খুলনা | রবিবার | ১৮ নভেম্বর ২০১৮ | ৪ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

ইসলামের দৃষ্টিতে মোবাইল ফোন ব্যবহার

মুহাম্মদ মাহফুজুর রহমান আশরাফী | প্রকাশিত ০২ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:১০:০০

* বিজ্ঞান দূরকে করেছে নিকট, বিজ্ঞানের কল্যাণে আজ মানুষ আবিষ্কার করেছে অনেক কিছু। যার কারণে পৃথিবীর এক প্রান্ত হতে অপর প্রান্তে সকল খবর মুহূর্তের জানা যায়, বিশেষ করে টেলিফোন, মোবাইল ফোন, ফ্যাক্স, ই-মেইল ইত্যাদি। নিম্নে মোবাইল ফোন ব্যবহারে শরীয় বিধি-বিধান সম্পর্কে আলোচনা পেশ করা হলো।
মোবাইল ফোন বর্তমানে বহুল ব্যবহৃত একটি যন্ত্র। এর কিছু ভাল দিক যেমন আছে, তেমনি রয়েছে এর ক্ষতিকর দিকও। মোবাইল কোম্পানিগুলোর বিভিন্ন রকমের অবাঞ্চিত টিপস, বিভিন্ন অপসন, গানের বাহারী রিংটোন মোবাইলের ব্যবহারকে নাজায়িয পর্যায়ে নিয়ে যায়। তাই আমরা যারা মোবাইল ব্যবহার করি। তাদের কিভাবে শরীয়তের বিধান রক্ষা করে মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যায়, এই নিয়ম বা পদ্ধতিগুলো যানা খুবই জরুরী। মোবাইল ফোন ব্যবহার পদ্ধতিও নিয়মগুলো উল্লেখ করা হলো ঃ
(১) বাজনা-বাদ্য ইত্যাদি শোনা কবীরা গুনাহ। তাই রিংটন হিসেবে এর ব্যবহার গুনাহের কাজ। বিশেষ করে গান ও বাদ্যের রিংটোন যদি মোবাইলে থাকে সেই মোবাইল নিয়ে অনেকে মসজিদে নামাজ আদায়ের জন্য যায়, অনেক সময় রিংটোন বন্ধ করতে খেয়াল থাকেনা, তখন নামাজের ভিতর বাদ্যের শব্দ শুনতে নামাজীরা বাধ্য হয়, এটি অত্যান্ত খারাপ দিক।
(২)  সালাম ডাউন লোড করে তা রিংটোন হিসাবে ব্যবহার করা শরীয়তে জায়েজ আছে। কারণ শরীয়তে সালামের ব্যবহার দু’ভাবেই এসেছে, অভিবাদন হিসেবে এবং অনুমতি চাওয়া হিসেবে, অর্থাৎ কারো ঘরে প্রবেশের জন্য অনুমতি চাওয়ার ক্ষেত্রেও সালামে ব্যবহার শরীয়ত সম্মত নিয়ম। আর যেহেতু মোবাইলের রিংটোন হিসেবে সালামের ব্যবহার এ প্রকারের সাথে কিছুটা মিলে যায়, তাই রিংটোনের জন্য সালামের ব্যবহার জায়িয হবে। (সূত্র: আদুদররুল মুখতার, ৬:৪১২)
(৩) কুরআন তিলাওয়াত, যিকির ও তাযবীহ, ইত্যাদি ইবাদতের অন্তর্ভূক্ত। তেমনিভাবে আযান ইসলামের একটি বিশেষ নির্দশন। আর এসব পালনের বিশেষ নিয়ম রয়েছে এবং একমাত্র আল্লাহ্ তায়ালাকে রাজি-খুশী করার উদ্দেশ্যে শরীয়তের নিয়ম অনুযায়ী এগুলো পালন করতে হয়। এমতাবস্থায় সেই গুন্ডির বাইরে মোবাইলের রিংটোন হিসেবে এগুলোর ব্যবহার অপাত্রে ব্যবহার করার শামিল, যা আদবের সম্পূর্ণ খিলাফ। এছাড়া রিংটোন হিসাবে এগুলোর ব্যবহারে শরীয়তের দৃষ্টিতে আরো নানারকম অসুবিধা রয়েছে, যেমন-
(ক) কল আসলে যদি কুরআনের তিলাওয়াতে বেজে উঠে। তখন অনেক সময় ব্যস্ততার দরুণ সেই তিলাওয়াতের প্রতি খেয়াল করার সুযোগ হবে না। অন্তত কে কল করেছে তা দেখা এবং কল রিসিভ করার ব্যস্ততা তো আছেই। এ কারণে তখন তিলাওয়াতের আদব রক্ষা হবেনা।
(খ) কল আসলে যেহেতু রিসিভের জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়বে এবং এটিই মূখ্য থাকবে, তাই আয়াতের কোন স্থানে তিলাওয়াত চলছে, সেদিকে খেয়াল না করে রিসিভ করে ফেলবে। এতে অনেক ক্ষেত্রে বাক্যের উচ্চারণ পূর্ণ না হওয়ায় আয়াতের অর্থ বিকৃত ও কুফরী কালাম হয়ে যেতে পারে।
(গ) টয়লেটে থাকাবস্থায় যদি কল আসে, তাহলে সেই অপবিত্র স্থানে কুরআন তিলাওয়াত হতে থাকবে-যা মারাত্মক অন্যায় ও গুনাহের কাজ।
(৪) ওয়েল কাম টিউনে গানের কলি ব্যবহার করলে, এ নম্বরে কলকারী সকলকে বাধ্য হয়ে সেই গান বা মিউজিক ব্যবহার করলে, এ নম্বরে কলকারী সকলকে বাধ্য হয়ে সেই গান বা মিউজিক শুনতে হয়। এতে অন্যকে গান শোনানো তথা গুনাহের কাজে বাধ্য করার মারাত্মক গুনাহ হয়।, তাই এটিও সম্পূর্ণ বর্জনীয়। তেমনিভাবে কুরআন তিলাওয়াতকে টিউন হিসেবে ব্যবহার করলে, এটিকে রিংটোন হিসেবে ব্যবহারের সবগুলো খারাপ দিক পাওয়া যায়, তাই এটি জায়েজ হবে না। (সূরাহ লোকমান-৬)
(৫) রিংটোন কিংবা ওয়েলকাম টিউন হিসেবে কোন ইসলামী গজলের কল ব্যবহার করা যাবে, তবে শর্ত হল তা বাজনা ছাড়া হতে হবে।
(৬) মোবাইল স্ক্রীনে ওয়াল পেপার বা স্ক্রীন সেভার হিসেবে মানুষ বা কোন প্রাণীর ছবি রাখা নাজায়িয, বিশেষ করে স্ক্রীনে মহিলাদের ছবি রাখা মারাত্মক গুনাহের কাজ। (সূত্রঃ সহীহ বুখারী ২:৮)
(৭) মসজিদ ইবাদতের স্থান বা জায়গা, এখানে অন্য ইবাদতকারীর ক্ষতি করে কথা বলা নাজায়েজ, তাই মসজিদের ভিতর প্রবেশ করার পূর্বে মোবাইলের রিংটোন বন্ধ করা উচিত।
(৮)  নামাযরত অবস্থায় রিংটোন বেজে উঠলে, তা নামাযীর একাগ্রতা নষ্ট করে বিধায় তা বন্ধ করা দরকার। বন্ধ করার নিয়মগুলো হল ঃ
(ক) দুই হাত ব্যবহার না করে একহাত বন্ধ করে দিবে, এক্ষেত্রে জেনে রাখা প্রয়োজন সে, নামাজে, যেকোন জরুরী প্রয়োজনে শুধু এক হাতের ব্যবহার জায়েজ আছে, দু’হাতের নয়, (সূত্র: শরহে নববী ঃ ১ঃ২০৫)
(খ) এক হাত দ্বারা মোবাইল পকেট থেকে বের করে, অতঃপর তা দেখে বন্ধ করা যাবে না, এতে নামাজ নষ্ট হবে, এবং ঐ নামাজ পুনরায়-পড়তে হবে।
(গ) সিজদারত অবস্থায় রিংটোন বেজে উঠলে, অনেকে সিজদা থেকে উঠে বসে, অথচ তখনো ইমাম ও মুসল্লীগণ সিজদাবস্থায় থাকেন। এই কাজটি শরিয়ত সম্মত নয়।
(৯) মসজিদে বিদ্যুতের বোর্ড ও সুইচ ইত্যাদি ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য অনুমোতি নয়। তাই মসজিদে মোবাইল চার্জ দেয়া যাবে না। একান্ত কেউ কোন ওজরে চার্জ দিয়ে থাকলে, তার মূল্য স্বরূপ অনুমান করে কিছু টাকা মসজিদ ফান্ডে দিতে হবে।
(১০) পাত্র-পাত্রী বিবাহ অনুষ্ঠানে সরাসরি উপস্থিত না হয়ে নিজ নিজ প্রতিনিধির মাধ্যমে বিবাহ বন্ধনে আবন্ধ হতে পারে, মোবাইল ফোনের মাধ্যমে, তবে শর্ত হলো ছেলে মোবাইল বা টেলিফোনের কবুল বলতে তা লাউডস্পিকার দিয়ে শুনতে হবে এবং উপস্থিত উকিল সরাসরি স্বাক্ষী দিবে যে এই কণ্ঠ ছেলের নতুবা মোবাইলে বিবাহ বৈধ হবেনা।
    মোবাইল ফোন ও বর্তমান সমাজ ঃ মোবাইল আধুনিক জ্ঞান-বিজ্ঞানের এক অনন্য উপহার যা মানুষের জীবনকে করেছে গতিময়। অনেক সময়ের কাজ মুহূর্তে সম্ভব হয়েছে মোবাইলের কারণে। আজ পৃথিবী হাতের মুঠোয় আধুনিক তথ্য ও প্রযুক্তির জন্য। কিন্তু অতি দুঃখের সাথে বলতে হয়, বর্তমানে মোবাইল যোগাযোগের একটি কল্যাণকর উপকরণ হলেও এর অপকার এখন মারাত্মকার ধারণ করছে। বিশেষ করে যুবক-যুবতী, তরুণ-তরুণী, ছাত্র-ছাত্রীরা এমনভাবে মোবাইলে আসক্ত হয়েছে যা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। মোবাইল কোম্পানির বিভিন্ন লোভনীয় অফারে এই ক্ষুদ্র যন্ত্রটি গভীর রাত্রে যুবক-যুবতীর ভিতর অবৈধ সম্পর্ক গড়ে উঠার মাধ্যম হয়েছে, যার ফলে নৈতিক অবক্ষয় ও চারিত্রিক অধঃপতন ঘটছে। মোবাইল ফোনের বিষাক্ত ছোঁয়ায় বহু দাম্পত্য জীবনে নেমে এসেছে বিচ্ছিন্নতার খড়গ। স্বামীর অগোচরে স্ত্রী বা স্ত্রীর অগোচরে স্বামী পরকীয়ায় লিপ্ত হয়ে তাদের সোনার সংসার কাঁচের গ্লাসের ন্যায় ভেঙ্গে টুকরা টুকরা হচ্ছে। 

লেখক: মুফাসসিরে কোরআন ও প্রভাষক, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ, মাতৃভাষা ডিগ্রী কলেজ। শরণখোলা, বাগেরহাট।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ

আত্মহত্যা একটি মহাপাপ

আত্মহত্যা একটি মহাপাপ

১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০৫


“তাওবা করার নিয়ম ও পদ্ধতি”

“তাওবা করার নিয়ম ও পদ্ধতি”

২৬ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:১০

চেয়ারে বসে নামায ও শরয়ী হুকুম

চেয়ারে বসে নামায ও শরয়ী হুকুম

১৯ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:১০

“শরীয় বিধানে দেনমোহর”

“শরীয় বিধানে দেনমোহর”

১২ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০৩

যে আগে সালাম দেয় সে অহংকার মুক্ত

যে আগে সালাম দেয় সে অহংকার মুক্ত

০৫ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:১০

“অকাল মৃত্যু” একটি ভ্রান্ত ধারণা

“অকাল মৃত্যু” একটি ভ্রান্ত ধারণা

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:১২


রহস্যময় আবে যমযম কূপ

রহস্যময় আবে যমযম কূপ

১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০৯

পবিত্র আশুরা  ২১ সেপ্টেম্বর

পবিত্র আশুরা  ২১ সেপ্টেম্বর

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০


হজে গুনাহ মাফ হয়

হজে গুনাহ মাফ হয়

১৬ জুলাই, ২০১৮ ১৩:২৫


ব্রেকিং নিউজ