খুলনা | বুধবার | ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৫ পৌষ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

নগরীতে মৎস্য মন্ত্রীর জামাতাকে গুলির ঘটনায় 

জামায়াত নেতা গোলাম পরোয়ারের ভাইসহ তিনজনকে শ্যোন এরেস্ট 

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:৩০:০০

জামায়াত নেতা গোলাম পরোয়ারের ভাইসহ তিনজনকে শ্যোন এরেস্ট 


নগরীতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দের জামাতা প্রভাস কুমার দত্ত (৫০) কে গুলি করে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় জামায়াত নেতা মিয়া গোলাম পরোয়ারের ভাইসহ সন্দেহভাজন তিনজনকে শ্যোন এরেস্ট করা হয়েছে। পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে গতকাল বৃহস্পতিবার মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক মোঃ আতিকুস সামাদ মঞ্জুর করেছেন। গত ৩ নভেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মোঃ শহীদুল ইসলাম আদালতে এ শ্যোন এরেস্টের আবেদন করেন। 
মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ আওয়ামী লীগে আর জামায়াতের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর মিয়া গোলাম পরোয়ার ধানের শীষের প্রার্থী হিসেবে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খুলনা-৫ আসনে ভোটের লড়াইয়ে অংশ নিচ্ছেন।  
নগরীতে বর্তমানে আলোচিত এ মামলার শ্যোন এরেস্ট হওয়া তিনজন হলেন খানজাহান আলী থানাধিন শিরোমনি পশ্চিমপাড়া এলাকার মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে শেখ শাহাবুদ্দিন ওরফে সিহাব (৪৫), একই এলাকার মৃত শেখ মহসিনের ছেলে শেখ হুমায়ুন কবির (৩৫) ও শিরোমনি দক্ষিণপাড়ার মিয়া আব্দুল হামিদের ছেলে ও মিয়া গোলাম পরোয়ারের ভাই মিয়া গোলাম খায়ের (৫০)।   
আসামি পক্ষের আইনজীবী এড. সরদার ফিরোজ কবির জানান, গত ১ ডিসেম্বর গভীর রাতে মিয়া গোলাম খায়ের (৫০), শেখ শাহাবুদ্দিন ওরফে সিহাব (৪৫), শেখ হুমায়ুন কবির (৩৫) গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর পুলিশ গত ২১ সেপ্টেম্বর বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় মিয়া গোলাম খায়ের ও শেখ হুমায়ুন কবিরকে এবং একই থানার একই আইনে গত ৪ অক্টোবর দায়ের হওয়া মামলায় শেখ শাহাবুদ্দিন ওরফে সিহাবকে সন্দেহভাজন আসামি করে ২ ডিসেম্বর আদালতে সোপর্দ করেন। মহানগর হাকিম তরিকুল ইসলাম তাদেরকে জেল-হাজতে প্রেরণের আদেশ দেন। সেই থেকে তারা খুলনা জেলা কারাগারে রয়েছেন। তবে মৎস্য মন্ত্রীর জামাতা প্রভাস কুমার দত্ত (৫০)-কে গুলি করে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় মিয়া গোলাম পরোয়ারের ভাইসহ এ তিনজনকে শ্যোন এরেস্ট দেখানো হয়েছে।   
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মোঃ শহীদুল ইসলাম জানান, ব্যাংক কর্মকর্তা প্রভাসকে হত্যা চেষ্টা মামলায় সন্দেহভাজন হিসেবে তাদেরকে শ্যোন এরেস্টের আবদন করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে, পাশাপাশি কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।  
উল্লে¬খ্য, গত ৩০ নভেম্বর রাত ১০টার দিকে প্রভাস কুমারকে তার নিজ বাসায় সন্ত্রাসীরা ঢুকে গুলি করে পালিয়ে যায়। প্রভাসের ডান দিকের পেটে গুলি লেগে গুরুতর আহত হন। তিনি বাংলাদেশ ব্যাংক খুলনা শাখার ডিজিএম হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এছাড়া মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ’র জামাতা তিনি। তার পিতার নাম চিত্তরঞ্জন দত্ত। সোনাডাঙ্গা মডেল থানাধিন বকশিপাড়ার নিজস্ব বাড়িতে তিনি বসবাস করেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় গত ১ ডিসেম্বর প্রভাস নিজে বাদী হয়ে সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন (নং-০১)। বর্তমানে তিনি উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার হাসপাতালে রয়েছেন। 
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ