খুলনা | রবিবার | ২৬ মে ২০১৯ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ |

শিরোনাম :
দলে অনুপ্রবেশকারী কোন জামায়াত-বিএনপিকে আ’লীগের টিকিট দেয়া যাবে না : মিজানজনগণের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করছে সরকার : প্রধানমন্ত্রীসাতক্ষীরায় প্রাইমারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের একাধিক চক্র ধরাছোঁয়ার বাইরে জনতার বিক্ষোভের মুখে দুই কর্মকর্তাসহ ৮ পুলিশ প্রত্যাহার : তদন্ত কমিটিধান কেনায় আরো ১০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দের দাবি বিএনপি’রখুলনা চেম্বারে ফের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সভাপতি হতে যাচ্ছেন কাজী আমিনচার মাসে বন্দুকযুদ্ধে ১১৮ নাগরিক নিহত নারী ধর্ষণ ৩৫৪, শিশু ২৩৪ : গুম ৬ নির্বাচন কমিশনই এই নির্বাচনের ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ ‘ওপেন গেম’ খেলেছে ওরা : মমতার অভিযোগ 

Shomoyer Khobor

বৈশাখী মেলায় পুলিশের উপর ছাত্রলীগের  হামলা, পুলিশসহ আহত ৪

মাগুরা প্রতিনিধি | প্রকাশিত ১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০১:২২:০০

বৈশাখী মেলায় পুলিশের উপর ছাত্রলীগের  হামলা, পুলিশসহ আহত ৪


মাগুরার শ্রীপুরে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদকের তত্ত্বাবধানে স্কুল মাঠে বৈশাখী মেলায় জুয়ার আসর উচ্ছেদ করতে গিয়ে ছাত্রলীগ নেতার নেতৃত্বে পুলিশের উপর হামলা হয়েছে। এতে এক পুলিশ কর্মকর্তাসহ চারজন আহত হয়েছেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, প্রতি বছর শ্রীপুর উপজেলার কুপুড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে স্থানীয়ভাবে বৈশাখী মেলার আয়োজন করা হয়। এবার মেলায় কাদিরপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক নেপচুন বিশ্বাসের তত্ত্বাবধানে জুয়ার আসর বসে। বিষয়টি নাকোল পুলিশ ফাঁড়ির নজরে আসলে এএসআই শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল বুধবার রাতে জুয়ার কোর্ট উচ্ছেদ করতে গেলে ছাত্রলীগ নেতা নেপচুনের নেতৃত্বে স্থানীয় ৮-১০ জন যুবক অতর্কিত ভাবে পুলিশের উপর হামলা করে। এতে লাঠির আঘাতে পুলিশ কর্মকর্তা শরিফুল আহত হন। পরবর্তীতে সেখানে উপস্থিত ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রুবেল মাহমুদকে পুলিশে জুয়ার কোর্টের খবর জানানোর সন্দেহে ধারালো অস্ত্র নিয়ে তার উপর হামলা চালায় নেপচুন ও তার সমর্থকরা।
এসময় হামলা শিকার রুবেল মাহমুদকে রক্ষা করতে তার বাবা আইয়ুব হোসেন ছোট ভাই সোহেল রানা এগিয়ে আসলে তাদের উপরও হামলা করে নেপচুন সমর্থকরা। হামলাকারীদের ধারালো অস্ত্রে ছোট ভাই এইচএসসি পরীক্ষার্থী সোহেল রানা জখম হন। পরে স্থানীয়রা দ্ইু ভাইকে উদ্ধার করে দ্বারিয়াপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক রুবেল মাহমুদ বলেন, ‘নেপচুনের নেতৃত্বে সোহাগ, মন্নু, সুরুজসহ অন্তত ১০ জন আমার উপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা করে। এ সময় বাধা দেয়ায় তারা আমার বাবা আইয়ুব হোসেন ও ছোট ভাইয়ের উপরও হামলা করে। ছোটভাই সোহেল রানাকে কুপিয়ে জখম করেছে আর লাঠির আঘাতে বাবার হাতের একটি আঙ্গুল ভেঙে গেছে।’
শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাবুবুর রহমান জানান, মেলায় জুয়ার কোর্ট পরিচালনাকারী নাজমুলকে পুলিশ আটক করে জুয়া আইনে মামলা দিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ