খুলনা | শনিবার | ১৭ নভেম্বর ২০১৮ | ৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

মাহবুব তালুকদারের অভিযোগে মন্তব্য নেই

কমিশনে মতবিরোধ থাকলেও সুষ্ঠু নির্বাচনে সমস্যা হবে না : সিইসি

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১৭ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:১৫:০০

সংবিধান অনুযায়ী সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন করার জন্য যা যা করা দরকার, তা আমরা করব বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা। ঠিক নির্বাচনের আগ মুহূর্তে এসে নির্বাচন কমিশনারদের মধ্য মতবিরোধ থাকলেও সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনা করতে কোন কঠিন অবস্থার মুখে পড়তে হবে না বলে মন্তব্য করেছেন সিইসি ।
মঙ্গলবার নির্বাচন ভবনের অডিটরিয়ামে বেলা ১১টায় আঞ্চলিক ও জেলা নির্বাচনী কর্মকর্তাদের দিক নির্দেশনামূলক সভায় অংশ নিয়ে সিইসি এই মন্তব্য করেন। গতকাল নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বাকস্বাধীনতা হরণের অভিযোগ করে গণমাধ্যমে কথা বলেছেন। এই ব্যাপারে জানতে চাইলেও সিইসি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তাহলে মাহবুব তালুকদার যে অভিযোগ করেছেন তা সত্য বলে ধরে নিব কি না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের কোনো জবাব দেননি সিইসি। এ সময় আচরণবিধির কিছু পরিবর্তনের উদ্যোগ নেওয়া হবে বলেও জানান সিইসি। তবে তিনি বলেন, কী কী পরিবর্তন আনা হবে তা এখন মনে নেই। আগামী কমিশন সভায় এসব নিয়ে আলোচনা হবে। মাঠ পর্যায়ের নির্বাচনী কর্মকর্তারা সব আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছ থেকে বেশ ভালো সহযোগিতা পাচ্ছেন বলে মন্তব্য করেন সিইসি। সভার উদ্বোধন শেষে নুরুল হুদা বলেন, সাংবিধান অনুযায়ী অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য যা যা করা প্রয়োজন, তা আমরা করব।
নির্বাচনী কর্মকর্তাদের পরামর্শ দিয়ে নির্বাচন কমিশনের প্রধান নির্বাচন পরিচালনার ক্ষেত্রে যেসব সমস্যা আছে, তা এই আলোচনা সভায় আলোচনার করতে বলেন। নুরুল হুদা বলেন, জাতীয় নির্বাচনের সময় সমগ্র জাতি একটা আবহ তৈরি করেন। কারণ, এই নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তন হয়। ভোটারদের নিরাপত্তা, প্রার্থীদের আচরণবিধি মেনে চলা, সুশীল সমাজের পরামর্শ গ্রহণ করা, অন্য অংশীজনদের পরামর্শ গ্রহণ করা এবং আপনাদের বুদ্ধি-বিবেচনা কাজে লাগিয়ে প্রত্যাশিত নির্বাচনটি আপনারা জাতিকে উপহার দিবেন। ইসি সূত্রে জানা গেছে, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি চূড়ান্ত ভাবে নিতে শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার ১১টায় নির্বাচন ভবনের অডিটরিয়ামে সভাটি শুরু হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন অন্য চার নির্বাচন কমিশনারসহ ইসি সচিবালয়ের অনেকেই। এতে ১০ জন আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তাসহ ৬৪ জন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা উপস্থিত আছেন।
সূত্র আরো জানায়, শুধু জাতীয় সংসদ নির্বাচনই নয়, সংসদ নির্বাচনের পরে স্থানীয় সরকার নির্বাচন নিয়ে কর্মকর্তাদের বিভিন্ন বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেওয়া হবে এই সভায়। সব মিলিয়ে সংসদ নির্বাচন এবং স্থানীয় নির্বাচনের প্রস্তুতি এক সঙ্গে নিচ্ছে কমিশন। একটি সুন্দর নির্বাচন উপহার দিতে যাবতীয় করণীয় নিয়ে কাজ করছে ইসি। 
 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ