কেডিএ’র নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান কাল : সাত দিনের আল্টিমেটাম


খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (কেডিএ)-এর বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ এনে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে সম্মিলিত নাগরিক সমাজ। শনিবার বেলা ১১টায় পিকচার প্যালেস মোড়ে অনুষ্ঠিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন সম্মিলিত নাগরিক সমাজের আহ্বায়ক এড. মোঃ সাইফুল ইসলাম। মানববন্ধনে ১৫ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী বরাবরে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান এবং ৭ দিনের মধ্যে দাবি মানা না হলে ২৭ এপ্রিল শহিদ হাদিস পার্কে জনসমাবেশ কর্মসূচির মাধ্যমে দাবি আদায়ের কঠিন কর্মসূচি গ্রহণের ঘোষণা দেয়া হয়।
মানববন্ধনে বক্তারা কেডিএ নকশা অনুমোদনের ক্ষেত্রে নিত্য নতুন আইন প্রনয়ণ, নকশা অনুমোদনের জন্য দীর্ঘ অপেক্ষমান তালিকা, কেডিএ কর্তৃক বরাদ্দকৃত প্লট হস্তান্তরের ক্ষেত্রে আকাশ ছোঁয়া আর্থিক চাহিদা, আবাসিক হোক কিংবা বাণিজ্যিক হোক তার ট্রান্সফার ফি বৃদ্ধি, কেডিএ প্লটের বিধিমালা ফরমের মূল্য পূর্বের তুলনায় ২ থেকে ৩ গুণ বৃদ্ধি, এনওসি/ প্লান পাশ ফি পূর্বের তুলনায় বৃদ্ধিসহ ১৫% ভ্যাট আরোপ, জিরো পয়েন্টে ৫শ’ মিটারের মধ্যে এনওসি না দেয়া, নিত্য নতুন সেবার নামে ফি চালুকরণ, নিউমার্কেটের দোকান মালিকদের চুক্তির মেয়াদ ২০২৫ সালে শেষ হওয়ার আগেই ২ থেকে ৩ গুণ বেশী ভাড়া বৃদ্ধির নোটিশ প্রদান, অপরিকল্পিত রাস্তা কালভার্ট নির্মাণের কারণে জলাবদ্ধতা সৃষ্টিকরণ সহ নানা ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ধরেন। বক্তারা অবিলম্বে প্লানিং অফিসারকে অপসারণ করে সকল অনিয়ম বন্ধ করে অবিলম্বে কেডিএকে সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে রূপদানের জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। 
মানববন্ধনে বক্তৃতা করেন সাংবাদিক এস এম হাবিব, মোঃ সাহেব আলী, মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ ও সুবির কুমার রায়, মিনা আজিজুর রহমান, কামরুল করিম বাবু, শেখ শমসের আলী, খুবি কর্মকর্তা দীপক চন্দ্র মন্ডল, তপন কুমার রায়, এড. আইয়ুব আলী শেখ, ডাঃ এম এন আলম সিদ্দিকী, এস এম জাকির হোসেন, মফিদুল ইসলাম, মোঃ শাহাদাৎ হোসেন, ডাঃ নাসির উদ্দিন, মাহাবুবুর রহমান খোকন, ডাঃ সৈয়দ মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, এম এ কাশেম, হাফিজুর রহমান চৌধুরী, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, এস এম শামছুদ্দিন আহমেদ শ্যাম, সমীর কৃষ্ণ হীরা, আলহাজ্ব কবির হোসেন মৃধা, আবুল কালাম আজাদ, মোঃ রায়তুল ইসলাম সহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, ছাত্র জনতা বক্তব্য রাখেন। মানববন্ধন কর্মসূচি পরিচালনা করেন মোঃ মিজানুর রহমান বাবু ও কাউন্সিলর ফকির মোঃ সাইফুল ইসলাম।
এ সময় সোনাডাঙ্গা আবসিক (সেকেন্ড ফেজ) কল্যাণ সমিতি, দৌলতপুর ব্যবসায়ী সমিতি, ইট-বালু কয়লা ব্যবসায়ী মালিক সমিতি, নৌপরিবহন কমিশন এজেন্ট কল্যাণ সমিতি, খালিশপুর হাউজিং ব্যবসায়ী সমিতি, পূর্ব বানিয়াখামার জনকল্যাণ বহুমুখী সমবায় সমিতি, শেরে বাংলা মার্কেট মালিক সমিতি, জেলা কাঠ ব্যবসায়ী মালিক সমিতি, আলো সুপার মার্কেট মালিক সমিতি, পৌর সুপার মার্কেট মালিক সমিতি, কেসিসি সুপার মার্কেট মালিক সমিতি, চশমা বণিক সমিতি, খানজাহান আলী রোড ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমবায় সমিতি, টিবি ক্রস রোড দোকান মালিক সমিতি, টিবি ক্রস রোড জনকল্যাণ সমিতি, জেলা জুয়েলারী মালিক সমিতি, বেকারী মালিক সমিতি, জেলা আম্পেয়ার সমিতি, জেলা পাঠ্য পুস্তক ব্যবসায়ী সমিতি, চিংড়ি বণিক সমিতি, জেলা রাইস মিল মালিক সমিতি, কেসিসি ঠিকাদার কল্যাণ সমিতি, খালিশপুর হাউজিং ব্যবসায়ী মালিক সমিতি, মহানগর ডেকোরেটর মালিক সমিতি, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশন, মহানগর গৃহনির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি, সামাজিক সংগঠন একাত্মতা ঘোষণা করে সংহতি প্রকাশ করেন।
 


footer logo

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।