খুলনা | সোমবার | ২২ জুলাই ২০১৯ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ |

শিরোনাম :
খুলনায় ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া জ্বরে আক্রান্ত ২১ রোগী শনাক্তপ্রিয়ার বিরুদ্ধে খুলনা যশোরসহ ৪ জেলায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার ছয়টি আবেদন খারিজযশোরসহ ৪ জেলার মাত্র একজন বিচারকের হাতে ১৭শ’ ৭০ মামলা : স্টাফ মাত্র দু’জনখুলনার বৃক্ষমেলায় দর্শনার্থীদের নজর কেড়েছে এ্যাডেনিয়াম ফুল গাছ‘আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগের আগে আইনানুগ ব্যবস্থা না নেওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর’প্লাটিনাম জুট মিলের চারটি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণা জীবনের ঝুঁকিতে শ্রমিক পরিবারের সদস্যরারাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক কূটনীতি একসঙ্গে অনুসরণ করুন : রাষ্ট্রদূতদের প্রধানমন্ত্রীপ্রি-একনেকে অনুমোদনের পর কেটেছে ১০ মাস, একনেকে ওঠেনি শের-এ বাংলা রোড চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্প

Shomoyer Khobor

সময়ের খবরকে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম

হাইব্রীড নেতাদের ভীড়ে পরিক্ষীত কর্মীদের আজ রাজনীতিতে মূল্যায়ন করা হচ্ছে না

আল মাহমুদ প্রিন্স  | প্রকাশিত ১৩ অক্টোবর, ২০১৮ ২৩:৫৬:০০

সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম খুলনার আহ্বায়ক শেখ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের উন্নয়নে জননেত্রী শেখ হাসিনা আন্তরিকতার অভাব নেই। এখন শুধু প্রয়োজন উপযুক্ত নেতৃত্ব ও জনপ্রতিনিধি। গেল ১৫ মে খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে পদ্মার এপারে প্রধানমন্ত্রীর আস্তাভাজন আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক নির্বাচিত হওয়ায় উন্নয়নের ব্যাপারে খুলনাবাসী আশান্বিত হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রায় ১৫শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ পেয়েছেন। আমাদের যোগ্য নগর পিতা তালুকদার আব্দুল খালেকের ৪০ বছরের জনপ্রতিনিধিত্বের অভিজ্ঞতায় সুচিন্তিত উন্নয়নের পরিকল্পনা গ্রহণ করছেন। তিনি বলেন, বিগত দিনে যারা আওয়ামী লীগের পরিক্ষিত নেতা-কর্মী তাদেরকে রাজনীতিতে আজ মূল্যায়ন করা হচ্ছে না হাইব্রীড নেতাদের ভীড়ে।  দৈনিক সময়ের খবরকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা তুলে ধরেন।
তিনি বলেন, ‘খুলনাবাসীর সাথে আমিও আশাবাদী নির্বাচনী ওয়াদা মোতাবেক আগামী ৫ বছরের মধ্যেই সিটি মেয়র খুলনাকে বিশ্বমানের নগরী হিসেবে রূপ দিতে পারবেন। খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে উন্নয়নের ব্যাপারে এতদাঞ্চলের সিংহপুরুষ জাতির জনকের ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি’র নেপথ্যে ও প্রকাশ্যে অবদানের কাছে খুলনাবাসীসহ আমরা দলীয় নেতা-কর্মীরা চিরকৃতজ্ঞ।’ 
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাবেক ছাত্রলীগ ফোরামের ভূমিকা বিষয়ে জানতে চাইলে সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম নেতা জাহাঙ্গীর বলেন, একাদশ জাতীয় নির্বাচনে সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম আমাদের মাতৃ সমতুল্য সভানেত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচিত প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কাজ করতে বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন, প্রার্থী বড় কথা নয়, নৌকা জিতলে শেখ হাসিনা রাষ্ট্র প্রধান হবেন। উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির মহাসড়কে চলমান বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে। জাতির জনকের একজন আদর্শের কর্মী হিসেবে আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়বো। এ ব্যাপারে সাবেক ছাত্রলীগ ফোরামের প্রতিটি কর্মী নির্লোভ নিবেদিত দেশ প্রেমিক আদর্শে সদা প্রস্তুত থাকবে। 
চলমান রাজনীতি বিষয়ে জানতে চাইলে জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘৭৫ পরবর্তী ত্যাগী পরিক্ষিত নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্য ছিল ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ বাতিলের মধ্য দিয়ে জাতির জনকসহ তার পরিবারবর্গ ও ৩ নভেম্বরের শহিদদের হত্যার বিচারকার্য শুরু এবং সম্পন্ন করার সংগ্রাম।’ বঙ্গবন্ধু কন্যা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ দল আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় এনে পুনঃপ্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে জাতির জনক ও মহান মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহিদের বিনিময়ে অর্জিত স্বাধীন বাংলা দেশকে স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা। দীর্ঘ ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলেও আমাদেরই কিছু সুবিধাবাদী নেতার সহায়তায় স্বার্থান্বেষীরা অনুপ্রবেশ করেছিল। যা আজও অব্যাহত। মুজিব আদর্শের একজন সৈনিক হিসেবে আমি মনে করি ‘৯৬ সালে জাতীয় নির্বাচনে ক্ষমতায় আসতে এদের কোনো প্রয়োজন হয়নি। সমাজের আলোচিত পরিচ্ছন্ন দেশ প্রেমিক মানুষগুলো আওয়ামী লীগে আনলে দেশ এবং দল আরও সমৃদ্ধি হবে।
তিনি জানান, দৃশ্যমান আলোচিত দেশপ্রেমিক ব্যক্তিত্বের অভাবে সুবিধাবাদী লুটেরাদের ভীড় বেশি পরিলক্ষিত। যা এ মাটির একজন সন্তান হিসেবে আমাদের ব্যথিত করে। 
তিনি আরও বলেন, আগামী একাদশ জাতীয় নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশের সকল মানুষের পাশাপাশি খুলনার প্রতিটি সাধারণ নাগরিককে সচেতনতার সাথে এ নির্বাচনকে মূল্যায়ন করতে হবে। সর্বশেষ আগামী নির্বাচনে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের প্রতীক শেখ হাসিনার নৌকা বিজয়ী করার জন্য ছাত্র-শ্রমিক-জনতাসহ সকল মানুষকে বিনীত অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি।
কেন সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম গঠন করা হয়েছে? এ প্রশ্নের জবাবে জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বিগত দিনে যারা আওয়ামী লীগ, সহযোগী ও অঙ্গসংগঠনের পরিক্ষিত নেতা-কর্মী তাদেরকে রাজনীতিতে আজ মূল্যায়ন করা হচ্ছে না হাইব্রীড নেতাদের ভীড়ে। দলের এসব ত্যাগী নেতা-কর্মীরা আজ অবহেলিত-বঞ্চিত হয়ে আছে। তাই এসব ত্যাগী নেতা-কর্মীদের রাজনীতিতে আরও সক্রিয় করতে মেধাবী ছাত্রনেতাদের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছে সাবেক ছাত্রলীগ ফোরাম নামক সংগঠন।
 

বার পঠিত

পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ











ব্রেকিং নিউজ