খুলনা | বুধবার | ২১ নভেম্বর ২০১৮ | ৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

সৌদিকে বিন্দুমাত্র ছাড় দেয়া হবে না : তুরস্ক 

‘সাংবাদিক খাসোগিকে হত্যার পর ঘাতকদের মদপান করে উল্লাস’

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ২৮ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:১৮:০০

ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেটে সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার পর দেশে ফেরার পথে ঘাতকরা খুবই উল্লাসিত ছিল। এ সময় তারা ব্যাপক মদপানও করেছিল। ঘাতক দলের প্রধানের গাড়ি চালকের বরাতে তুরস্কের দৈনিক দ্য হুররিয়াত ডেইলি নিউজ এ তথ্য জানিয়েছে। ইতিমধ্যে খাসোগি হত্যায় ১৮ সন্দেহভাজনকে তুরস্কে প্রত্যার্পণের আহ্বান জানিয়েছে আঙ্কারা।
শুক্রবার তুরস্কের বেসরকারি টেলিভিশন এ হাবেরে দেয়া সাক্ষাৎকারে ওই গাড়িচালক বলেন, ১৫ সদস্যের ওই সৌদি ঘাতক দলকে হোটেল থেকে ইস্তানবুল বিমানবন্দরে পৌঁছে দেয়ার জন্য তাকে ভাড়া করা হয়েছিল।
গত ২ অক্টোবর খাসোগি ইস্তানম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে ঢুকে নিখোঁজ হওয়ার পর সৌদি আরব প্রথমে তার ব্যাপারে কিছু জানা থাকার কথা অস্বীকার করেছিল। পরবর্তীতে তারা ওই কনস্যুলেটেই খাসোগি খুন হওয়ার কথা স্বীকার করে এবং ঘুষাঘুষিতে তিনি মারা যান বলে জানায়।
এই গাড়ি চালক বলেন, সেদিন বিকেল ৩টা ২০ মিনিটে কামাল আতাতুর্ক বিমানবন্দরে ৯ ব্যক্তির একটি দল অবতরণ করেন। তারা আমাদের তিনটি গাড়ি ভাড়া করেন। মাহের আব্দুল আজিজ মুতরেবসহ তিন ব্যক্তি আমার গাড়িতে ওঠেন। তারা চেয়েছিলেন, আমি তাদের হোটেলে উঠিয়ে দিয়ে পরদিন সকাল ৮টায় কনস্যুলেটে নিয়ে যাই।
১৬ অক্টোবর নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, খাসোগি হত্যার ঘটনায় তুর্কি কর্তৃপক্ষ ১৫ ব্যক্তিকে শনাক্ত করেছেন। তারা সৌদি নিরাপত্তা, সামরিক বাহিনী ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে কর্মকর্তা ছিলেন বলে জানা গেছে। তাদের নেতা মুতরেব সৌদি সিংহাসনের উত্তরসূরি মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বহুবার তুরস্ক সফর করেছেন।
২৩ অক্টোবরে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিনিয়র গোয়েন্দা কর্মকর্তা মুতরেব এমবিএস নামে পরিচিত মোহাম্মদ বিন সালমানের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য ছিলেন।
তুর্কি গাড়ি চালক বলেন, সকালে তিনি ইস্তানবুল হোটেলে পৌঁছান এবং মুতরেবসহ সৌদি নাগরিকদের কনস্যুলেটে দিয়ে আসেন। তাদের গাড়ি সেখানে গেলে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ব্যারিকেড সরিয়ে দেন।
‘এই সৌদি স্কোয়াড কনস্যুলেটে ঢোকার ঘণ্টাখানেক পর তিনটি গাড়ি বেরিয়ে যায়। গাঢ় রঙের গ্লাসের একটি কালো ভ্যানকেও সেসময় বেরিয়ে যেতে দেখা যায়।’
তুর্কি গাড়ি চালক বলেন, আমি দেখলাম, খাসোগির বাগদত্তা কনস্যুলেটের সামনে অপেক্ষা করছেন। তখন কনস্যুলেটে কাউকে ঢুকতে দেয়া হয়নি। কেউ আসলে ভেতরে পরিদর্শন হচ্ছে বলে ফিরিয়ে দেয়া হয়। এর মধ্যে খাসোগিকে আর দেখা যায়নি। দুই ঘণ্টা পর সৌদি স্কোয়াড আমাকে তাদের হোটেলে যেতে বলে।
তিনি যখন হোটেলে চলে যান, তখন মুতরেব ছাড়া অন্য তিন সৌদি তাদেরকে বিমানবন্দরে পৌঁছে দিতে একজন চালকের খোঁজ করে।
তুর্কি ওই চালক বলেন, তারা আমাকে এমন একটি জায়গার খোঁজ দিতে বলছিল, যেখানে বসে খাওয়া যাবে। আমি তাদের একটি রেস্তোরাঁয় নিয়ে যাই। তখন তারা খুবই উল্লসিত ছিল, গাড়ির ভেতর তারা অবিরত ধূমপান ও মদ পান করে যাচ্ছিলো।
শুক্রবার দেশটির পার্লামেন্টে দেয়া এক ভাষণে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান সৌদি আরবকে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন, জামাল খাসোগির মরদেহ কোথায় আছে তার ঠিকানা জানাতে। এছাড়া তাকে হত্যার নির্দেশ কে দিয়েছিল সেটাও জনসম্মুখে আনার কথা বলেছেন তিনি। এরদোয়ান জানিয়ে দিলেন খাসোগি হত্যা ইস্যুতে রিয়াদকে বিন্দুমাত্রও ছাড় দেবে না আঙ্কারা।
পার্লামেন্টে দেয়া ওই ভাষণে এরদোয়ান বলেন, ‘সৌদি আরবে যে ১৮ জনকে আটক করা হয়েছে তারা নিশ্চয়ই জানে কে খাসোগিকে হত্যা করেছে এবং তারা মরদেহে কোথায় সরিয়ে ফেলা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডের নির্দেশদাতাকে ইস্তাম্বুলের আদালতে হাজির করে অবশ্যই তাকে বিচারের আওতায় আনা হবে। সৌদি আরব প্রতিনিয়ত ঘটনার দায় নিয়ে যে নাটক করছে সেটা সত্যিই হাস্যকর। একটি জাতি রাষ্ট্রের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ কোনও আচরণ তারা করছে না বরং তারা যেটা বলছে সেটা শিশুসুলভ বিবৃতি।’
এরদোগান প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘এ হত্যার নির্দেশ কে দিয়েছে? ১৫ জনের দলটিকে কে তুরস্কে আসার নির্দেশ দিয়েছে? তার লাশ কোথায় লুকিয়ে রাখা হয়েছে বা ফেলে দেয়া হয়েছে, সৌদি আরবকে তা জানাতে হবে।’
সৌদি যুবরাজ সালমানকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘যদি আপনার ওপর তোলা হত্যার অভিযোগ থেকে বাঁচতে চান তাহলে এই ১৮ জন ব্যক্তি হলো তার মূল চাবিকাঠি। আপনি জানেন মানুষ কিভাবে কথা বলছে। যদি আপনি তাদের মুখ বন্ধ করতে চান তাহলে আটক ওই ব্যক্তিদের আমাদের হাতে হস্তান্তর করুন। যেহেতু ঘটনাটি ইস্তাম্বুলে ঘঠেছে সেহতেু এখানেই তাদেরকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।’
এছাড়াও এরদোয়ান সৌদি কে আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ‘যে স্থানীয় সহচরের মাধ্যমে আপনারা খাসোগির মরেদেহ সরিয়ে ফেলেছেন তার পরিচয়টা আমাদেরকে দিন।’ এ হত্যার ঘটনা সম্পর্কে তুরস্ক যতটুকু তথ্য-প্রমাণ দিয়েছে তার চেয়ে বেশি তথ্য তাদের হাতে আছে বলেও সৌদিকে হুঁশিয়ার করেছেন তিনি।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ






পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) আজ

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) আজ

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:২৩


নগরীতে মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ

নগরীতে মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ০১:২০