খুলনা | বুধবার | ২১ অগাস্ট ২০১৯ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ |

অভিযুক্ত মিল্টন নাথ গ্রেফতার ৫ দিনের রিমান্ড শুনানী রবিবার

জেজেএসসহ বিভিন্ন এনজিও সংস্থার কাজের নামে প্রতারণা ফাঁদ : কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১৯ এপ্রিল, ২০১৯ ০১:১৪:০০

জেজেএসসহ বিভিন্ন এনজিও সংস্থার কাজের নামে প্রতারণা ফাঁদ : কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ

জেজেএস, ওয়াল্ড ভিশনসহ বিভিন্ন নামী এনজিও প্রতিষ্ঠানের ঠিকাদার হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিতো মিল্টন নাথ (৪০)। তিনি বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলার দক্ষিণ কাইনমারী এলাকার বিভূদান নাথের পুত্র। মিল্টন বিভিন্ন এনজিও সংস্থার ঠিকাদারী কাজের ভুয়া ওয়ার্ক অর্ডার দেখিয়ে খুলনা ও বাগেরহাট জেলার একাধিক মানুষের কাছ থেকে ৩-৪ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 
গতকাল বৃহস্পতিবার প্রতারণার শিকার হওয়া একজনের মামলায় সোনাডাঙ্গা মডেল থানা পুলিশ তাকে আদালতে সোপর্দ করেছেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ড আবেদনও করেছে পুলিশ। মহানগর হাকিম মোঃ শাহীদুল ইসলাম তাকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া রিমান্ড আবেদনের শুনাণীর দিন আগামী ২১ এপ্রিল দিন নির্ধরাণ করা হয়েছে। 
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণী থেকে জানা গেছে, মিল্টন নাথ এনজিও সংস্থার ঠিকাদারী কাজের জন্য পার্টনার হিসেবে বিভিন্ন মানুষকে ওয়ার্ক অর্ডারের কপি দেখিয়ে প্রলোভন দিতো। তার এই প্রলোভনে অনেকেই লাখ লাখ টাকা দিয়ে ব্যবসায়ী পার্টনার হয়েছেন। কিছুদিন যেতেই বেরিয়ে আসে মিল্টন নাথের আসল চেহারা। এরকমভাবে তার কাছে প্রতারিত হওয়ার সংখ্যা বাড়তেই থাকে। গত কয়েকদিন ধরে বিষয়টি জানাজানি হলে গা ঢাকা দেয় মিল্টন নাথ। ১৭ এপ্রিল খুলনা নগরীর সোনাডাঙ্গা থানাধীন বয়রা আজিজের মোড় এলাকায় কয়েকজন পাওনাদারকে আসতে বলে মিল্টন। তারা সেখানে গেলে মিল্টন নাথ তাদেরকে টাকা দিবে না এবং মারপিটের হুমকি দেয়। এ সময় বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মিল্টনসহ সকলকে থানায় নিয়ে আসে।
এ ঘটনায় একজন পাওনাদার মোঃ ইলিয়াছ হোসেন (৩৫) বাদি হয়ে দণ্ডবিধির ৪০৬,৪২০,৪২৩ ও ৫০৬ ধারায় মিল্টনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন (নং-২৪)। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ