খুলনা | বুধবার | ২১ নভেম্বর ২০১৮ | ৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

চাকুরি দেয়ার নামে প্রতারণায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন

০৫ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:১০:০০

চাকুরি দেয়ার নামে প্রতারণায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিন

দেশি-বিদেশি নামি-দামি প্রতিষ্ঠানে চাকুরির প্রলোভন দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে এমন একটি চক্রের ১৩ সদস্যকে সমপ্রতি গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে। চক্রটি মূলত অবসরপ্রাপ্ত সরকারি-বেসরকারি চাকুরিজীবীদের টাগের্ট করে। তিন-চার মাস পরপর তাদের অবস্থান পরিবর্তন করে এবং বিভিন্ন নামে অফিস খুলে চাকুরি দেয়ার নামে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে অর্থ হাতিয়ে নেয়। এই পরিস্থিতি নিঃসন্দেহে উদ্বেগজনক। 
বলাই বাহুল্য, এটা কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এমন অনেক ঘটনা এর আগেও ঘটেছে। প্রতিযোগিতামূলক চাকুরির বাজারে চাকুরি পাওয়ার জন্য যখন মানুষ দিশাহারা, বেকার নারী-পুরুষ চাকুরির আশায় চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, ঠিক এটাকেই পুঁজি করছে একশ্রেণির প্রতারকচক্র যা অত্যন্ত উৎকণ্ঠার জন্ম দেয়। প্রতারকরা চাকুরি প্রত্যাশীদের বিপদে ফেলে হাতিয়ে নিচ্ছে অর্থ। এমনকি দারিদ্র জনিত অসহায়ত্বের সুযোগ নিতেও তারা পিছপা হয় না। চোখ ধাঁধানো চাকুরির বিজ্ঞপ্তি, মোটা অঙ্কের বেতনের প্রলোভন আর ইন্টারভিউ শেষে চাকুরি হয়ে গেছে জানিয়ে নির্ধারিত তারিখে যোগদান করতে বলা হয়। এরপর সিকিউরিটি মানি, পেনশন স্কিম এবং ব্যক্তিগত গাড়ি দেয়ার নামে ৩-১৫ লাখ টাকা করে জমা দিতে বলা হয়। চাকুরির প্রয়োজনে বা লোভে পড়ে অনেকেই সেই টাকা জমাও দিয়ে থাকে। তবে প্রতারণার বিষয়টি বুঝে ওঠার আগেই অফিস তালা দিয়ে পালিয়ে যায় প্রতারক চক্র। 
আমরা বলতে চাই, প্রতারণার ফাঁদ ফেলে মানুষের সবর্স্ব হাতিয়ে নিতে যারা উদ্যত, তাদের ক্ষেত্রে কোনো প্রকার ছাড় নয় বরং দোষীদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনা জরুরী। এর আগে ২০১৩ সাল থেকেই চক্রটি ফরচুন গ্র“প অব কোম্পানিজ, রেক্সন গ্র“প অব কোম্পানিজ, ইস্টার্ন গ্র“প অব কোম্পানিজ, কেয়া গ্র“প অব কোম্পানিজ, নেক্সাস গ্র“প অব কোম্পানিজ, সানলাইট গ্র“প অব কোম্পানিজ এবং ম্যাক্স ভিশন গ্র“প অব কোম্পানিজ নামের প্রতিষ্ঠান খুলে বহু মানুষকে প্রতারিত করেছে। এসব প্রতিষ্ঠানে চাকুরি দেয়ার নামে প্রায় অর্ধশত লোকের কাছ থেকে দেড় কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছিল । আমরা মনে করি, এ ধরনের ঘটনাগুলো আমলে নিয়ে যে সব প্রতারক চক্র মানুষকে জিম্মি করে স্বার্থ আদায়ে মরিয়া তাদের রুখতে অভিযান অব্যাহত রাখা দরকার। চাকুরি প্রত্যাশীরা প্রতারকচক্রের খপ্পরে পড়ে দিশাহারা হয়ে পড়বে এমনটি কাম্য হতে পারে না। এ চক্রগুলোকে রুখে দেয়ার প্রচেষ্টা যেমন অব্যাহত রাখতে হবে, তেমনিভাবে চাকুরি দেয়ার নামে যারা নানা কথা বলে তাদের ব্যাপারেও সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। মনে রাখা দরকার, প্রতারকদের হাত থেকে রক্ষা পেতে হলে যথাযথ সচেতনতাও জরুরী। আমরা চাই, সামগ্রিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সাপেক্ষে সংশ্লিষ্টরা এমন পদক্ষেপ নিশ্চিত করুক, যেন প্রতারক চক্রগুলো তাদের তৎপরতা চালাতে না পারে।
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ

সিরাতুন্নবী (সাঃ) আজ

সিরাতুন্নবী (সাঃ) আজ

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:১০







দখলমুক্ত হোক খুলনার সড়ক মহাসড়ক

দখলমুক্ত হোক খুলনার সড়ক মহাসড়ক

১১ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:১০



ভেজাল থেকে পরিত্রান চায় মানুষ

ভেজাল থেকে পরিত্রান চায় মানুষ

০৮ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:১০



ব্রেকিং নিউজ






পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) আজ

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) আজ

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:২৩


নগরীতে মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ

নগরীতে মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:২০