খুলনা | সোমবার | ২২ জুলাই ২০১৯ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ |

শিরোনাম :
খুলনায় ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া জ্বরে আক্রান্ত ২১ রোগী শনাক্তপ্রিয়ার বিরুদ্ধে খুলনা যশোরসহ ৪ জেলায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার ছয়টি আবেদন খারিজযশোরসহ ৪ জেলার মাত্র একজন বিচারকের হাতে ১৭শ’ ৭০ মামলা : স্টাফ মাত্র দু’জনখুলনার বৃক্ষমেলায় দর্শনার্থীদের নজর কেড়েছে এ্যাডেনিয়াম ফুল গাছ‘আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগের আগে আইনানুগ ব্যবস্থা না নেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর’প্লাটিনাম জুট মিলের চারটি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণা জীবনের ঝুঁকিতে শ্রমিক পরিবারের সদস্যরারাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কূটনীতি একসঙ্গে অনুসরণ করুন : রাষ্ট্রদূতদের প্রধানমন্ত্রীপ্রি-একনেকে অনুমোদনের পর কেটেছে ১০ মাস, একনেকে ওঠেনি শের-এ বাংলা রোড চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্প

Shomoyer Khobor

ডুমুরিয়া উপজেলা নির্বাচন 

নৌকার প্রার্থী প্রচারণায় বাধা সৃষ্টি  করছে : অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর

উত্তর ডুমুরিয়া প্রতিনিধি  | প্রকাশিত ২৬ মার্চ, ২০১৯ ০১:৫৯:০০

নৌকার প্রার্থী প্রচারণায় বাধা সৃষ্টি  করছে : অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর


চলছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তোড়জোড়। খুলনা জেলার ডুমুরিয়া থানায়ও চলছে ব্যাপক প্রচারণা। বিশেষ করে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের মধ্যে চলছে চরম উত্তেজনা। নৌকা প্রতীকে লড়ছেন মোস্তফা সরোয়ার অন্যদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মাঠে নেমেছেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মরহুম আলহাজ্ব গাজী আব্দুল হাদীর বড় ছেলে এজাজ আহমেদ। 
রাজনীতির প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নতুন হওয়ায় তাকে বেগ পেতে হচ্ছে বলে জানান এজাজ আহমেদ। তিনি ২০০৪ সালে খুলনা সোহরাওয়ার্দী কলেজে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে একটি মাধ্যমিক স্কুলের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। 
এ প্রতিবেদকের আলাপকালে এজাজ আহমেদ জানান প্রতিপক্ষ অনেক ক্ষমতাধর, প্রতিটি গ্রাম ও ইউনিয়নে তার কর্মীদের মারমুখী তৎপরতার শিকার হচ্ছেন ঘোড়া প্রতীকের সমর্থক ও জনগণ। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, খোঁজ নিয়ে দেখুন, সাধারণ জনগণ প্রায় সবাই ঘোড়া প্রতীকে আস্থা রেখে সেভাবেই নির্বাচনী প্রচারণায় নেমেছেন। কিন্তু প্রতিপক্ষের হুমকি-ধামকিতে স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রচারণা চালানো অসম্ভব হয়ে পড়েছে। ইতোমধ্যে নৌকা প্রতীকের লোকজন বেশ কয়েকবার আমার কর্মী-সমর্থককে মারধর ও প্রচার মাইক গাড়ি ভাঙচুর করেছে। শোনা যাচ্ছে তারা যে কোন উপায়ে ভোটের দিন নাশকতা করে নির্বাচনে ফায়দা লুটতে পারে। ভোটের দিন নৌকার কর্মীরা ঘোড়ার কর্মী সমর্থকদের মাঠে দাঁড়াতে দেবে না বলেও তারা নানা জায়গায় ভয়-ভীতির পরিবেশ তৈরি করে রেখেছে। সাধারণ জনগণ এ বিষয়ে আমাকে তাদের শঙ্কার কথা জানিয়েছেন। 
তিনি আরও বলেন, আমি জনগণের জানমাল নিয়ে শঙ্কিত। নির্বাচনে জয়-পরাজয় যাইই হোক না কেন, আমার ডুমুরিয়াবাসীর যেন কোনো ক্ষতি কেউ করতে না পারে এবং সবাই যাতে নির্বিঘেœ কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারে তার পছন্দের প্রার্থীর প্রতীকে। 
এজাজ আহমেদ বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আমি আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথেও কথা বলেছি। মূলতঃ আমি খুবই শঙ্কার সাথে প্রচারণা চালাচ্ছি। সমগ্র ডুমুরিয়াতে এখনও পর্যন্ত বিপুল ভোটে ঘোড়ার বিজয় হবে বলে জনগণ আশাবাদী।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ