খুলনা | সোমবার | ২২ জুলাই ২০১৯ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ |

শিরোনাম :
খুলনায় ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া জ্বরে আক্রান্ত ২১ রোগী শনাক্তপ্রিয়ার বিরুদ্ধে খুলনা যশোরসহ ৪ জেলায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার ছয়টি আবেদন খারিজযশোরসহ ৪ জেলার মাত্র একজন বিচারকের হাতে ১৭শ’ ৭০ মামলা : স্টাফ মাত্র দু’জনখুলনার বৃক্ষমেলায় দর্শনার্থীদের নজর কেড়েছে এ্যাডেনিয়াম ফুল গাছ‘আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগের আগে আইনানুগ ব্যবস্থা না নেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর’প্লাটিনাম জুট মিলের চারটি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণা জীবনের ঝুঁকিতে শ্রমিক পরিবারের সদস্যরারাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কূটনীতি একসঙ্গে অনুসরণ করুন : রাষ্ট্রদূতদের প্রধানমন্ত্রীপ্রি-একনেকে অনুমোদনের পর কেটেছে ১০ মাস, একনেকে ওঠেনি শের-এ বাংলা রোড চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্প

Shomoyer Khobor

চারটি সমঝোতা ও একটি এসওপি সই

শুল্ক এবং কোটামুক্ত প্রবেশাধিকারে  একমত বাংলাদেশ-ভুটান

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০১:০৭:০০

পারস্পরিক স্বার্থে তাদের দেশীয় বাজারে উভয় দেশের বেশ কিছু পণ্যের শুল্ক ও কোটা মুক্ত প্রবেশাধিকার নিয়ে কাজ করার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ও ভুটান। শনিবার বাংলাদেশ-ভুটানের মধ্যে আনুষ্ঠানিক আলোচনায় ভুটান বাংলাদেশের বাজারে দেশটির ১৬টি পণ্যের শুল্ক এবং কোটামুক্ত প্রবেশাধিকার চেয়েছে আর বাংলাদেশ চেয়েছে তাদের বাজারে ১০টি বাংলাদেশি পণ্যের শুল্ক ও কোটা মুক্ত প্রবেশাধিকার।
এদিকে দুই প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকের পর সমঝোতার পাঁচটি দলিলে সই করেছে বাংলাদেশ ও ভুটান; যার মধ্য দিয়ে ঐতিহাসিক সম্পর্কে জড়িত দক্ষিণ এশিয়ার এ দু’টি দেশের বন্ধন আরও গভীর হচ্ছে বলে বলা হচ্ছে। শনিবার সকালে ঢাকায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিংয়ের নেতৃত্বে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পর স্বাস্থ্য, কৃষি, নৌ পরিবহন, পর্যটন খাতে সহযোগিতা এবং জনপ্রশাসন খাতে প্রশিক্ষণের বিষয়ে এসব সমঝোতা স্মারক ও এসওপি সই হয়।
বৈঠকের বিস্তারিত সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন পররাষ্ট্র সচিব মোঃ শহীদুল হক ও প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম। তিনি বলেন, ভুটানের সঙ্গে আমাদের খুবই গভীর ঐতিহাসিক সম্পর্ক। ভুটান প্রথম রাষ্ট্র যারা আমাদের স্বীকৃতি দেয়। তাই ভুটানের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক গাঢ়। পরবর্তী বছরগুলোতে সম্পর্কের আরও উন্নতি হয়েছে। ক্রমশই এ সম্পর্ক গভীর ও সম্প্রসারিত হচ্ছে। ২০১৭ সালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ভুটান সফরের পর বাণিজ্য বেড়েছে এবং মানুষে মানুষেও সম্পর্ক বাড়ছে।
সফররত লোটে শেরিং সকাল ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পৌঁছলে তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান শেখ হাসিনা। এরপর দুই প্রধানমন্ত্রীর একান্ত বৈঠকের পর দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হয়। এরপর দুই প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে এসব সমঝোতা ও এসওপি সই হয়।
পররাষ্ট্র সচিব বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে ভুটানের সম্পর্কই যে গভীর হচ্ছে তা নয়; ব্যবসা ও পযটনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এর ব্যাপ্তিটাও বাড়ছে।
বাংলাদেশ, ভুটান, ইন্ডিয়া, নেপালকে নিয়ে আঞ্চলিক কানেকটিভি (বিবিআইএন) গড়ে তোলার উদ্যোগ নেওয়া হলেও ভুটান এখনো ওই চুক্তিতে অনুস্বাক্ষর না করায় তা আটকে আছে। এ বিষয়ে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, ট্রানজিটের ক্ষেত্রে একটা বড় ধরনের উদ্যোগ এ অঞ্চলে আছে। বিবিআইএন-এ সব রাষ্ট্র সই করেছে। কিন্তু এটা অনুস্বাক্ষরের বিষয়ে ভুটান তাদের পার্লামেন্টে পাঠাতে পারেনি। এই বিষয়টা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।
ভুটানের নতুন সরকার বলছে, তারা এই বিষয়টি আলোচনার জন্য আপার সিনেটে নিয়ে আসবে। তারা খুবই আশাবাদী। আঞ্চলিক বিদ্যুৎ বাণিজ্য নিয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানান শহীদুল হক।
চিকিৎসাখাতেও দু’দেশের মধ্যে সহযোগিতা বাড়ছে জানিয়ে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, সার্ক স্কলারশিপে মেডিকেল ও নার্সিংয়ে বাংলাদেশে ভুটানিদের জন্য বরাদ্দ ১০টা সিট বাড়িয়ে ১৫টি করা হয়েছে। ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের ওষুধ শিল্পের প্রশংসা করেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশ থেকে তারা ফিজিশিয়ান নেবেন।
দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও কার্গো পরিবহনের সমঝোতা স্মারককে কাযকর করার লক্ষে একটি স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর (এসওপি) সই হয়। এতে বাংলাদেশের পক্ষে সই করেন নৌ পরিবহন সচিব মোঃ আবদুস সামাদ এবং ভুটানের পক্ষে সই করেন দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বাণিজ্য বিভাগের পরিচালক সোনম তেনজিন। স্বাস্থ্য খাতে সহযোগিতা বিষয়ে সমঝোতা স্মারকে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মোঃ আসাদুল ইসলাম এবং ভুটানের স্বাস্থ্য সচিব ডাঃ উজেন দফু সই করেন।
বাংলাদেশ এগ্রিকালচার রিসার্স কাউন্সিলের (বিএআরসি) এবং ভুটানের কৃষি ও বন মন্ত্রণালয় পারস্পরিক সহযোগিতা বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়। এতে সই করেন বিএআরসির নির্বাহী চেয়ারম্যান মোঃ কবির ইকরামুল হক এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভুটানের রাষ্ট্রদূত সোনম তোবদেন রাবগি। জনপ্রশাসনে পারস্পরিক সহযোগিতা বিষয়ে সমঝোতা স্মারকে সই করেন বাংলাদেশ জনপ্রশাসন প্রশিক্ষণ সেন্টারের রেকটর এম আসলাম আলম এবং বাংলাদেশে ভুটানের রাষ্ট্রদূত।
বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন এবং ভুটানের পর্যটন কাউন্সিলের মধ্যে সমঝোতা স্মারকে সই করেন বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান আখতারুজ জামানখান কবির এবং বাংলাদেশে ভুটানের রাষ্ট্রদূত।
চার দিনের সফরে শুক্রবার ঢাকায় পৌঁছান লোটে শেরিং। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের সাবেক ছাত্র ডাঃ শেরিংয়ের হৃদয়ে একটি বিশেষ জায়গা জুড়ে আছে বাংলাদেশ। ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের অষ্টাদশ ব্যাচের ছাত্রলোটে শেরিং এমবিবিএস পাস করার পর বাংলাদেশেই সার্জারিতে উচ্চতর ডিগ্রি নেন। দেশে ফিরে যোগ দেন চিকিৎসকের পেশায়।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ