খুলনা | বুধবার | ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৫ পৌষ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক   | প্রকাশিত ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:১১:০০

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

আজ ৭ ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালের এইদিনে পাকহানাদার বাহিনীর কবল থেকে মুক্ত হয়েছিল সাতক্ষীরা, মোংলা, সুন্দরবন এলাকা ও ঝিনাইদহ মুক্ত। ওড়ানো হয় স্বাধীন বাংলার পতাকা। দীর্ঘ ৯ মাসব্যাপী রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্য দিয়ে সেদিনের সাহসী সন্তানরা দেশের জন্য বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছিল। ভুটান স্বাধীন ও সার্বভৌম দেশ হিসাবে বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেয়। ৭ ডিসেম্বর যশোর ক্যান্টনমেন্টের পাকিস্তানি সৈন্যরা। ঘাঁটি ছেড়ে ৬ ডিসেম্বর রাতের অন্ধকারেই }} শেষ পাতার ৪ কলাম
পালিয়ে যায়। একদল যায় ফরিদপুর-গোয়ালন্দের দিকে। বড় দলটি যায় খুলনার দিকে। ব্রিগেডিয়ার হায়াত তখন ঢাকার দিকে না গিয়ে বস্তত খুলনার দিকে একরকম পালিয়েই গিয়েছিলেন। এদিন নিয়াজীর সর্বপেক্ষা শক্তিশালী ‘দুর্গ’ যশোরের পতন ঘটে। ভারতের ৯ম ডিভিশনের প্রথম দলটি এক রক্তাক্ত যুদ্ধের প্রস্তুত নিয়ে যশোর সেনাঞ্চলের দিকে অগ্রসর হয়ে দেখতে পায়, বিপুল পরিমাণ অস্ত্রশস্ত্র, গোলাবারুদ ও রসদ ভর্তি সুরক্ষিত বাঙ্কার সম্পূর্ণ জনশূন্য। পাকি ব্যাটালিয়ান সৈন্যের এইরূপ অকস্মাৎ অন্তর্ধানে দেশের পশ্চিমাঞ্চল কার্যত মুক্ত হয়। যশোর থেকে ঢাকা অথবা খুলনার দিকে বিক্ষিপ্ত পলায়নপর পাকিরাই অন্যান্য স্থানে স্বপক্ষীয় সৈন্যদের মধ্যে ভীতির সঞ্চার করে, দু-তিনটি স্থান বাদে সর্বত্রই পাকিস্তানীদের প্রতিরক্ষার ধস নামে। এদিকে মিত্রবাহিনী ও বীর মুক্তিযোদ্ধদের যৌথ হামলায় ঝিনাইদহও মুক্ত হয়। সাত তারিখেই যশোরের বিপর্যয়ের ফলে প্রদেশের পশ্চিমাঞ্চলের পতন প্রায় সম্পন্ন এবং মেঘনার পূর্বদিকের পতনও কেবল সময়েরর ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। 
    
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ