খুলনা | রবিবার | ১৮ নভেম্বর ২০১৮ | ৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

মনোনয়নপত্রসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র খুলনায় পৌঁছেছে 

প্রার্থীরা সবোচ্চ ২৫ লাখ টাকা খরচ করতে পারবেন

মোহাম্মদ মিলন  | প্রকাশিত ১০ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:১৩:০০

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর রিটার্নিং কর্মকর্তা নিয়োগ দিয়েছেন নির্বাচন কমিশন। খুলনার ছয়টি সংসদীয় আসনের রিটার্নিং অফিসার হয়েছেন জেলা প্রশাসক মোঃ হেলাল হোসেন। এছাড়া আসনভিত্তিক ১৫ জন সহকারি রিটার্নিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এদিকে বৃহস্পতিবার রাতে খুলনায় মনোনয়নপত্র, আচরণবিধিসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এসে পৌঁছেছে। যা গতকাল শুক্রবার সকালে জেলা নির্বাচন কার্যালয় থেকে উপজেলা পর্যায়ে প্রেরণ করা হয়েছে। রিটার্নিং ও সহকারী রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে সংগ্রহ করা যাবে মনোনয়নপত্র। গতকাল রাত পর্যন্ত কোন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেননি। তবে আগামী রবিবার থেকে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করবেন বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কর্মকর্তারা। অন্যদিকে নির্বাচনে ভোটার প্রতি ১০ টাকার বেশি খরচ না করার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের (ইসি) যুগ্ম-সচিব ফরহাদ আহাম্মদ খান স্বাক্ষরিত এক প্রাজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশ (আরপিও) অনুযায়ী এই নির্দেশনা গতকাল মাঠ পর্যায়ে পাঠানো হয়েছে। প্রজ্ঞাপনে সর্বোচ্চ ২৫ লাখ টাকা খরচের বিধান রেখে প্রার্থীদেরকে নির্দেশনা দেয়া হয়।  
সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এম মাজহারুল ইসলাম বলেন, খুলনায় মনোনয়নপত্র, নির্বাচনী আচরণবিধিসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এসে পৌঁছেছে। যা উপজেলা পর্যায়ে পাঠানো হয়েছে। প্রার্থীরা রিটার্নিং অফিসার এবং সহকারি রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন। নির্বাচনে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। ভোট কেন্দ্র, কক্ষ, ভোটার চূড়ান্ত করা হয়েছে। এছাড়া ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের সংখ্যাগত তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। যা নির্বাচন কমিশনে প্রেরণ করা হয়েছে।  
জেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে খুলনার ছয়টি আসনে ৭৮৫টি কেন্দ্র এবং ৩ হাজার ৮০৫টি ভোটকক্ষ চূড়ান্ত করা হয়েছে। সেই সাথে রিজার্ভ রাখা হয়েছে আরো ৫ শতাংশ ভোট কেন্দ্র। এসব ভোট কেন্দ্র ও কক্ষের জন্য মোট ১২ হাজার ২০০ ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা দায়িত্বে থাকবেন। এর মধ্যে ৭৮৫ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৩ হাজার ৮০৫ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, ৭ হাজার ৬১০ জন পোলিং অফিসার থাকবে।  এর সাথে আরো ১০ শতাংশ ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাকে রিজার্ভ রাখা হবে। সব মিলিয়ে ১৩ হাজার ৪২১ ভোট গ্রহণ কর্মকর্তার সংখ্যাগত তালিকা তৈরি করা হয়েছে। এর মধ্যে ৮৬৪ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ৪ হাজার ১৮৬ জন সহকারি প্রিজাইডিং অফিসার, ৮ হাজার ৩৭১ জন পোলিং অফিসার রয়েছে। 
এদিকে গত ৪ নভেম্বরের তথ্য অনুযায়ী এবারের নির্বাচনে খুলনায় ভোটার সংখ্যা ১৮ লাখ ৮৩০ জন। এর মধ্যে খুলনা-১ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৫৯ হাজার ৩৫৬ জন, খুলনা-২ আসনে ২ লাখ ৯৪ হাজার ৬২ জন, খুলনা-৩ আসনে ২ লাখ ২৬ হাজার ৩০২ জন, খুলনা-৪ আসনে ৩ লাখ ১০ হাজার ৪৪৬জন, খুলনা-৫ আসনে ৩ লাখ ৪৪ হাজার ৪৭২জন ও খুলনা-৬ আসনে ৩ লাখ ৬৬ হাজার ১৯২ জন ভোটার রয়েছে। 
উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হবে আগামী ২৩ ডিসেম্বর। নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষদিন ১৯ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র বাছাই করা হবে ২২ নভেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৯ নভেম্বর। 
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ