খুলনা | মঙ্গলবার | ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

ক্রমশ দুর্বল তিতলি: বন্দরে সংকেত কমিয়ে ৩

খবর প্রতিবেদন | প্রকাশিত ১১ অক্টোবর, ২০১৮ ১৩:৪৪:০০


বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ ও উড়িষ্যা উপকূল অতিক্রম করেছে। স্থলভাগ দিয়ে এটি উপরের দিকে সরছে বিধায় ক্রমেই দুর্বল হয়ে পড়ছে। সেজন্য বাংলাদেশও বড় ধরনের ঝুঁকিমুক্ত বলে জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদরা।
আজ বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক (পরিচালকের পক্ষে) স্বাক্ষরিত সর্বশেষ ১৫ নম্বর বিশেষ বুলেটিনের মাধ্যমে জানানো হয়, ঘূর্ণিঝড় তিতলি উড়িষ্যা থেকে আরও উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমশ দুর্বল হতে পারে। এটি বাংলাদেশ উপকূলে আঘাত হানার ঝুঁকি কমে যাওয়ায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার,মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।
আবহাওয়া অধিদফতরের এ বুলেটিনে আরও বলা হয়, প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে।
উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব ধরনের মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত  নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।
এর আগে ভারতীয় সময় ভোর সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত অন্ধ্র-উড়িষ্যা উপকূলে ‘তিতলি’র তাণ্ডব চলে। আবহাওয়া অধিদফতর জানায়, অন্ধ্র প্রদেশের শ্রীকাকুলাম জেলায় আঘাত হানার সময় ‘তিতলি’র গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৪০ থেকে ১৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত। অন্ধ্রে প্রলয়কাণ্ড চালিয়ে উত্তরের দিকে এসে উড়িষ্যার গানজাম জেলায় আছড়ে পড়ার সময় এর তীব্রতা কিছুটা কমে যায়। সেসময় এর গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১০২ কিলোমিটার পর্যন্ত।
সংবাদমাধ্যম জানায়, ঝড় উপকূলের দিকে এগিয়ে আসতেই শুরু হয় টানা বর্ষণ। আর আঘাত করার পর উড়িষ্যার গানজাম, গজপতি, পুরি, খুর্দ ও জগতসিংপুর এবং অন্ধ্র প্রদেশের শ্রীকাকুলামসহ বেশ কিছু জেলায় শুরু হয় ভূমিধস। ঝড়ের পর বেশ কিছু সড়ক-মহাসড়কে গাছ-বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে পড়ে থাকতেও দেখা যায়। গোপালপুর ও বারহামপুর শহরের মধ্যে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে সর্বপ্রকার যোগাযোগ। তবে তাৎক্ষণিকভাবে প্রাণহানির কোনো খবর মেলেনি। সূত্র : বাংলানিউজ 


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ




খুলে দেয়ার পর আবার বন্ধ ৫৪ ওয়েবসাইট

খুলে দেয়ার পর আবার বন্ধ ৫৪ ওয়েবসাইট

১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৪:৩৬

হাসপাতালে লিটন দাস

হাসপাতালে লিটন দাস

১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৪:৩৫

জেএসসি-জেডিসির ফল ২৪ ডিসেম্বর

জেএসসি-জেডিসির ফল ২৪ ডিসেম্বর

১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৪:৩৪








ব্রেকিং নিউজ












বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর

১১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০১:১০