খুলনা | রবিবার | ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২ পৌষ ১৪২৫ |

Shomoyer Khobor

কেসিসি’র সড়ক মেরামত ও উন্নয়নে ৬০৭ কোটি টাকার প্রকল্প একনেকে অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত ১০ অক্টোবর, ২০১৮ ০১:২০:০০

খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি)’র ধ্বংসপ্রাপ্ত সড়ক মেরামত ও উন্নয়নে ৬০৭ কোটি টাকার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় গতকাল অনুমোদন পেয়েছে। এর আগে গত ১৯ সেপ্টেম্বর জলাবদ্ধতা নিরসনে ৮২৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকার প্রকল্প অনুমোদন মেলে। ফলে প্রকল্প দু’টি বাস্তবায়ন হলে নগরীর জলাবদ্ধতা ও ভাঙ্গাচোরা সড়কের দীর্ঘদিনের ভোগান্তি কমবে।
জানা গেছে, মহনগরীতে খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি)’র তালিকাভুক্ত ১ হাজার ২১৫টি সড়ক রয়েছে। এসব সড়কের দৈর্ঘ্য ১ হাজার ২০৫ কিলোমিটার। বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির থোক বরাদ্দ থেকে প্রতি বছরই এসব সড়কের ছোট ছোট সড়ক সংস্কার করা হয়। কিন্তু বড় সড়ক সংস্কারের জন্য প্রকল্পের সাহায্য নিতে হয়। ২০১৪ সালে ক্ষতিগ্রস্ত ও ধ্বংসপ্রাপ্ত সড়ক সংস্কারের জন্য ১০০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু প্রকল্পটি অনুমোদন হয়নি। পরে আরও কয়েকটি প্রকল্প পাঠানো হলেও সেগুলোও অনুমোদন পায়নি। ফলে সার্বিক কাজ এক রকম মুখ থুবড়ে ছিল। এ অবস্থায় নির্বাচনের কয়েকদিন পরই নব-নির্বাচিত মেয়র নগরীর ধ্বংসপ্রাপ্ত ও গুরুত্বপূর্ণ সড়ক মেরামতের জন্য প্রকল্প তৈরির নির্দেশ দেন। সে অনুযায়ী নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডের ৫১১টি এবং কেন্দ্রীয়ভাবে ৬০টিসহ মোট ৫৭১টি সড়কের তালিকা তৈরি করা হয়। পরে এর ব্যয় নির্ধারণ করে ৬০৭ কোটি টাকার প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হয়। এর মধ্যে মুজগুন্নী মহাসড়ক (সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে নতুন রাস্তা), জলিল স্মরণী (বয়রা কলেজ মোড় থেকে রায়েরমহল হয়ে সিটি বাইপাস), মজিদ স্মরণি (শিববাড়ী মোড় থেকে বাস টার্মিনাল), এম এ বারী সড়ক (গল্লামারী থেকে বাস টার্মিনাল), বিআইডিসি রোড, পুরাতন যশোর রোড (ডাকবাংলা মোড় থেকে কাস্টমঘাট) সহ গুরুত্বপূর্ণ সড়ক রয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় ৭৮ কিলোমিটার রাস্তার কার্পেটিং, ১৬৩ কিলোমিটার আরসিসি রাস্তা ঢালাই, ৬৩ কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণ, ২০টি গুরুত্বপূর্ণ মোড়ের উন্নয়ন ও পাঁচটি ভাস্কর্য্য নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে। 
কর্পোরেশনের চীপ প্লানিং অফিসার আবির উল জব্বার বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে ৮২৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকা এবং সড়ক মেরামতের ৬০৭ কোটি টাকার পৃথক দু’টি প্রকল্প মন্ত্রণালয়ে জমা দেওয়া হয়। জলাবদ্ধতা নিসরনে ইতিপূর্র্বের একনেক’র বৈঠকে ৮২৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকার প্রকল্প অনুমোদন হয়। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ধ্বংসপ্রাপ্ত সড়ক মেরামত ও উন্নয়নে ৬০৭ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন পেয়েছে। তবে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো এবারও ম্যাসিং ফান্ডের জন্য কেসিসি’র নিজস্ব তহবিল থেকে ১২১ কোটি ৫১ লাখ টাকা দেয়া লাগবে না।
কেসিসি’র নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ লিয়াকত আলী খান জানান, চলতি বছর ডিসেম্বর থেকে রাস্তা সংস্কারের কাজ শুরু হবে। ২০২২ সালে জুনে শেষ হবে। প্রকল্প দু’টি বাস্তবায়ন হলে নগরীর জলাবদ্ধতা ও ভাঙ্গাচোরা সড়কের দীর্ঘদিনের ভোগান্তি কমবে।


পাঠকের মন্তব্য (০)

লগইন করুন




আরো সংবাদ














ব্রেকিং নিউজ