খুলনা | শনিবার | ১৭ নভেম্বর ২০১৮ | ৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

ন্যাপেও ভাঙনের সুর

এনডিপি’র চেয়ারম্যান ও মহাসচিবকে বহিষ্কার : থাকছে ২০ দলীয় জোটেই

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:২২:০০

২০ দলীয় জোট থেকে সদ্য বের হওয়া ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এনডিপি ভেঙে গেছে। এনডিপির বর্তমান চেয়ারম্যান ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আর নতুন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে এনডিপি থাকছে ২০ দলীয় জোটে! গত মঙ্গলবার রাতে গণমাধ্যমে ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনডিপি) পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। 
একই অবস্থা ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-ন্যাপেরও। দলের গোটা পাঁচ ছয় নেতা ছাড়া প্রায় সবাই ২০ দলীয় জোটে থেকে যাচ্ছেন। ন্যাপের বর্তমান শীর্ষ নেতাদের বহিষ্কার করে নিজেরা দলের হাল ধরার ঘোষণা দিয়ে ২০ দলীয় জোটে থেকে যাবে বলে জানা গেছে। 
জানা গেছে, ন্যাপ ও এনডিপি বিশেষ প্রলোভনে ২০ দলীয় জোট ত্যাগ করায় দলের অধিকাংশ নেতাই নাখোস। যে কারণে ২০ দলীয় জোট ত্যাগকারী দল এনডিপির ভাইস চেয়ারম্যান মোকাদ্দেম হোসেন দলের হাল ধরেছেন। তিনিসহ দলের অধিকাংশ নেতাই ২০ দলীয় জোটে থাকছেন। গত মঙ্গলবার রাতে গণমাধ্যমে এনডিপির পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দলের চেয়ারম্যানের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে খন্দকার গোলাম মোর্ত্তজাকে। দলের সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুল মুকাদ্দিমকে চেয়ারম্যান মনোনীত করেছে এনডিপি। 
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মুকাদ্দিমের নেতৃত্বেই ২০ দলীয় জোটে থাকবে এনডিপি। দলের প্রচার সম্পাদক জিয়াউল হক স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও ২০ দলীয় জোট বিরোধী কর্মকাণ্ডের জন্য এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ একই সঙ্গে ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মঞ্জুর  হোসেনকে বহিষ্কার করে ওসমান গনি পাটোয়ারীকে ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব করা হয়েছে। 
এদিকে একই অবস্থা ন্যাপেরও। গত মঙ্গলবার বিকেল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সকল পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে ২০ দলীয় জোট না ছাড়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছেন ন্যাপের কয়েকজন নেতা। তাদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দলের বর্তমান শীর্ষ নেতাদের বহিষ্কার করে নিজেদের নতুন নেতা ঘোষণা করা হতে পারে। দলটির যুগ্ম-মহাসচিব  সৈয়দ শাহজাহান সাজু ও সাংগঠনিক সম্পাদক এম এন শাওন সাদেকীর মধ্যে কেউ হাল ধরতে পারে বলে জানা গেছে। 
ন্যাপের বর্তমান সাংগঠনিক সম্পাদক এম এন শাওন সাদেকী বলেন, দলের মহাসচিবসহ হাতে গোনা ৪-৫ জন ছাড়া প্রায় পুরো ন্যাপই ২০ দলীয় জোটে থাকবে। মঙ্গলবারের ২০ দলীয় জোট ছাড়ার সংবাদ সম্মেলনে যারা গিয়েছিল তারাও অধিকাংশ ফিরে আসবে বলে কথা হয়েছে। তিনি বলেন, আমাদের দলের যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ শাহজাহান সাজু ভাইয়ের সঙ্গে কয়েকবার কথা হয়েছে। তিনি ২০ দলেই থাকবেন। তবে দলের নেতারা এই অবস্থায় আমাকে হাল ধরার কথা বলেছেন। শেষ পর্যন্ত আমিই হয়তো ন্যাপের হাল ধরে ২০ দলীয় জোটে থেকে যাব। 
এর আগে বিএনপি’র নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে এ দু’টি শরিক দল। আগামী একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক দলগুলোর ঐক্যবদ্ধ হওয়ার পেক্ষাপটে দল দু’টি ২০ দলীয় জোট ত্যাগ করায় কৌতূহল সৃষ্টি হয় রাজনৈতিক অঙ্গনে। এর ২৪ ঘন্টা না পার হতেই এনডিপিতে ভেঙে গেঠে এবং ন্যাপে ভাঙনের খবর শোনা যাচ্ছে।  
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ