খুলনা | রবিবার | ১৮ নভেম্বর ২০১৮ | ৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

নগরীতে মিছিল পূর্ব সমাবেশে আ’লীগ নেতৃবৃন্দ

নির্বাচন কমিশন তফশীল ঘোষণার মাধ্যমে  সংবিধান ও গণতন্ত্রকে সুসংহত করেছেন

খবর বিজ্ঞপ্তি | প্রকাশিত ০৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:১৯:০০

নির্বাচন কমিশন তফশীল ঘোষণার মাধ্যমে  সংবিধান ও গণতন্ত্রকে সুসংহত করেছেন


আ’লীগ নেতৃবৃন্দ বলেছেন, নির্বাচন কমিশন আগামী ২৩ ডিসেম্বর নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছেন। সংবিধান সমুন্নত রেখেই শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই ২৩ ডিসেম্বরেই জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সকল দলের অংশ গ্রহণের মাধ্যমে অবাধ নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ ভাবে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, কারো হুমকিতে নির্বাচনের তফশীল পেছানো হবে। আ’লীগ গণমানুষের রাজনৈতিক দল। তৃণমূল জনতার রায়েই আগামী নির্বাচনে আ’লীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসবে ইনশাল্লাহ। নেতৃবৃন্দ নির্বাচন কমিশনকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, তফশীল ঘোষণার মাধ্যমে সংবিধান ও গণতন্ত্রকে সুসংহত করেছেন। আগামী নির্বাচনের মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ উন্নত বিশ্বের দিকে আরোও একধাপ এগিয়ে যাবে। নেতৃবৃন্দ দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনাকে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী করে জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী উদ্যাপন করতে হবে। সেজন্যে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে শেখ হাসিনার সকল উন্নয়ন ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে হবে। নেতৃবৃন্দ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ৭টায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফশীল ঘোষণা করায় প্রধান নির্বাচন কমিশনাকে অভিনন্দন জানিয়ে মিছিল পূর্ব সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। নগর ও জেলা আ’লীগ আয়োজিত দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন নগর আ’লীগ  সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আ’লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, নগর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান এমপি, শেখ হায়দার আলী, মল্লিক আবিদ হোসেন কবীর, শেখ সিদ্দিকুর রহমান, শেখ মোঃ ফারুক আহমেদ, কামরুজ্জামান জামাল, মকবুল হোসেন মিন্টু, মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, শেখ ফজলুল হক, জেড এ মাহমুদ ডন, ফেরদৌস আলম চাঁন ফারাজী, এড. খন্দকার মজিবর রহমান, এড. অলোকা নন্দা দাস, প্যানেল মেয়র আলী আকবর টিপু, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন খান, মোঃ মফিদুল ইসলাম টুটুল, শেখ নুর মোহাম্মদ, মোঃ শাহাজাদা, শেখ মোশাররফ হোসেন, সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস, তসলিম আহমেদ আশা, মাহাবুবুল আলম বাবলু মোল্লা, অধ্যা. রুনু ইকবাল, প্যানেল মেয়র আমিনুল ইসলাম মুন্না, প্যানেল মেয়র মেমরী সুফিয়া রহমান শুনু, কাউন্সিলর এস এম মোজাফ্ফর রশিদী রেজা, চৌধুরী রায়হান ফরিদ, কাউন্সিলর মাহফুজুর রহমান লিটন, কাউন্সিলর হেনা আক্তার, এড. জেসমিন সুলতানা জলি, আবুল কাশেম মোল্লা, এড. সরদার আনিসুর রহমান পপলু, রনজিত কুমার ঘোষ, মনিরুজ্জামান সাগর, এস এম আকিল উদ্দিন, মোঃ আমির হোসেন, শফিকুর রহমান পলাশ, নয়মী বিশ্বাস সাথী, এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল, মঈনুল ইসলাম নাসির, শেখ আবিদ উল্লাহ, ফেরদৌস হোসেন লাবু, শেখ মোঃ ফারুক হোসেন, চৌধুরী মিনহাজ উজ্জামান সজল, জাহিদুল হক, নুর ইসলাম, চ ম মুজিবর রহমান, আব্দুল হাই পলাশ, গাজী মোশাররফ হোসেন, ফয়েজুল ইসলাম টিটো, শেখ মোঃ রুহুল আমিন, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, ইউসুফ আলী খান, জাকির হোসেন, সরদার আব্দুল হালিম, খোন্দকার বাহাউদ্দিন, মোঃ শিহাব উদ্দিন, মোঃ শাহজাহান পারভেজ, টিএম আরিফ, মোঃ রাজ্জাক হোসেন, আব্দুল কুদ্দুস, আকবর আলী, তোতা মিয়া ব্যাপারী, মোক্তার হোসেন, রেজাউল ইসলাম, মোঃ রুহুল আমিন খান, দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। সমাবেশ শেষে এক বিশাল আনন্দ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ