খুলনা | রবিবার | ১৮ নভেম্বর ২০১৮ | ৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

পরিদর্শনে অতিরিক্ত মহাপরিচালক

খুলনা আধুনিক রেল স্টেশনের ভবন বুঝে নেওয়ার  প্রস্তুতি চলছে : শিগগিরই কার্যক্রম শুরু 

বশির হোসেন | প্রকাশিত ১০ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:০৯:০০

বহুল প্রত্যাশিত খুলনা আধুনিক রেলস্টেশনে সাজসজ্জা ও ডেকোরেশনের কাজ চলছে। গতকাল শুক্রবার দিনব্যাপী স্টেশন মাস্টার, প্রকৌশলী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কক্ষে চেয়ার, টেবিল ও আলমারী বসানো হয়েছে। এদিকে গতকাল নবনির্মিত রেলস্টেশনে পরিদর্শনে করেন রেলওয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অবকাঠামো)। পরিদর্শন শেষে কাজের সন্তুষ্টি সাপেক্ষে প্রকল্প কর্মকর্তাদের কাছ থেকে বুঝে নেবে রেল কর্তৃপক্ষ। তবে কবে নাগাদ নতুন স্টেশন থেকে কাঙ্খিত রেল যাত্রা করবে, তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি কেউই। 
সরেজমিন খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আধুনিক রেলস্টেশনের দৃষ্টিনন্দন তিনতলা মূল ভবন ও প্লাটফরম নির্মিত হয়েছে আগেই। সেই সঙ্গে রেললাইনের স্লিপার, লোকোসেড, রেস্টুরেন্ট, টিকিট কাউন্টার, ওয়েটিং রুম, ভবন সজ্জিতকরণ, রং-টাইলসের ফিনিসিং ও ধোয়া মোছার কাজ, স্বয়ংক্রিয় অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থা, বাগানসহ লাইটিং-এর কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। বর্তমানে রুমগুলোতে ডেকোরেশনের কাজ চলছে। গতকাল স্টেশন মাস্টার, প্রকৌশলী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কক্ষে চেয়ার, টেবিল ও আলমারী বসানো হয়েছে। 
এদিকে নবনির্মিত আধুনিক রেল স্টেশনের সার্বিক কাজ দেখতে গতকাল খুলনায় আসেন রেলওয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অবকাঠামো) মোঃ আনোয়ারুল হক। তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, আধুনিক এ রেল স্টেশনের নির্মাণ কাজের চূড়ান্ত পরিদর্শনে এসেছি। কয়েক দিনের মধ্যে প্রকল্প কর্মকর্তাদের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্টেশন ভবনটি বুঝে নেয়া হবে। যেহেতু প্রধানমন্ত্রী এটি উদ্বোধন করেছেন। তাই কাজ বুঝে নিয়েই এটি সর্বসাধারণের জন্য উন্মক্ত করা হবে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অবকাঠামো)-এর পরিদর্শনের পর কাজের সন্তুষ্টি সাপেক্ষে ঢাকায় প্রকল্প কর্মকর্তাদের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে বুঝে নেয়া হবে স্টেশন ভবনটি। তবে নির্দিষ্টভাবে কবে এটি চালু হবে তা সুনির্দিষ্ট তারিখ বলতে পারেননি কেউই।
স্টেশন মাস্টার মানিক চন্দ্র সরকার বলেন, আজ (শুক্রবার) ভবনের কক্ষগুলোতে ফার্নিচার বসানো কাজ হয়েছে। খুব শিগগিরই স্টেশন ভবন বুঝে নেয়া হবে। এরপরই নতুন ভবনে কার্যক্রম শুরু হবে।
উল্লেখ্য, কয়েকবার দরপত্র জটিলতাসহ নানা কারণে সময়ক্ষেপণের পর ২০১৫ সালের এপ্রিলে প্রত্যাশিত আধুনিক রেলস্টেশন নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ৫৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ১৮ মাস মেয়াদে প্রকল্পের কাজ শেষ করার সময়সীমা নির্ধারিত ছিল। কিন্তু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত সময় কাজ শেষ করতে না পারায় সময় বৃদ্ধির কারণে নির্মাণ ব্যয় বেড়ে দাঁড়ায় ৬১ কোটি ২৭ লাখ টাকা। 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ