খুলনা | বুধবার | ১৯ জুন ২০১৯ | ৬ আষাঢ় ১৪২৬ |

Shomoyer Khobor

দুই নৈশপ্রহরীকে বেঁধে

নগরীর শেখপাড়া লোহাপট্টির তিন দোকানে ট্রাক ভরে মালামাল লুট

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ ০১:৫৩:০০

নগরীর শেখপাড়া লোহাপট্টির তিন দোকানে ট্রাক ভরে মালামাল লুট

নগরীর শেখপাড়া মেইন রোডের লোহাপট্টিতে তিন দোকানের শাটার কেটে নগদ অর্থ ও মালামাল ট্রাক ভরে লুট করে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে। এ সময়ে দুইজন নৈশ প্রহরীকে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মুখ বেঁধে ট্রাকে তুলে নিয়ে জিরোপয়েন্টে ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনায় সোনাডাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।
ক্ষতিগ্রস্ত দোকান মালিকরা জানান, শেখপাড়া মেইন রোডের মেট্রো আয়রন স্টোর থেকে ৬০-৭০ কেজি পুরাতন পিতল, একশ’ কেজির মতো মোটরের তামা ও নগদ ২০ হাজার টাকা নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন প্রোফাইটার মোঃ মনির হোসেন। পাশের তরিকুল আয়রণ স্টোর থেকে ইজিবাইকের ৩০টি ও রিকশার দুই হাজার কেজি পুরাতন ব্যাটারী এবং নগদ ২০ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় চোরেরা। এ সময় বাজারের দু’জন নৈশপ্রহরী তাদের দেখে ফেললে তাদের বেঁধে ট্রাকে বেঁধে রাখে। পরে পার্শ্ববর্তী আল আমিন আয়রণ স্টোর থেকে অনুরুপভাবে মূল্যমান মালামাল ও নগদ অর্থ নিয়ে যায় বলে জানান স্বত্বাধিকারী মোঃ বদিউজ্জামান। শাটার কেটে দোকানে প্রবেশ করে বলে অভিযোগ মালিকপক্ষের। পরে ট্রাক ভর্তি লুটের মালামালের সাথে নৈশপ্রহরী নূরুন্নবী (৬০) ও মিরাজুল ইসলামের (৫২) গলার ছুরি ধরে তুলে নিয়ে জিরোপয়েন্টের মোস্ত মোড় এলাকায় ফেলে রেখে যায় তারা। পরে হরিণটানা থানা পুলিশের একটি টহল টীম তাদের উদ্ধার করে। এ ঘটনায় দোকান মালিক আলহাজ্ব মোঃ মনির হোসেন, মোঃ আব্দুল মান্নান ও মোঃ বদিউজ্জামান সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। দুই লক্ষাধিক টাকার মালামাল ও নগদ অর্থ লুট হয়েছে বলে অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্তদের। ঘটনাস্থলের পাশে ব্যাংকের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করলে ট্রাক ও চোরদের ছবি দেখা যেতে পারে বলে জানান তারা।
অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে সোনাডাঙ্গা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মমতাজুল হক বলেন, অভিযোগের তদন্ত চলছে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ





কেসিসিতে আগুনে আতঙ্ক

কেসিসিতে আগুনে আতঙ্ক

১৯ জুন, ২০১৯ ০১:২৩









ব্রেকিং নিউজ





কেসিসিতে আগুনে আতঙ্ক

কেসিসিতে আগুনে আতঙ্ক

১৯ জুন, ২০১৯ ০১:২৩