বেসরকারি সোনালী জুট মিল বন্ধ ঘোষণা

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:৩০







বিজয় দিবস ও আজকের মূল্যায়ন

বিজয় দিবস ও আজকের মূল্যায়ন

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:২১



বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন আমাদের গর্ব

বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীন আমাদের গর্ব

১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০১:১৬