খুলনা | সোমবার | ২২ জুলাই ২০১৯ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ |

শিরোনাম :
খুলনায় ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া জ্বরে আক্রান্ত ২১ রোগী শনাক্তপ্রিয়ার বিরুদ্ধে খুলনা যশোরসহ ৪ জেলায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার ছয়টি আবেদন খারিজযশোরসহ ৪ জেলার মাত্র একজন বিচারকের হাতে ১৭শ’ ৭০ মামলা : স্টাফ মাত্র দু’জনখুলনার বৃক্ষমেলায় দর্শনার্থীদের নজর কেড়েছে এ্যাডেনিয়াম ফুল গাছ‘আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগের আগে আইনানুগ ব্যবস্থা না নেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর’প্লাটিনাম জুট মিলের চারটি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণা জীবনের ঝুঁকিতে শ্রমিক পরিবারের সদস্যরারাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কূটনীতি একসঙ্গে অনুসরণ করুন : রাষ্ট্রদূতদের প্রধানমন্ত্রীপ্রি-একনেকে অনুমোদনের পর কেটেছে ১০ মাস, একনেকে ওঠেনি শের-এ বাংলা রোড চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্প

Shomoyer Khobor

আন্তর্জাতিক ভাবে পালনের স্বীকৃতির দাবি

শোকাবহ পরিবেশে খুলনায় গণহত্যা দিবস পালন 

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ২৬ মার্চ, ২০১৯ ০১:৪৪:০০

শোকাবহ পরিবেশে খুলনায় গণহত্যা দিবস পালন 

যথাযোগ্য মর্যাদায় শোকাবহ পরিবেশে খুলনায় গণহত্যা দিবস পালন হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার আলোচনা সভা, মানববন্ধন, আলোকচিত্র প্রদর্শনীর, চলচ্চিত্র প্রদর্শনী, আলোর মিছিল, আলোক প্রজ্জ্বলন কর্মসূচি পালন করে বিভিন্ন সংগঠন।  বক্তারা ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসকে আন্তর্জাতিকভাবে পালনের স্বীকৃতির দাবি জানান।  
খুলনা জেলা প্রশাসন :  দিবসে নিহতদের স্মরণে আলোচনা সভা সোমবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের উপস্থিতিতে এ আলোচনা সভায় খুলনা অঞ্চলে মুক্তিযুদ্ধকালীন পাকিস্তানি বাহিনীর হত্যাযজ্ঞ, ভারতে গমনকালে শরণার্থীদের ওপর নিপীড়ন, চুকনগর গণহত্যার বিষয়গুলো উঠে আসে। ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসকে আন্তর্জাতিকভাবে পালনের স্বীকৃতি আদায়ে সচেষ্ট হতে মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ হতে দাবি করা হয়।
জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন আঞ্চলিক তথ্য অফিস খুলনার উপ-প্রধান তথ্য অফিসার ম. জাভেদ ইকবাল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জিয়াউর রহমান, বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের পরিচালক আবু সাঈদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নুর আলম সিদ্দিকী, বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আলমগীর কবীর, মোঃ মাহবুবার রহমান ও কাজী মাহমুদ আলী খোকন।
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় : দিবসটি উপলক্ষে ক্যাম্পাসে মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য অদম্য বাংলার সম্মুখে দু’দিনব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু হয়। এ উপলক্ষে বিকেল সোয়া ৫টায় গণহত্যা বিষয়ক মুক্ত চিত্রাঙ্কন পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। গণহত্যা বিষয়ক মুক্ত চিত্রাঙ্কনে অংশ নেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান, ডিন প্রফেসর ড. মোঃ রায়হান আলী, প্রফেসর ড. মোঃ ওয়ালিউল হাসানাত, সামাজিক বিজ্ঞান স্কুলের ডিন মোসাঃ তাছলিমা খাতুন, প্রফেসর ড. মোঃ মনিরুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মোঃ সারওয়ার জাহান, প্রফেসর মোঃ শরীফ হাসান লিমন, চারুকলা ইনস্টিটিউটসহ বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের শিক্ষকবৃন্দ, সহকারী ছাত্র বিষয়ক পরিচালকবৃন্দ এবং শিক্ষার্থীবৃন্দ। এছাড়া সন্ধ্যা ৭টায় উপাচার্য শহিদ মিনার ও অদম্য বাংলায় অভয়-আলোক প্রজ্জ্বলন করেন। অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে ছিলো সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় চলচ্চিত্র প্রদর্শনী ও রাত ৯ নিষ্প্রদীপ করণ। 
খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় : ’৭১-এর ‘গণহত্যা দিবস’ স্মরণে গতকাল সন্ধ্যায় আলোর মিছিল ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়েছে। কুয়েটের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. কাজী সাজ্জাদ হোসেনের নেতৃত্বে মোমবাতি হাতে আলোর মিছিলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীগণ অংশগ্রহণ করেন। আলোর মিছিলটি স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার সেন্টারের সামনে থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ শেষে ক্যাম্পাসস্থ মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য ‘দুর্বার বাংলা’র পাদদেশে এসে শেষ হয়। আলোর মিছিল শেষে ‘দুর্বার বাংলা’ প্রাঙ্গণে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচ্চিত্র ‘গেরিলা’ প্রদর্শিত হয়।
বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশন খুলনা : দিবসে গল্লামারী স্মৃতিসৌধে সকাল ৮টায় (বিএমএ) সংগঠনের পক্ষ থেকে শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।  এ সময় উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিএমএ’র সভাপতি ডাঃ শেখ বাহারুল আলম, সাধারন সম্পাদক ডা. মোঃ মেহেদী নেওয়াজ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডাঃ আনোয়ারুল আজাদ, অধ্যাপক ডাঃ পরিতোষ কুমার চৌধুরী, বিএমএ’র কেন্দ্রীয় কাউন্সিল সদস্য ডাঃ ইউনুচউজ্জামান খান তারিম, ডাঃ বাপ্পারাজ দত্ত প্রমুখ।
১৯৭১ : গণহত্যা-নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর  : দিবস উপলক্ষে গতকাল সোমবার বিকেল ৪টায় ‘১৯৭১ : গণহত্যা ও আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান ও আলোক প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র  তালুকদার আব্দুল খালেক। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কুয়েটের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলমগীর। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গণহত্যা জাদুঘর ট্রাস্টের ট্রাস্টি সম্পাদক ডাঃ শেখ বাহারুল আলম। 
অনুষ্ঠানের শুরুতেই জাদুঘরের সামনে ২৫ মার্চের গণহত্যাকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি ও আন্তর্জাতিক গণহত্যা দিবস ঘোষণার দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। পর ইমন শিকদার-এর ‘‘গণহত্যা : খুলনা ১৯৭১” প্রামাণ্যচিত্রের প্রদর্শনী করা হয় এবং এরপর একাত্তরের শহিদদের স্মরণে জাদুঘরের সামনে নির্মিত অস্থায়ী বেদীতে আলোক প্রজ্জ্বলন করা হয়।
শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজে : দিবসটি পালনে নিহত শহিদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা ও দোয়া করা হয়। কলেজের অধ্যাপক শেখ দিদারুল আলমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন মিনু মমতাজ, আবুল কাশেম, শাহিদুর রহমান, আইয়ূব আলী, মাকসুদা আক্তার, ইমরান হোসেন, রায়হান উদ্দিন, জয়দেব মৃধা প্রমুখ। দোয়া পরিচালনা করেন অধ্যাপক ড. নাঈমুল ইসলাম।
দারুল কুরআন সিদ্দিকীয়া কামিল মাদ্রাসা : দিবস পালনে মাদ্রাসার উদ্যোগে গতকাল সকালে স্মৃতিচারণ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মাদ্রাসা অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইদ্রিস আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইদ্রিস আলী মিয়া। বিশেষ অতিথি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আলী আকবর। এ সময় বক্তৃতা করেন উপাধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুর রউফ, মুহাদ্দিস আনোয়ার হোসাইন, মোঃ আল ফিদা হোসেন, মাওলানা মোঃ মহিউদ্দিন, মোঃ রেজাউল ইসলাম, মোঃ আক্তারুজ্জামান, মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, মাওলানা শাহারুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল করিম প্রমুখ।জেপি: দিনটি উপলক্ষে নগর জাতীয় পার্টি (জেপি)র আয়োজনে গতকাল বিকেল ৪টায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।  নগর জেপির সাধারণ সম্পাদক কাজী মাসুদ আহমেদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় জেপির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এস এম রাশিদা করিম। বক্তৃতা করেন জেপি নেতা মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী, মোঃ বাদল মুন্সী, মোঃ বাদল মুন্সী প্রমুখ। 
সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম: সংগঠনের উদ্যোগে খালিশপুরস্থ সরকারি হাজী মুহাম্মদ মুহাসিন কলেজ শহিদ মিনারের গণহত্যার সকল শহিদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন এবং পরে দোয়া করা হয় নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে। বাংলাদেশের প্রথম অন্ধ ভিপি আতিকুজ্জামান সেলিম, আশরাফুজ্জামান, সাবেক ভিপি কাজী ফরিদ উদ্দিন , মোঃ নুর হোসেন, বাবুল হোসেন ব্যাপারী, মোঃ ইসমাইল গাজী, সরদার মুহিত ইমাম মুকুল, ফারুক হোসেন, মিরাজ, ফারুক আহম্মেদ, ডাক্তার সাইদুর রহমান, মোঃ সামসুল হক, নুর-এ হেলাল, শেখ শাহরিয়ার বাবু, এজিএস মোঃ রিপন খান, এনামুল হক আকাশ , মিলন মাহামুদ, ইমরুল ইসলাম, কাজী নেয়ামুল হক মিঠু, জাকারিয়া হোসেন ডালিম, মোসাল্লাহ, ইঞ্জিনিয়ার হাসান আল মামুন মুন্না, ইঞ্জিনিয়ার মনিরুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার সাহিন সরদার, হাসান ইমরান টিটু, আবুল কালাম আজাদ, কামাল হোসেন ব্যাপারী, নাসিরুল ইসলাম মাসুম, আব্দুর রাজ্জাক, বেলাল হোসেন, কামাল হোসেন, মোঃ হুমায়ূন কবির , লুৎফর রহমান, মোঃ রফিকুল ইসলাম, মোঃ নাসির হোসেন, মোঃ জসিম উদ্দিন, মোঃ বাপ্পি, মোঃ আরজ আলী, মোঃ তানভীর ইসলাম নয়ন, জনি শিকদার, আতাউর রহমান, মোঃ আলমগীর হোসেন আলম।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ